D.El.Ed Question Leak: প্রশ্নপত্র ‘ফাঁস’ হতেই কড়া পর্ষদ, বেঁধে দিল সেন্টার ইনচার্জদের হাতে প্রশ্ন দেওয়ার সময়

TV9 Bangla Digital

TV9 Bangla Digital | Edited By: Soumya Saha

Updated on: Nov 28, 2022 | 11:32 PM

Primary Education Board: ২৯ ও ৩০ নভেম্বর ডিএলএড পার্ট টু-এর বাকি পরীক্ষাগুলি রয়েছে। ওই দিনগুলিতে যাতে কোনওভাবেই ১১টা ১৫ মিনিটের আগে সিলবন্ধ প্রশ্নপত্র সেন্টার ইনচার্জদের হাতে না যায়, তা নিশ্চিত করতে হবে বলে নির্দেশ দিয়েছে পর্ষদ।

D.El.Ed Question Leak: প্রশ্নপত্র 'ফাঁস' হতেই কড়া পর্ষদ, বেঁধে দিল সেন্টার ইনচার্জদের হাতে প্রশ্ন দেওয়ার সময়
প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদ

কলকাতা: ডিএলএড পরীক্ষার প্রশ্নপত্র (D.El.Ed Question Leak) ফাঁসের অভিযোগ প্রকাশ্যে আসতেই এবার কড়া পদক্ষেপ করছে প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদ (Primary Education Board)। পর্ষদের থেকে কড়া বার্তা দেওয়া হয়েছে, ১১টা ১৫মিনিটের আগে প্রশ্নপত্র হাতে পাবেন না সেন্টার ইনচার্জরা। কোনও অনিয়ম করা চলবে না বলে সাফ বার্তা দিয়েছে প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদ। কোথাও কোনও অনিয়ম ধরা পড়লেই কড়া ব্যবস্থা নেওয়ার কথাও বলা হয়েছে পর্ষদের তরফে। সোমবার বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে এই কথা জানানো হয়েছে। ২৯ ও ৩০ নভেম্বর ডিএলএড পার্ট টু-এর বাকি পরীক্ষাগুলি রয়েছে। ওই দিনগুলিতে যাতে কোনওভাবেই ১১টা ১৫ মিনিটের আগে সিলবন্ধ প্রশ্নপত্র সেন্টার ইনচার্জদের হাতে না যায়, তা নিশ্চিত করতে হবে।

উল্লেখ্য, সোমবার সকালে ডিএলএড পরীক্ষার শুরুতেই হোঁচট খেতে হয় প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদকে। সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়ে ডিএলএড পরীক্ষার প্রশ্নপত্র। আর এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে শোরগোল পড়ে যায় গোটা রাজ্যে। পরিস্থিতি সামাল দিতে সাংবাদিক বৈঠক ডাকতে বাধ্য হন পর্ষদ সভাপতি গৌতম পাল। তিনি অবশ্য এটিকে প্রশ্নপত্র ফাঁস না বলে, বিশ্বাসঘাতকতা বলেই ব্যাখ্যা দিচ্ছেন। পর্ষদ সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণের প্রথম দিন থেকেই গৌতম পাল বলে আসছেন স্বচ্ছতার কথা।

সাংবাদিক বৈঠকে পর্ষদ সভাপতি সোমবার দাবি করেন, কেউ বা কারা পর্ষদ তথা রাজ্য সরকারের ভাবমূর্তি নষ্ট করার জন্যই এমনটা করেছেন। পরীক্ষাকেন্দ্রগুলিতে পরীক্ষার সঙ্গে যুক্ত ব্যক্তিরা যদি এমন কোনও বিশ্বাসঘাতকতার কাজ করে থাকেন, তাহলে তাতে পর্ষদের কিছু করার নেই। তবে তিনি এও বলেছেন এই ঘটনায় প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ করবে কমিটি। পরীক্ষা শেষ হলে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হবে বলেও জানিয়েছেন তিনি এবং সেই সঙ্গে নির্দিষ্ট অভিযোগের ভিত্তিতে পর্ষদ প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেবে।

এমন এক অস্বস্তিকর পরিস্থিতির মধ্যেই এবার বাকি পরীক্ষাগুলির জন্য আরও কড়াকড়ি করছে প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদ। এই সংক্রান্ত বিষয়ে ইতিমধ্যেই একটি বিজ্ঞপ্তিও প্রকাশ করা হয়েছে পর্ষদের তরফে।

Latest News Updates

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla