Containment Zone in Kolkata: শহরে কনটেইনমেন্ট জোনের হাফ সেঞ্চুরি, সংখ্যায় কম বস্তি এলাকা

Containment Zone in Kolkata: শহরে কনটেইনমেন্ট জোনের হাফ সেঞ্চুরি, সংখ্যায় কম বস্তি এলাকা
কলকাতায় কনটেনমেন্ট জোন। ফাইল চিত্র।

Micro Containment Zone: কলকাতা পুরনিগম এলাকায় কনটেইনমেন্ট জোনের সংখ্যা বেড়ে ৫০ হয়েছে। ক্রমশ পুরসভার স্বাস্থ্য বিভাগে বাড়ছে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা। করোনা পরিস্থিতিতে নাগরিক পরিষেবা স্বাভাবিক রাখা নিয়ে চিন্তায় পুরকর্তারা।

TV9 Bangla Digital

| Edited By: Soumya Saha

Jan 07, 2022 | 6:29 PM

কলকাতা: কলকাতায় আরও বাড়ল কনটেইনমেন্ট জোনের (Containment Zone in Kolkata) সংখ্যা। কলকাতা পুরনিগম (Kolkata Municipal Corporation) এলাকায় কনটেইনমেন্ট জোনের সংখ্যা বেড়ে ৫০ হয়েছে। ক্রমশ পুরসভার স্বাস্থ্য বিভাগে বাড়ছে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা। করোনা পরিস্থিতিতে নাগরিক পরিষেবা স্বাভাবিক রাখা নিয়ে চিন্তায় পুরকর্তারা।

আক্রান্ত একাধিক পুরকর্মী, কোনওরকমে চলছে পরিষেবা

পরিস্থিতি নিয়ে যথেষ্ট উদ্বিগ্ন অতীন ঘোষ (Atin Ghosh)। স্বাস্থ্য বিভাগের অনেকেই আক্রান্ত হওয়ার ফলে, এই মুহূর্তে কোনও বিকল্প পরিকল্পনা করা যাচ্ছে না। কোনওরকমে পরিস্থিতি সামাল দিতে হচ্ছে। তবে করোনা পরীক্ষা বা টিকা দেওয়ার প্রক্রিয়া এই পরিস্থিতির মধ্যেও চালু রাখা হচ্ছে। পুরকর্মীদের আক্রান্ত হওয়ার সাত দিন পর ফের করোনা পরীক্ষা করিয়ে রিপোর্ট নেগেটিভ এলে কাজে যোগ দিতে বলা হয়েছে। উল্লেখ্য, স্বাস্থ্য বিভাগের সিএমওএইচ এবং ডেপুটি সিএমওএইচ উভয়েই বর্তমানে বাড়িতে আইসোলেশনে রয়েছেন।

কনটেইনমেন্ট জোন বেড়ে ৫০

এদিকে করোনার সংক্রমণ বাড়তে থাকায় সেই সঙ্গে পাল্লা দিয়ে কনটেইনমেন্ট জোনের সংখ্যাও বাড়ানো হচ্ছে। কলকাতা পুরনিগম এলাকায় বর্তমানে কনটেইনমেন্ট জোনের সংখ্যা রয়েছে ৫০ টি। সপ্তাহের শুরুতেও এই কোভিড কনটেইনমেন্ট জোনের সংখ্যা ছিল ২৫। তারপর এক লাফে বেড়ে তা ৪৮ হয়েছিল বৃহস্পতিবার। এবার তা হাফ সেঞ্চুরি পার করে গেল।

বস্তি এলাকায় কনটেইনমেন্ট জোনের সংখ্যা কম

উল্লেখ্য, বর্তমানে যে কনটেনমেন্ট জ়োনগুলির কথা বলা হচ্ছে, সেগুলি মাইক্রো কনটেনমেন্ট জোন। পরিবর্তিত পরিস্থিতিতে রাজ্যে কনটেইনমেন্ট জ়োনের সংজ্ঞা বদলেছে। আগে যেখানে একটি বড় এলাকা বা একটি গোটা পাড়াকে কনটেনমেন্ট জ়োন হিসেবে ঘোষণা করে এলাকার প্রবেশপথ বাঁশ, পুলিশের ব্যারিকেড দিয়ে আটকে দেওয়া হত, এখন পরিস্থিতি তেমন নয়। বর্তমানে ছোট ছোট এলাকা চিহ্নিত করে মাইক্রো কনটেনমেন্ট জ়োন ঘোষণার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এ ক্ষেত্রে এক একটি মাইক্রো কনটেনমেন্ট জ়োনের মধ্যে একটি বহুতল ফ্ল্যাট বা একটি একক বাড়িও হতে পারে। সোমবার সাংবাদিক বৈঠকে এমনটাই জানিয়েছেন মেয়র ফিরহাদ হাকিম।

যে এলাকাগুলিকে চিহ্নিত করা হয়েছে, তার মধ্যে ফ্ল্যাট এবং কমপ্লেক্স এলাকার সংখ্যাই বেশি। বস্তি এলাকায় কনটেনমেন্ট জ়োনের সংখ্যা তুলনামূলকভাবে অনেকটাই কম। সংক্রমণের হারও বস্তি এলাকাগুলিতে অনেকটাই বেশি। এর পাশাপাশি কলকাতার সীমিত কিছু এলাকায় বিশেষ নজরদারিও চালাবে পুর প্রশাসন। সোমবার কলকাতা পুরনিগম যে ২৫ টি কনটেনমেন্ট জ়োনের কথা ঘোষণা করেছিল, তার মধ্যে বস্তি এলাকা রয়েছে চারটি আর বহুতল রয়েছে নয়টি। এছাড়াও পাঁচটি, পাঁচটি মিক্সড এরিয়া এবং চারটি হস্টেল আছে।

আরও পড়ুন : Kolkata Municipal Corporation : তৃণমূল কাউন্সিলরকে হাত তুলে সমর্থন, বরো চেয়ারম্যান নির্বাচনে সৌজন্যের নজির বাম কাউন্সিলরের

আরও পড়ুন : Bidhannagar Municipal Election: বিধাননগরে বিজেপি প্রার্থীকে প্রচারে বাধা, কর্মী-সমর্থকদের মারধরের অভিযোগ

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 BANGLA