Bratya Basu: ‘টেবিলে বসেই সলভ’! তৃণমূলে যোগ দেওয়ার পরই মইদুলদের সমস্যার সমাধান করলেন শিক্ষামন্ত্রী

Bratya Basu: কয়েকদিন আগেই তৃণমূলে যোগ দিয়েছেন শিক্ষক ঐক্য মঞ্চের নেতা মইদুল ইসলাম ও ৫ শিক্ষিকা। বৈঠকের পর শিক্ষামন্ত্রী বলেন, আজ আলোচনা করলাম। অনেকগুলো ইতিবাচক কথা হয়েছে।

Bratya Basu: 'টেবিলে বসেই সলভ'! তৃণমূলে যোগ দেওয়ার পরই মইদুলদের সমস্যার সমাধান করলেন শিক্ষামন্ত্রী
ব্রাত্য বসুর সঙ্গে বৈঠক করলেন শিক্ষক ঐক্য মঞ্চ নেতা মইদুল ইসলাম ও ৫ শিক্ষিকা

কলকাতা: রাজ্যে শিক্ষকদের আন্দোলন চলেছে অনেক দিন ধরেই। কখনও আদিগঙ্গায় নেমে বিক্ষোভ প্রদর্শন করা হয়েছে, কখনও আত্মহননের পথ বেছে নিয়ে বিষপান করেছেন শিক্ষিকারা। তাঁদের সমস্যার কথা শোনা হয়নি বলেই অভিযোগ ছিল প্রশাসনের বিরুদ্ধে। সেই শিক্ষক আন্দোলনের নেতা ও অন্যান্য় শিক্ষিকারা যোগ দিয়েছেন তৃণমূলে। আর যোগ দেওয়ার পরই শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসুর সঙ্গে আলোচনায় বসলেন তাঁরা। আজ বিকাশ ভবনে সেই আলোচনা শেষে  শিক্ষামন্ত্রী জানালেন, আলোচনার টেবিলেই এ দিন একাধিক সমস্যার সমাধান হয়েছে।

এ দিন আলোচনা শেষে শিক্ষামন্ত্রী সাংবাদিকদের বলেন, ‘গত রবিবার মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের অনুপ্রেরণায় এবং অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের উদ্যোগে তৃণমূলে যোগ দিয়েছেন শিক্ষক ঐক্য মঞ্চের নেতা মইদুল।’ তিনি জানান, অনেক দিন ধরেই তাঁর সঙ্গে কথাবার্তা বলার আগ্রহ প্রকাশ করেছিলেন এরা, আগেও আলোচনায় বসতে চেয়েছিলেন তিনি, তবে বিভিন্ন কারণবশত সময় হয়ে ওঠেনি। তিনি জানান, আজ ওই আলোচনায় অনেকগুলো ইতিবাচক কথা হয়েছে, যেগুলো সরকারের পক্ষ থেকে করা সম্ভব। তিনি জানান, ‘কিছু বিষয় টেবিলে বসেই সলভ হয়েছে।’

মূলত পুরসভার যে সব শিক্ষক-শিক্ষিকার ফাইলটা শিক্ষা দফতরে আটকে আছে সেটা উদ্যোগ নিয়ে তাড়াতাড়ি ঠিক করে দেওয়া হবে বলে আশ্বাস দিয়েছেন ব্রাত্য বসু। তিনি আরও জানান, কিছু পার্শ্বশিক্ষকদের বদলি নীতি কার্যকর করতে চলেছে সরকার। আগামি দিনে বাকি সব সমস্যাগুলির সমাধান করা হবে বলেও উল্লেখ করেছেন তিনি। ব্রাত্য বসু বলেন, যে সব শিক্ষক শিক্ষিকাদের বদলি হয়েছিল, তাঁরা বলেছেন তাদের কোর্ট কেস তুলে নেব। সে ক্ষেত্রে আলোচনা সাপেক্ষে আমরা সবই মিটিয়ে নেব।

এ দিন মইদুল বলেন, তৃণমূলের সঙ্গে থাকলে প্রতিবাদ করা যাবে না এমনটা নয়। আগামীদিনে কোনও শিক্ষকের সঙ্গে অন্যায় হলে তার প্রতিবাদ করা হবে বলেও জানান তিনি। তবে সরকারের উদ্যোগে তিনি খুশি। তাঁর কথায়, আমাদের এতদিনের লড়াইয়ের পর আমরা জয় পেয়েছি।

তৃণমূলে যোগ দেওয়ার পর শিক্ষাক নেতা বলেছিলেন,  ‘আমরা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের উপর আস্থা রেখেছি। আন্দোলনের মাধ্যমে যেমন আমাদের দাবি অনেকটা মিটেছে। একই ভাবেই আমরা চাই রাজ্য সরকারের জনমুখী কাজের সঙ্গী হয়েও শিক্ষক সমাজের স্বার্থ সংরক্ষিত করতে পারব।’

উল্লেখ্য মাস তিনেক আগে বিকাশ ভবনের সামনে বিষ খেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেছিলেন পাঁচ শিক্ষিকা। দক্ষিণবঙ্গ থেকে উত্তরবঙ্গে বদলি করে দেওয়ার অভিযোগ তুলে সেদিন সল্টলেকে বিক্ষোভ দেখায় শিক্ষক ঐক্য মুক্ত মঞ্চ। সেখানেই গলায় বিষ ঢালেন পাঁচজন। সেদিন এই ঘটনাকে বলা হয়েছিল বাংলার বুকে লজ্জা। শিক্ষিকারা বিষপান করতে বাধ্য হচ্ছেন এই সরকারের আমলে। এক শিক্ষিকা তো এই বিষপানের পর দীর্ঘদিন হাসপাতালে ভর্তিও ছিলেন। সম্প্রতি ছাড়া পান। এরই মধ্যে শাসকদলে যোগদান।

আরও পড়ুন: দেউচায় সিঙ্গুরের ছায়া? কয়লা প্রকল্পের বিরুদ্ধে ঢ্যাঁড়া পিটিয়ে জমায়েত আদিবাসী সংগঠনের

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla