‘বিরাটের ২-৩ মাসের বিরতি নেওয়া প্রয়োজন’ বলছেন রবি শাস্ত্রী

'বিরাটের ২-৩ মাসের বিরতি নেওয়া প্রয়োজন' বলছেন রবি শাস্ত্রী
'বিরাটের ২-৩ মাসের বিরতি নেওয়া প্রয়োজন' বলছেন রবি শাস্ত্রী (Pic Courtesy - Twitter)

Ravi Shastri on Virat Kohli: পাকিস্তানের প্রাক্তন ক্রিকেটার শোয়েব আখতারের (Shoaib Akhtar) ইউটিউব চ্যানেলে রবি শাস্ত্রী জানান, ক্রিকেট থেকে ছোট্ট একটা বিরতি, বিরাটকে ব্যাট হাতে ফের আগের মেজাজে ফেরার রসদ দিতে পারে।

TV9 Bangla Digital

| Edited By: Sanghamitra Chakraborty

Jan 27, 2022 | 11:00 AM

মাসকাট: ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড (BCCI) বনাম বিরাট কোহলি (Virat Kohli) ইস্যুতে এখনও উত্তপ্ত রয়েছে। এই আবহেই প্রোটিয়া সফর শেষ করে দেশে ফিরেছেন ভারতীয় ক্রিকেটাররা। ফেব্রুয়ারিতে ঘরের মাঠে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে রয়েছে ওয়ান ডে ও টি-২০ সিরিজ। তার আগে ভারতের প্রাক্তন হেড কোচ রবি শাস্ত্রী (Ravi Shastri) বলছেন, কোহলির এখন ২-৩ মাসের জন্য ক্রিকেট থেকে বিরতি নেওয়া প্রয়োজন। তা হলে আবার আগের মতো চনমনে বিরাটকে ২২ গজে পাওয়া যাবে।

পাকিস্তানের প্রাক্তন ক্রিকেটার শোয়েব আখতারের (Shoaib Akhtar) ইউটিউব চ্যানেলে রবি শাস্ত্রী জানান, ক্রিকেট থেকে ছোট্ট একটা বিরতি, বিরাটকে ব্যাট হাতে ফের আগের মেজাজে ফেরার রসদ দিতে পারে। শোয়েবের ইউটিউব চ্যানেলে শাস্ত্রী বলেন, “ও (বিরাট) বুঝতে পারে ওর বয়স এখন ৩৩, ওর সামনে এখনও ৫ বছর ভালো ক্রিকেট খেলার সুযোগ রয়েছে। যদি ও শান্ত হয়ে নিজের ব্যাটিংয়ে ফোকাস করতে পারে, এবং একটা একটা ম্যাচে মনোনিবেশ করে তা হলে ও অনেক কিছু করতে পারবে। তবে আমি মনে করি ওর ২-৩ মাসের বিরতি নেওয়া উচিত। ও যদি একটা সিরিজ থেকে বিরতি নেয়, সেটা ওর জন্যই ভালো হবে।”

বিরতি নিয়ে বিরাট রাজার মতো ফিরবেন। আশাবাদী শাস্ত্রী। তিনি আরও বলেন, “বিশ্রাম নেওয়ার পর ও মানসিকভাবে তরতাজা থাকবে এবং আগামী ৩-৪ বছর রাজার মতো খেলবে। ওর চিন্তাভাবনা আরও পরিষ্কার হবে এবং ও জানে দলের একজন প্লেয়ার হিসেবে ওর ভূমিকাটা কী হতে চলেছে। আমি চাই একজন প্লেয়ার হিসেবে বিরাট ভারতের হয়ে ম্যাচ জিতুক।”

তিন ফর্ম্যাটের ক্যাপ্টেন্সি ছেড়ে চাপমুক্ত হয়েছেন বিরাট। এমনটাই বলছে ক্রিকেটমহল। চাপ বাড়তে শুরু করায়, বিরাট শুধু ব্যাটিংয়ে ফোকাস করার জন্য ক্যাপ্টেন্সি ছেড়ে দিলেন। এমনই বলছেন তাঁর গুরু শাস্ত্রী। তবে শাস্ত্রী এও বলছেন, এই প্রথম নয়। আগেও তিনি এমনটা হতে দেখেছেন, তিনি বলেন, “চাপ বাড়তে শুরু করেছে। লোকেরা এই সুযোগটাই খুঁজছিল। কোনও মানুষই নিখুঁত নয়। আমি দেখেছি যে সেরা ক্রিকেটাররাও অধিনায়কত্ব ছেড়ে তাদের ক্রিকেটে মনোযোগ দিতে চেয়েছিলেন। তা গাভাসকর হোক বা তেন্ডুলকর বা এমএস।”

এখন দেখার এটাই, ভারতীয় ক্রিকেটে যা পরিস্থিতি চলছে তাতে সত্যি গুরু শাস্ত্রীর দেওয়া পরামর্শ মেনে নেন কিনা বিরাট।

আরও পড়ুন: ধোনির মতো ধারালো মস্তিষ্ক আর দেখিনি, বলছেন গ্রেগ চ্যাপেল

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 BANGLA