Left Wing Extremism Section: মাওবাদী এখনও ‘সমস্যা’, মেনে নিল পুলিশ ! এসটিএফে চালু ‘মাওবাদী দমন শাখা’

Bengal STF: রাজ্য পুলিশের এসটিএফের এডিজির লেখা বিজ্ঞপ্তিতে লেখা হয়েছে মাওবাদী 'সমস্যার' মোকাবিলা করার জন্য নতুন এই শাখা খোলা হচ্ছে। অর্থাৎ পুলিশ মেনেই নিচ্ছে মাওবাদী নিয়ে উদ্বেগের কথা।

Left Wing Extremism Section: মাওবাদী এখনও 'সমস্যা', মেনে নিল পুলিশ ! এসটিএফে চালু 'মাওবাদী দমন শাখা'
TV9 Bangla Digital

| Edited By: Soumya Saha

May 28, 2022 | 11:07 PM

সু জ য় পা ল

কলকাতা পুলিশের এসটিএফের পর এবার রাজ্য পুলিশের এসটিএফ-এও খোলা হল মাওবাদী দমন শাখা। সম্প্রতি রাজ্য পুলিশের এসটিএফের এডিজি একটি বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে জানিয়েছেন যে বেঙ্গল এসটিএফেও চালু করা হচ্ছে লেফ্ট উইং এক্সট্রিমিজ়ম সেকশন (Left wing extremism section) বা মাওবাদী দমন শাখা। একজন ওসির নেতৃত্বে এই শাখা চালু করা হয়েছে। সূত্রের খবর, জঙ্গলমহলে এলাকায় বেশ কিছুদিনের কাজের অভিজ্ঞতা সম্পন্ন একজন সাব ইন্সপেক্টর নতুন এই শাখার দায়িত্ব সামলাচ্ছেন। তবে পূর্ণাঙ্গ শাখা হতে গেলে যে পরিমাণ লোকবল প্রয়োজন, তা এখনও নেই এই মাওবাদী দমন শাখায়।

বেশ কিছুদিন ধরেই জঙ্গলমহল এলাকায় মাওবাদী গতিবিধি বাড়ছে বলে দাবি করা হচ্ছে বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থার রিপোর্টে। এমনকী সম্প্রতি শাসকদলের দুর্নীতির প্রতিবাদে মাওবাদীদের ডাকা বনধে জঙ্গলমহলের বেশ কিছু অংশে ভাল সাড়া পড়েছিল। তবুও রাজ্য সরকার বারবার দাবি করেছে মাওবাদী বলে কিছু এ রাজ্যে নেই।

Bengal STF

রাজ্য পুলিশের এসটিএফের এডিজির লেখা বিজ্ঞপ্তিতে লেখা হয়েছে মাওবাদী ‘সমস্যার’ মোকাবিলা করার জন্য নতুন এই শাখা খোলা হচ্ছে।

রাজ্য় এই দাবি করলেও, রাজ্য পুলিশের এসটিএফের এডিজির লেখা বিজ্ঞপ্তিতে লেখা হয়েছে মাওবাদী ‘সমস্যার’ মোকাবিলা করার জন্য নতুন এই শাখা খোলা হচ্ছে। অর্থাৎ পুলিশ মেনেই নিচ্ছে মাওবাদী নিয়ে উদ্বেগের কথা। বেঙ্গল এসটিএফের মাওবাদী দমন শাখার নেতৃত্বে একজন ওসি থাকলেও নতুন এই শাখার কাজকর্ম তত্ত্বাবধানে রয়েছেন এসটিএফের ডিএসপি (অপারেশনস) ও অ্যাডিশনাল এসপি (অপারেশনস)। ইতিমধ্যেই জোরকদমে কাজ শুরু করেছে এই মাও দমন শাখা। জঙ্গলমহল এলাকার প্রত্যেকটি থানার সঙ্গে নিয়মিত যোগাযোগ রেখে কাজ শুরু হয়েছে। জঙ্গলমহল ছাড়াও নদিয়া জেলায় বাড়তি নজরদারি রাখা হচ্ছে। কারণ সম্প্রতি ওই জেলায় কিছু গতিবিধির বিষয়ে খবর এসেছিল গোয়েন্দাদের কাছে।

বেঙ্গল এসটিইএফের এক কর্তা বলেন, “রাজ্যের সর্বত্রই প্রথম থেকে আমাদের নজর আছে। নির্দিষ্ট শাখা চালু হওয়ায় কাজের আরও সুবিধা হবে।” এতদিন রাজ্যে শুধুমাত্র কলকাতা পুলিশের এসটিএফের হাতেই নির্দিষ্ট মাওবাদী দমন শাখা ছিল। তারা কলকাতা ও সংলগ্ন এলাকায় মাও গতিবিধির উপরে নজর রাখত। রাজ্যের ক্ষেত্রে স্টেট ও জেলার ইন্টেলিজেন্স ব্রাঞ্চ ও সিআইডি’র তরফেও মাও গতিবিধির উপরে নজর রাখা হত। তবে সম্প্রতি জঙ্গলমহলে মাওবাদীদের আনাগোনা বেড়ে যাওয়ার জন্যই বেঙ্গল এসটিএফেও তড়িঘড়ি তৈরি হল মাওবাদী দমন শাখা, এমনই মনে করছে পুলিশ মহলের একাংশ। তাই ওই শাখা পুরো দমে চালানোর জন্য যে পরিমাণ লোকবল প্রয়োজন তা না থাকা সত্ত্বেও চালু হল বেঙ্গল এসটিএফের মাওবাদী দমন শাখা।

Latest News Updates

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla