ভোটের ফল প্রকাশের পরই রাজ্যজুড়ে হিংসা, শপথ গ্রহণ বয়কট বিজেপির

১০ এপ্রিল ফল প্রকাশ হয় ত্রিপুরার উপজাতি অধ্যুষিত জেলা পরিষদ নির্বাচনের। ২৮টি আসনের মধ্যে ১৮টি আসনে জয়লাভ করে নতুন দল তিপরা। বিজেপি(BJP) জোট পায় মাত্র ৯টি আসন।

ভোটের ফল প্রকাশের পরই রাজ্যজুড়ে হিংসা, শপথ গ্রহণ বয়কট বিজেপির
প্রতীকী চিত্র।

আগরতলা: ফল ঘোষণার পরই রাজ্যজুড়ে ছড়িয়েছে হিংসা। একাধিক রাজনৈতিক দলের কর্মীদের বাড়িতে চলেছে ভাঙচুর। সেই ক্ষোভেই ত্রিপুরার উপজাতি অধ্যুষিত জেলা পরিষদের শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠান বয়কট করল বিজেপি। তাদের নির্বাচিত নয় সদস্য শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠানে অংশ নেবেন না বলেই জানা গিয়েছে।

সোমবার উপজাতি পরিষদের সকল নির্বাচিত প্রতিনিধিদের শপথ নেওয়ার কথা। আগামিকাল, ২০ এপ্রিল শপথ নেবেন পরিষদের মুখ্য আধিকারিক ও অন্যান্য আধিকারিকরা। তবে বিজয়ী দল তিপরা মোথার বিরুদ্ধে হিংসা ছড়ানোর অভিযোগ এনে শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠান বয়কট করে।

এই বিষয়ে বিজেপি নেতা তথা সদ্য নির্বাচিত পরিষদের প্রতিনিধি বিমল কান্তি চাকমা বলেন, “ভোটের ফল প্রকাশের পরই তিপরা মোথা রাজ্যজুড়ে যে অশান্তির সৃষ্টি করেছে, তার সাক্ষী আমরা সকলেই থেকেছি। এই পরিস্থিতিতে আমাদের পক্ষে শপথ নেওয়া সম্ভব নয়, তাই আমরা এই অনুষ্ঠান বয়কট করছি।”

অন্য একদিন শপথগ্রহণের অনুরোধ জানিয়ে ইতিমধ্যেই ত্রিপুরার রাজ্যপালকে চিঠি লিখেছেন বিজেপি কর্মীরা।

গত ৬ এপ্রিল ত্রিপুরা উপজাতি অধ্যুষিত জেলা পরিষদের নির্বাচন হয়। এই নির্বাচনে ত্রিপুরার রাজ পরিবারের উত্তরসূরি তথা প্রাক্তন কংগ্রেস নেতা প্রদ্যোত কিশোর দেব বর্মনের দল ২৮টির মধ্যে ১৮টি আসনে জয়লাভ করে। বিজেপি নয়টি আসন ও দুটি আসনে দুই নির্দল প্রার্থী জয়ী হয়। তবে ভোটের ফলপ্রকাশের পরই মোহনপুর, খোয়াই, গোমতি, জিরানিয়া সহ একাধিক জায়গায় অশান্তি শুরু হয়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে ১৪৪ ধারা জারি করা হয়।

আরও পড়ুন: গ্রিন করিডরে অক্সিজেন নিয়ে ছুটবে স্পেশাল ট্রেন! কোভিড মোকাবিলায় কী কী উদ্যোগ রেলের?

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla