কংগ্রেসের মিছিল ঘিরে রণক্ষেত্রে পরিণত ভোপাল, চলল কাঁদানে গ্যাস-জলকামান

ভাইরাল হওয়া একটি ভিডিয়োয় দেখা যায়, জল কামানের ব্যবহার শুরু করতেই কংগ্রেস কর্মীরা যত্রতত্র ছোটাছুটি শুরু করেন। আরেকটি ভিডিয়োয় দেখা যায়, জল কামানে পিছু না হটে পুলিসের গাড়ি ঘিরেই দাঁড়িয়ে রয়েছেন একদল সমর্থক।

কংগ্রেসের মিছিল ঘিরে রণক্ষেত্রে পরিণত ভোপাল, চলল কাঁদানে গ্যাস-জলকামান
জলকামানের সামনেও পতাকা উঁচিয়ে দাঁড়িয়ে রয়েছেন কংগ্রেস কর্মীরা।
ঈপ্সা চ্যাটার্জী

|

Jan 23, 2021 | 4:32 PM

ভোপাল: আন্দোলনকারী কৃষকদের সমর্থনে দুই সপ্তাহ জুড়ে কর্মসূচি শুরু করেছে কংগ্রেস (Congress)। সেই কর্মসূচির অংশ হিসাবেই শনিবার মধ্য প্রদেশের রাজ্যপালের বাড়ি ঘেরাও করার কথা ছিল দলীয় কর্মীদের। তবে রাজভবনে পৌঁছনোর আগেই কার্যত রণক্ষেত্রের চেহারা নিল কংগ্রেসের মিছিল। জলকামান (water cannon), কাঁদানে গ্যাস (tear gas) ব্যবহারের পাশাপাশি আন্দোলনকারীদের উপর লাঠিচার্জও করল পুলিস।

আজ দুপুরে কয়েকশো কংগ্রেস কর্মী ভোপালের জওহর চকের সামনে জমায়েত হন। সেখান থেকেই তাঁরা রাজ্যপাল আনন্দীবেন পটেল (Anandiben Patel)-র বাসস্থান রাজভবনের উদ্দেশে রওনা দেন। মিছিলের নেতৃত্ব দিচ্ছিলেন প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী কমল নাথ (Kamal Nath)। দেখা যায়, বাসের ছাদ থেকে তিনি ও দলের অন্যান্য নেতৃত্বরা কৃষি আইনের বিরুদ্ধে স্লোগান দিচ্ছেন।

গোটা পথে কোনও সমস্যা না হলেও রাজভবনের কাছাকাছি পৌঁছতেই পুলিস বাধা দেয় এবং আন্দোলনকারীদের সতর্ক করে। কংগ্রেস কর্মীরা ব্যারিকেড ভাঙার চেষ্টা করলেই পুলিস আধিকারিকেরা মাইকে আন্দোলনকারীদের পিছু হটার নির্দেশ দেন ও লাঠিচার্জ করার কথাও বলেন। এরপরও আন্দোলনকারীরা পিছু না হটায় পুলিস জলকামান ও কাঁদানে গ্যাস ব্যবহার করে।

আরও পড়ুন: জম্মু-কাশ্মীর সীমান্তে ফের পাক সুড়ঙ্গের খোঁজ পেল বিএসএফ

ভাইরাল হওয়া একটি ভিডিয়োয় দেখা যায়, জল কামানের ব্যবহার শুরু করতেই কংগ্রেস কর্মীরা যত্রতত্র ছোটাছুটি শুরু করেন। আরেকটি ভিডিয়োয় দেখা যায়, জল কামানে পিছু না হটে পুলিসের গাড়ি ঘিরেই দাঁড়িয়ে রয়েছেন একদল সমর্থক।

সূত্র অনুযায়ী,পরে পুলিস আন্দোলনে অংশগ্রহণকারীদের উপর লাঠিচার্জও শুরু করে। পুলিসের সঙ্গে সংঘর্ষে বেশ কয়েকজন কংগ্রেস নেতা ও পুলিসকর্মীরা আহত হন। যদিও দলের তরফে এই বিষয়ে দলের তরফে এখনও কোনও প্রতিক্রিয়া মেলেনি।

বিগত দুই মাস ধরে দিল্লি সীমান্তে দেশের বিভিন্ন প্রান্তের কৃষকরা আইন প্রত্যাহারের দাবিতে আন্দোলন করছেন। কংগ্রেসের তরফে প্রথম থেকেই এই আন্দোলনে সমর্থন জানানো হয়েছে। এর আগে দিল্লিতেও উপরাজ্যপালের বাসভবন ঘিরে অবস্থান বিক্ষোভ দেখিয়েছিলেন কংগ্রেসের প্রাক্তন সভাপতি রাহুল গান্ধী ও কর্মী-সমর্থকরা।

আরও পড়ুন: শারীরিক অবস্থার অবনতি, দিল্লিতে স্থানান্তরিত করা হতে পারে লালু প্রসাদকে

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla