BJP Leader Manas Saha Death: দলীয় প্রার্থীর মৃত্যুতে বিক্ষোভ, সুকান্ত-প্রিয়াঙ্কা-অর্জুনের বিরুদ্ধেই কালীঘাট থানায় মামলা দায়ের

BJP Leader Death Case: মুখ্যমন্ত্রীর কালীঘাটের বাড়ির সামনে তুলকালাম পরিস্থিতি তৈরি হয়। সেই ঘটনাতেই স্বতঃপ্রণোদিত মামলা রুজু করে পুলিশ।

BJP Leader Manas Saha Death: দলীয় প্রার্থীর মৃত্যুতে বিক্ষোভ, সুকান্ত-প্রিয়াঙ্কা-অর্জুনের বিরুদ্ধেই কালীঘাট থানায় মামলা দায়ের
বিজেপি প্রার্থী মানস সাহার মৃত্যুতে কালীঘাট থানায় মামলা (ফাইল ছবি)

কলকাতা: মগরাহাট পশ্চিম বিধানসভা কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী মানস সাহার মৃত্যুর প্রতিবাদে বিক্ষোভ। তার দেরে কালীঘাট থানায় বিজেপি রাজ্য সভারতি সুকান্ত মজুমদার, প্রিয়াঙ্কা টিবরেওয়াল, অর্জুন সিং- সহ দলের কয়েকজন নেতার বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করল পুলিশ। পথ অবরোধ ও পুলিশের কাজে বাধা দেওয়ায় স্বতঃপ্রণোদিত মামলা রুজু করেছে পুলিশ। ভারতীয় দণ্ডবিধির ১৪৩, ১৪৫, ১৪৭. ১৪৭, ২৮৩, ৩৫৩ ধারায় মামলা রুজু করা হয়েছে।

ভোট গণনার দিন আক্রান্ত হয়েছিলেন। তারপর থেকেই শারীরিক অসুস্থতা। ২২ সেপ্টেম্বর, বুধবার ঠাকুরপুকুরের বেসরকারি হাসপাতালে বেলা দশটা কুড়ি নাগাদ মৃত্যু হয় মগরাহাট পশ্চিম বিধানসভা কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী মানস সাহার। এরপরই ক্ষোভে ফেটে পড়েন বিজেপি কর্মী সমর্থকরা। প্রার্থীর মৃতদেহ নিয়ে গিয়ে বিক্ষোভ দেখান বিজেপি নেতা-কর্মীরা। পুলিসের সঙ্গে ধস্তাধস্তিও হয় তাঁদের।

শববাহী গাড়ি নিয়ে রাস্তায় বসে পড়ে অবস্থান বিক্ষোভ করার চেষ্টাও করেন বিজেপির নতুন রাজ্য সভাপতি সুকান্ত মজুমদার। ভবানীপুরের রাস্তায় মৃত বিজেপি নেতা মানস সাহার মরদেহ রেখে বিক্ষোভ দেখান বিজেপি নেতারা। পুলিশ তাঁকে টেনে তোলেন। মুখ্যমন্ত্রীর কালীঘাটের বাড়ির সামনে তুলকালাম পরিস্থিতি তৈরি হয়। সেই ঘটনাতেই স্বতঃপ্রণোদিত মামলা রুজু করে পুলিশ।

একুশের ভোট গণনার দিন আক্রান্ত হয়েছিলেন মগরাহাটের বিজেপি প্রার্থী মানস সাহা। তারপর থেকেই শুরু হয় শারীরিক অসুস্থতা। তার পর এদিন সকালে হাসপাতালে প্রাণ হারালেন বিজেপির মগরাহাট পশ্চিম কেন্দ্রের প্রার্থী মানস সাহা। বিজেপি নেতার মৃত্যুকে কেন্দ্র করে ফের একবার রাজ্যের বিরুদ্ধে ভোট পরবর্তী হিংসায় উস্কানি দেওয়ার অভিযোগে সরব হন সুকান্ত মজুমদাররা।

ঘটনায় বৃহস্পতিবার মুখ্যমন্ত্রীর বাড়ির সামনে প্রবল বিক্ষোভ দেখান বঙ্গ বিজেপি নেতারা। এদিন মৃতদেহ নিয়ে বিজেপি অফিস থেকে সোজা ভবানীপুরে চলে যান বালুরঘাটের সাংসদ তথা নবনিযুক্ত রাজ্য সভাপতি সুকান্ত মজুমদার, বিজেপি সাংসদ অর্জুন সিং, ভবানীপুর কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী প্রিয়াঙ্কা টিবরেওয়াল প্রমুখ।

এসপ্ল্যানেড ছাড়িয়ে ভবানীপুর হয়ে তাঁরা মুখ্যমন্ত্রীর বাড়ির সামনে মৃত বিজেপি নেতার দেহ নিয়ে উপস্থিত হন সুকান্ত মজুমদাররা। প্রবল বিক্ষোভে থমকে যায় রাস্তা। প্রবল যানজট শুরু হয়। ঘটনাস্থলে ছুটে যায় পুলিশ। পুলিশের সঙ্গে এক প্রস্থ ঝামেলা শুরু হয়। বেশ কিছুক্ষণ ধরে ঝামেলা চলার পর মৃতদেহ সরায় পুলিশ। এর পর মৃত বিজেপি নেতার দাহকার্যের জন্য ক্যাওড়াতলা রওনা দেন নেতারা।

এদিকে, এই ঘটনায়  বিজেপি প্রার্থীর মৃত্যুর তদন্তে তত্পর সিবিআই (CBI)। তথ্য সংগ্রহ করার কাজ শুরু করেছে সিবিআই। পুলিশের ভূমিকা কী ছিল? মামলা হয়েছিল কিনা? কেউ গ্রেফতার হয়েছিলেন কিনা, সে বিষয়ে খোঁজ শুরু হয়েছে। এই ঘটনায় মামলা করতে চান সিবিআই আধিকারিকরা।

আরও পড়ুন: Post Poll Violence: মগরাহাট পশ্চিমের বিজেপি প্রার্থীর রহস্যমৃত্যুর তথ্য তালাসে সিবিআই

Dilip Ghosh: ‘সাতে হাফপ্যান্ট, ৭০-এ লুঙ্গি পরে জলে ঘুরছেন সৌগত’, কলকাতার ‘জলছবি’ নিয়ে ব্যঙ্গ দিলীপের

 

Read Full Article

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla