অ্যাম্বুলেন্স জোগাড়ে হিমশিম, বিকল্প পরিষেবা দিতে ৩০০ অ্যাপ ক্যাব নামাচ্ছে সিটু

অ্যাপ ক্যাব অপারেটর অ্যান্ড ড্রাইভার ইউনিয়নের পক্ষ থেকে মঙ্গলবার জানানো হয়েছে, অ্যাম্বুলেন্সের বিকল্প পরিষেবা ৩০০টি অ্যাপ ক্যাব কলকাতায় নামানো হবে।

অ্যাম্বুলেন্স জোগাড়ে হিমশিম, বিকল্প পরিষেবা দিতে ৩০০ অ্যাপ ক্যাব নামাচ্ছে সিটু
ফাইল ছবি

নয়া দিল্লি: গোটা দেশের মতো এ রাজ্যেও আছড়ে পড়েছে অতি মহামারির সুনামি। যার ফলে চিকিৎসা পরিষেবা কার্যত ভেঙে পড়ার মুখে। এমনকি মুমুর্ষু রোগীকে হাসপাতাল নিয়ে যাওয়ার জন্য প্রয়োজনীয় অ্যাম্বুলেন্সটুকু পাচ্ছেন না রোগীর পরিজনেরা। এই অবস্থায় সাহায্যের হাত বাড়িয়েছে সিপিআইএম-র শ্রমিক সংগঠন সিআইটিইউ বা সিটু। সিটু সমর্থিত কলকাতা ওলা-উবর অ্যাপ ক্যাব অপারেটর অ্যান্ড ড্রাইভার ইউনিয়নের পক্ষ থেকে মঙ্গলবার জানানো হয়েছে, অ্যাম্বুলেন্সের বিকল্প পরিষেবা ৩০০টি অ্যাপ ক্যাব কলকাতায় নামানো হবে।

মঙ্গলবার রাজ্যের দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় সাড়ে ১৬ হাজারের দোরগোড়ায় পৌঁছে গিয়েছে। এমন প্রচুর মানুষ রয়েছেন যারা গুরুতরভাবে অসুস্থ হয়ে পড়লেও অ্যাম্বুলেন্স জোগাড়ে হিমশিম খাচ্ছেন। এই অবস্থায় করোনা ভাইরাসের সংক্রমণের কথা মাথায় রেখে সাধারণ মানুষের পাশে দাঁড়ানোর জন্য শহর কলকাতা এবং তার পাশ্বর্বর্তী এলাকায় চালানো হবে ৩০০ টি অ্যাপ নির্ভর গাড়ি। সংগঠনের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, শুধুমাত্র করোনাভাইরাস আক্রান্ত রোগীর জন্য নয়। অন্যান্য রোগে আক্রান্ত এবং চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে কিংবা অন্য জায়গায় যারা যাবেন, তাদের জন্য বিশেষ সুবিধা দেওয়া হবে। ফোন করলেই মিলবে গাড়ি।

এই গাড়ির মাধ্যমে করোনাভাইরাস আক্রান্ত রোগী চিকিৎসা ক্ষেত্রে পৌঁছতে পারবেন। অ্যাম্বুলেন্স না থাকার কারণে চিকিৎসা করাতে যাতে সমস্যায় পড়তে না হয়, সে কারণেই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে সংগঠনের পক্ষ থেকে। একই সঙ্গে বিশেষ হেল্পলাইন নম্বর খোলা হয়েছে। এই নম্বরে যোগাযোগ করে গাড়ি পাওয়া যাবে বলে জানিয়েছে ওই সংগঠন। সিটুর বক্তব্য, মঙ্গলবার থেকে এই পরিষেবা শুরু করা হয়েছে। ধাপে ধাপে মানুষের চাহিদা মতো পরিষেবা আরও বৃদ্ধি করা হবে।

সংগঠনের কর্তারা জানিয়েছেন, চালকদের সুরক্ষার কথা মাথায় রেখে তাঁদেরকে পিপিই কিট দেওয়া হবে। একইসঙ্গে পিছনের আসন এবং চালকের আসনের মধ্যে পার্থক্য রাখার জন্য প্লাস্টিকে মুড়ে দেওয়ার পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে। তবে করোনাভাইরাস আক্রান্ত রোগীকে এই ধরনের গাড়িতে করে হাসপাতালে কিংবা অন্য জায়গায় পৌঁছে দেওয়ার ক্ষেত্রে সংক্রমণ ছড়াবার একটা আশঙ্কা থেকেই যায়। যদিও সংগঠনের কর্তারা বলছেন, নিয়মিত ব্যবধানে গাড়িতে জীবাণুনাশক স্প্রে করবেন তাঁরা।

 

Read Full Article

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla