Swastika Mukherjee: ‘শরীর নিখুঁত নয়, দাগে ভরা…’, মাতৃদিবসে মন উজাড় করা চিঠি স্বস্তিকার

Mother's Day 2022: স্বস্তিকার সেলাম পৃথিবীর সেই সব মায়েদের যারা সারা গায়ে স্ট্রেচ মার্ক, নিখুঁত শরীর না নিয়েও মাতৃত্বের সুখানুভূতির কারণে পাত্তা দেননি সে সবে।

Swastika Mukherjee: 'শরীর নিখুঁত নয়, দাগে ভরা...', মাতৃদিবসে মন উজাড় করা চিঠি স্বস্তিকার
মাতৃদিবসে খোলাচিঠি স্বস্তিকার।
TV9 Bangla Digital

| Edited By: বিহঙ্গী বিশ্বাস

May 08, 2022 | 10:25 PM

আজ মায়েদের দিন। ফেসবুক জুড়ে উপচে পড়ছে মায়েদের নিয়ে সন্তানদের পোস্ট। কেউ শেয়ার করছেন মায়ের কষ্টের কথা। কেউ বা আবার ভাগ করে নিচ্ছেন খুনসুটির নানা বৃত্তান্ত। তবে এ সবের থেকে খানিক উল্টো পথেই হেঁটেছেন স্বস্তিকা মুখোপাধ্যায়। মা বা মেয়ের ছবি নয়, স্বস্তিকার সেলাম পৃথিবীর সেই সব মায়েদের যারা সারা গায়ে স্ট্রেচ মার্ক, নিখুঁত শরীর না নিয়েও মাতৃত্বের সুখানুভূতির কারণে পাত্তা দেননি সে সবে। তাঁর শুভেচ্ছা পৃথিবীর সমস্ত বাবাকে যারা বাবা-মায়ের কর্তব্য পালন করে চলেছেন, সেই সমস্ত পেট প্যারেন্ট অর্থাৎ পোষ্যদের দত্তক বাবা-মা’কেও যারা তাদেরকে দিয়েছেন ভালবাসার বাসা।

দুটি ছবি শেয়ার করেছেন স্বস্তিকা। ছবি দুটি প্রতীকী। কোনও এক মায়ের ছবি, মাতৃত্বের ছবি। যে ছবি জুড়ে লুকিয়ে রয়েছে মা হওয়ার কষ্ট, অথচ অদ্ভুত এক অপার্থিব অনুভূতি। যে ছবির সঙ্গে স্বস্তিকা মিল খুঁজে পান নিজেরও। মিল খুঁজে পান বহু বছর আগের সেই সব দিনের যখন চেয়ারে বসে বিনিদ্র রজনী কাটাতে হয়েছে তাঁকে শুধুমাত্র আগত সন্তানের কথা ভেবে।

স্বস্তিকা লিখছেন, “এক শিশুকে আমি আমার মধ্যে লালন করেছি। সেই শিশু আমার বুকের উপর ঘুমিয়েছে। বমি, পটি সব কিছু সামলে বিনিদ্র রজনী কাটাতে হয়েছে চেয়ারে বসে। আমার শরীর নিখুঁত নয়। তাতে দাগ রয়েছে, রয়েছে ক্ষত। কিন্তু যখনই আমি আয়নার দিকে তাকাই আমি এক মাকে দেখতে পাই। এর চেয়ে বড় আশীর্বাদ কি আর কিছু হতে পারে?” ছোট বয়সেই সন্তানের দায়িত্ব কাঁধে আসে স্বস্তিকার। মেয়ে আজ বড় হয়েছে। তাঁদের আদর-খুনসুটির সাক্ষী থাকে দুইজনেরই সোশ্যাল মিডিয়া। মেয়েকে সামলেও স্বস্তিকা সামলেছেন কেরিয়ার। শরীরে তথাকথিত খুঁত নিয়ে তাঁর ছুঁৎমার্গ নেই। মাতৃত্বতেই খুশি তিনি। আনন্দ খুঁজে পান আত্মজার মধ্যেই।

এই খবরটিও পড়ুন

Latest News Updates

Follow us on

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla