Bhawanipore By-Election: আগামী সপ্তাহে ‘ব্যাক টু ব্যাক’ প্রচার সভা মমতার, আজ থেকেই ময়দানে অভিষেক

Bhabanipur By-Election: অন্যদিকে বিজেপিও পুরোদমে প্রচার করছে পদ্ম প্রার্থী প্রিয়াঙ্কা টিবরেওয়ালের সমর্থনে।

Bhawanipore By-Election: আগামী সপ্তাহে 'ব্যাক টু ব্যাক' প্রচার সভা মমতার, আজ থেকেই ময়দানে অভিষেক
২৮ অক্টোবর গোয়ায় যাচ্ছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ফাইল চিত্র।

কলকাতা: ঘরের মাঠেও নজিরবিহীন প্রচার পরিকল্পনা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের (CM Mamata Banerjee)। রাজপথ থেকে পাড়ার মোড়। চুটিয়ে সভা করতে চলেছেন তৃণমূল প্রার্থী। ভবানীপুর জয়ের (Bhabanipur By-Election) ভার নিজের কাঁধেই রাখছেন শাসক দলের কাণ্ডারী। সে কারণেই ২১ সেপ্টেম্বর থেকে ম্যারাথন প্রচার চালাবেন ভবানীপুর কেন্দ্রে (Bhawanipore By-Election)। শুধু মমতা একাই নন, তাঁর হয়ে এবার প্রচারে নামছেন তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ও। শনিবারই তাঁর সেই প্রচার কর্মসূচি রয়েছে।

একুশের সাধারণ নির্বাচনের পর ফের হাই ভোল্টেজ উপনির্বাচন। রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী স্বয়ং লড়ছেন এই ভোটে। উপনির্বাচনের ফলাফলের উপরই নির্ভর করছে বাংলায় মুখ্যমন্ত্রীর কুর্সিতে আগামী পাঁচ বছর কে থাকবেন। ইতিমধ্যেই জোর কদমে উপনির্বাচনের প্রচার শুরু করে দিয়েছে তৃণমূল। নিয়মিত প্রচারে নামছেন কলকাতার পুর প্রশাসক ফিরহাদ হাকিম। সুব্রত মুখোপাধ্যায়, কার্তিক বন্দ্যোপাধ্যায়, দেবাশিস কুমাররাও নিয়মিত ময়দানে। ভবানীপুরে ‘ঘরের মেয়ে’কে জেতাতে কোনও খামতি রাখছে না দল।

তবে দলের বাকি সদস্যরা প্রচার করলেও নিজের দায়িত্ব পুরোপুরি অন্যের কাঁধে ছাড়তে রাজি নন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আগামী সপ্তাহে টানা সভা করবেন তিনি। ২১ সেপ্টেম্বর একবালপুরের ইব্রাহিম রোডে সভা রয়েছে তাঁর। ২২ সেপ্টেম্বর চেতলার অহিন্দ্র মঞ্চে প্রচার সভা করবেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ২৩ সেপ্টেম্বর থাকবেন চক্রবেড়িয়া উত্তর ও পদ্মপুকুর রোডের সংযোগস্থলের সভামঞ্চে। ২৫ সেপ্টেম্বর দু’টি সভা রয়েছে তাঁর। একটি কলিন লেনে। দ্বিতীয়টি শেক্সপিয়র সরণী থানার সামনে। পরদিন ২৬ সেপ্টেম্বর নিজের পাড়া হরিশ চ্যাটার্জি স্ট্রিটের মুখে একটি সভা করবেন মমতা। এটিই সম্ভাব্য উপনির্বাচনের শেষ প্রচার সভা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের।

অন্যদিকে শনিবার থেকেই দলনেত্রীর হয়ে প্রচার শুরু করছেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। কলকাতা পুরসভার ৬৯ নম্বর ওয়ার্ডে সভা রয়েছে তাঁর। উল্লেখযোগ্য ভাবে, এই ওয়ার্ড ভবানীপুর বিধানসভা কেন্দ্রের আওতাধীন নয়। এটি বালিগঞ্জ বিধানসভা কেন্দ্রের মধ্যে পড়ে। অর্থাৎ এই কেন্দ্রের বিধায়ক সুব্রত মুখোপাধ্যায়। তবে এই ওয়ার্ডটি একেবারে ভবানীপুরের লাগোয়া। কেন এমন সিদ্ধান্ত নিলেন অভিষেক? তৃণমূল সূত্রে খবর, কোভিড বিধিকে মান্যতা দিতেই এই সিদ্ধান্ত তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদকের। সূত্রের দাবি, অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের সভায় ভিড়ের সম্ভাবনা রয়েছে। ভোটের মুখে নতুন করে কোনও বিতর্ক হোক তৃণমূল তা চাইছে না।

অন্যদিকে বিজেপিও পুরোদমে প্রচার করছে পদ্ম প্রার্থী প্রিয়াঙ্কা টিবরেওয়ালের সমর্থনে। বৃষ্টিকে মাথায় নিয়েই শনিবার সকাল থেকে বাড়ি বাড়ি ঘুরে প্রচার করলেন ভবানীপুরের বিজেপি প্রার্থী। ৮২ নম্বর ওয়ার্ড থেকে প্রচার শুরু করেন তিনি। বিকেলে ৭৭ নম্বর ওয়ার্ডে তাঁর কর্মিসভা রয়েছে। বিকেলে হনুমান মন্দিরেও জনসংযোগে যাবেন তিনি।

ভবানীপুরে উপনির্বাচনের জন্য বিজেপি যে তারকা প্রচারকদের তালিকা প্রকাশ করেছে সেখানে রয়েছেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী হরদীপ সিং পুরি ও সাংসদ মনোজ তিওয়ারির নাম। বিজেপি সূত্রে জানা যাচ্ছে, আগামী ২২ সেপ্টেম্বর ও ২৩ সেপ্টেম্বর ভবানীপুরে প্রচারে নামবেন হরদীপ সিং। বাড়ি বাড়ি ঘুরে প্রচার চালাবেন তিনি। অন্যদিকে ২২ সেপ্টেম্বর থেকে ২৭ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ভবানীপুরে প্রচার করবেন দিল্লির সাংসদ মনোজ তিওয়ারি। আটদিনে আটটি ওয়ার্ডেই প্রচার করবেন মনোজ।

আরও পড়ুন: West Bengal Police: যোগী রাজ্যে বাংলার পুলিশকে হেনস্থার অভিযোগ, সংবাদসংস্থার টুইটে শুরু রাজনৈতিক তরজা

Read Full Article

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla