‘আমি কিছু বলিনি…’, টুইট ‘ডিলিট’ করে জল্পনা আরও বাড়ালেন প্রণব-পুত্র

গত সপ্তাহ থেকেই রাজ্য রাজনীতিতে জল্পনা, তৃণমূলে যোগ দেবেন অভিজিৎ মুখোপাধ্যায়। যদিও নিজেই সেই প্রসঙ্গে টুইট করেছিলেন তিনি।

'আমি কিছু বলিনি...', টুইট 'ডিলিট' করে জল্পনা আরও বাড়ালেন প্রণব-পুত্র
প্রণব পুত্র অভিজিৎ (ফাইল ছবি)

কলকাতা: গত শুক্রবার, একদিকে যখন সকাল থেকে এক দিকে যখন শিরোনামে মুকুল রায়, অন্য দিকে তখন আরও এক নেতার দলবদল ঘিরে জল্পনা ছিল তুঙ্গে। শোনা যাচ্ছিল, তৃণমূলে যোগ দিতে পারেন প্রণব মুখোপাধ্যায়ের ছেলে তথা কংগ্রেস নেতা অভিজিৎ মুখোপাধ্যায় (Abhijit Mukherjee)। সম্প্রতি তৃণমূল নেতাদের সঙ্গে তাঁর দেখা হওয়ায় এই জল্পনা তৈরি হয়। ঘনিষ্ঠ মহলে নাকি তৃণমূলে যোগ দেওয়ার কথা জানিয়েও ছিলেন তিনি। কিন্তু খবর চাউর হতেই নিজে টুইট করেন অভিজিৎ। আর এরই মধ্যে সেই টুইট সরিয়েও দিলেন তিনি।

শুক্রবার অভিজিৎ মুখোপাধ্যায়ের দলবদলের ইঙ্গিত নিয়ে যখন আলোচনা চলছিল, তখন নিজেই একটি টুইট করেছিলেন তিনি। লিখেছিলেন, ‘আমি এই বিষয়ে কিছু বলিনি।’ অর্থাৎ তিনি যে তৃণমূলে যোগ দেওয়ার কথা বলেননি, সেটাই দাবি করেন ওই টুইটে। এর মাঝে কয়েক দিন কেটে গিয়েছে। আর প্রণব-পুত্রের টুইটার থেকে সেই টুইট গায়েব। সুতরাং দলবদলের জল্পনা উড়িয়ে দিয়ে যে টুইট তিনি করেছিলেন, সেই টুইট উড়ে যাওয়ায় এ বার আরও বাড়ল জল্পনা।

অবশ্য শুধু টুইটেই নয়, শুক্রবার অভিজিৎ একটি সাংবাদিক বৈঠক করেও জানান, এই মুহূর্তে তিনি তৃণমূলে যাচ্ছেন না। এ নিয়ে বিভ্রান্তি ছড়িয়েছে। যদিও, জেলার রাজনৈতিক মহলে কানাঘোষা শোনা যাচ্ছে, সমস্ত সম্ভাবনা এখনও শেষ হয়নি। গত ৯ জুন প্রণব-পুত্র অভিজিৎ তাঁর জঙ্গিপুরের বাসভবনে তৃণমূলের জেলা সভাপতি, জঙ্গিপুরের সাংসদ-সহ একাধিক নেতার সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন। সেখান থেকে জল্পনার সূত্রপাত। এরপরই জেলা জুড়ে জল্পনা ছড়ায়, তা হলে কি অভিজিৎও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের হাত শক্ত করতে চলেছেন? সেই বৈঠকে ছিলেন তৃণমূল সাংসদ খলিলুর রহমান, তৃণমূল জেলা সভাপতি আবু তাহের, বিধায়ক ইমানি বিশ্বাস, দুই মন্ত্রী আখরুজ্জামান ও সাবিনা ইয়াসমিন-সহ জেলার আরও একাধিক হেভিওয়েট তৃণমূল নেতা।

আরও পড়ুন: গাড়ুলিয়ায় ‘গদ্দার’ তকমায় পোস্টার! অতঃপর নিজের অবস্থান স্পষ্টই করে ফেললেন মুকুল ঘনিষ্ঠ সুনীল সিং

এরই মধ্যে মুকুল রায় শুভ্রাংশ রায় বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে যোগ দিয়েছেন। আর এক নেতা রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়কে নিয়েও জল্পনা রয়েছে। এরই মধ্যে অভিজিৎ টুইট মুছে ফেলায় নতুন করে প্রশ্নচিহ্ন তৈরি হয়েছে। তবে কি সত্যিই তাঁর ঘাসফুলে শিবিরে যোগ দেওয়ার অনুমান সত্যি?