Bhatpara: অশান্তির ভাটপাড়া, পুজোর ভাসানেও চলল গুলি! জখম ২

Crime News: অশান্তি আর ভাটপাড়া যেন সমার্থক হয়ে উঠেছে। কয়েকদিন পর পর গোলাগুলি, বোমাবাজি থেকে খুনোখুনি লেগেই রয়েছে উত্তর ২৪ পরগনার ভাটপাড়ায়।

Bhatpara: অশান্তির ভাটপাড়া, পুজোর ভাসানেও চলল গুলি! জখম ২
ফের গোলাগুলি ভাটপাড়ায়! প্রতীকী চিত্র

ভাটপাড়া: অশান্তি আর ভাটপাড়া যেন সমার্থক হয়ে উঠেছে। কয়েকদিন পর পর গোলাগুলি, বোমাবাজি থেকে খুনোখুনি লেগেই রয়েছে উত্তর ২৪ পরগনার ভাটপাড়ায়। এবার দুর্গাপুজোর ভাসান ঘিরে রণক্ষেত্র হয়ে উঠল এলাকা। চলল এলোপাথাড়ি গুলি। আহত হলেন ২ ব্যক্তি। সোমবার রাতে এই ঘটনায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে এলাকায়।

সোমবারের রাত। হঠাৎই শুরু হল অশান্তি। দুই রাউন্ড গুলি ছুড়লো দুষ্কৃতীরা। দুর্গাপুজোর ভাসানে নাচানাচি নিয়ে ব্য়াপক ঝামেলায় এই গোলাগুলি বলে খবর। জানা গিয়েছে, প্রতিশোধের খেলায় দুই পক্ষের এই ঝামেলায় আহত হয়েছেন ২ জন।

এদিনের ঘটনাস্থল ভাটপাড়া থানার নমাদ্রাল নেতাজি মোড়। হামলায় জখম হয়েছেন স্থানীয় দুই যুবক। স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, এদিন নেতাজি মোড়ে একটি ফাস্ট ফুডের দোকানে চাউমিন খাচ্ছিলেন রাজা দাস ও নারায়ণ সরকার নামে দুই যুবক। সে সময় আচমকাই বাইকে চেপে ১৭-১৮ জনের একটি দল সেখানে হাজির হয়। বিনা প্ররোচনাতেও ওই দুই যুবকের ওপর হামলা চালানো হয় বলে অভিযোগ। শুধু এলোপাথাড়ি গোলাগুলিই নয়। পিস্তলের বাঁট দিয়ে রাজা ও নারায়ণের মাথা ফাটিয়ে দেওয়া বলে অভিয়োগ।

এর পরে শূন্যে দুই রাউন্ড গুলি ছুড়ে ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যায় দুষ্কৃতীরা। যদিও আক্রান্তদের দাবি, তাঁরা এই আক্রমণকারীদের কাউকেই নাকি চেনে না। কী কারণে তাঁদের ওপর আক্রমণ সেটাও তাঁরা জানেন না। যদিও এলাকার বাসিন্দাদের অভিযোগ, দুর্গাপুজোর বিসর্জনের দিন প্যান্ডেলে নাচানাচি নিয়ে একটা গন্ডগোল হয়েছিল দুই পক্ষের। এদিন রাতে তার প্রতিশোধ নিতে এই আক্রমণ হামলাকারীদের। জানা গিয়েছে, দুই আহতের প্রাথমিক চিকিৎসা হয়েছে। আপাতত তাদের শারীরিক পরিস্থিতি স্থিতিশীল বলেই জানা গিয়েছে। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। তবে এদিনের হামলার ঘটনার সঙ্গে কোনও রাজনৈতিক যোগ বলেই খবর।

আরও পড়ুন: সাংসদের বাড়িতে বোমাবাজির রাতেই ফের উত্তপ্ত ভাটপাড়া! পিস্তলে বাঁটের মার, বোমায় জখম ২ 

উল্লেখ্য, রাজনৈতিক হিংসা কিংবা দুষ্কৃতী তাণ্ডব বারবার উত্তপ্ত হচ্ছে ভাটপাড়া। দিন দশেক আগে এক মঙ্গলবার সকালে আচমকাই অর্জুন সিংয়ের বাড়ির পিছনে বোমা ছুড়ে মারার ঘটনা ঘটে। সেখানেও উপলক্ষ ছিল দুর্গাপুজো। তার আগে সাংসদের বাড়ির সামনে বোমাবাজির ঘটনায় চরমে ওঠে রাজনৈতিক চাপানউতোর। গত ৮ সেপ্টেম্বরের বিজেপি সাংসদ অর্জুন সিংয়ের এলাকায় বোমাবাজির পর সেখানে নতুন করে আরও ২০টা সিসিটিভি ক্যামেরা বসানো হয়। বাড়ানো হয় পুলিশ পিকেট। সঙ্গে তো সিআইএসএফ জওয়ানদের প্রহরাও রয়েছে। তার মাঝেও বারেবারে এসব দুষ্কৃতী কার্যকলাপ কীভাবে হচ্ছে তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন স্থানীয়রা। বারবার সামান্য সব কারণে বোমা ও গুলিবাজির ঘটনাও বেশ চিন্তার। উঠছে পুলিশের ভূমিকা নিয়েও প্রশ্ন।

আরও পড়ুন: Post Poll Violence: ফের কাঁকুড়গাছিতে অভিজিত্‍-হত্যা মামলায় তল্লাশি সিবিআইয়ের, পলাতক ৪ অভিযুক্ত

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla