ধোনির মতো ধারালো মস্তিষ্ক আর দেখিনি, বলছেন গ্রেগ চ্যাপেল

ধোনির মতো ধারালো মস্তিষ্ক আর দেখিনি, বলছেন গ্রেগ চ্যাপেল
ধোনির মতো ধারালো মস্তিষ্ক আর দেখিনি, বলছেন গ্রেগ চ্যাপেল (Pic Courtesy - Twitter)

ধোনি যখন বেড়ে উঠছিলেন, তখন ভারতীয় টিমের কোচ ছিলেন চ্যাপেলই (Greg Chappell)। তাঁর তারুণ্যের তত্ত্বই ভারতীয় ক্রিকেটকে সাহসী করেছিল। বিতর্কে ফালাফালাও। সেই গুরু গ্রেগ এ বার ধোনি-মুগ্ধতা প্রকাশে কুন্ঠা প্রকাশ করছেন না।

TV9 Bangla Digital

| Edited By: Sanghamitra Chakraborty

Jan 26, 2022 | 7:31 PM

নয়াদিল্লি: মহেন্দ্র সিং ধোনি (MS Dhoni) তাঁর দেখা অন্যতম ধারালো ক্রিকেট (Cricket) মস্তিষ্ক। দ্রুত সিদ্ধান্ত নিতে পারার ক্ষমতাই ক্যাপ্টেন হিসেবে তাঁর সাফল্যের অন্যতম কারণ। সারা বিশ্বের মতো গ্রেগ চ্যাপেলেরও মত তা-ই। ধোনি যখন বেড়ে উঠছিলেন, তখন ভারতীয় টিমের কোচ ছিলেন চ্যাপেলই (Greg Chappell)। তাঁর তারুণ্যের তত্ত্বই ভারতীয় ক্রিকেটকে সাহসী করেছিল। বিতর্কে ফালাফালাও। সেই গুরু গ্রেগ এ বার ধোনি-মুগ্ধতা প্রকাশে কুন্ঠা প্রকাশ করছেন না।

২০০৫ থেকে ২০০৭ সাল— দু’বছর ভারতের কোচ ছিলেন তিনি। সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের হাত ধরে ভারতীয় ক্রিকেটে পা দিলেও তাঁকেই ছেঁটে ফেলার জঘন্য চক্রান্ত করেছিলেন। গ্রেগের কোচিংয়েই ধোনি জমানা শুরু হয়েছিল। তাঁর নেতৃত্বেই ২০০৭ সাল ও ২০১১ সালে টি-টোয়েন্টি ও ওয়ান ডে বিশ্বকাপ জিতেছিল ভারত। সেই ধোনিকে চ্যাপেল বলছেন, ‘ভারতে আমার কোচিংয়ে যারা খেলেছিল, ধোনি তাদের অন্যতম। একজন ব্যাটারকে তার প্রতিভা কতটা শানাতে হয়, নিজস্ব স্টাইল তৈরির জন্য কতটা শিখতে হয়, ধোনি তার সঠিক উদাহরণ। কেরিয়ারের শুরুর দিকে বিভিন্ন ধরনের মাঠে ওর থেকে অনেক বেশি অভিজ্ঞ প্লেয়ারদের সামলানোটাই ওকে তৈরি করে দিয়েছিল। দ্রুত সিদ্ধান্ত নেওয়ার ক্ষমতা, স্ট্র্যাটেজি স্কিল ওকে একটা জায়গায় পৌঁছে দিয়েছিল। আমার দেখা অন্যতম ধারালো ক্রিকেট মস্তিষ্ক ধোনি।’

অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেটে নতুন তারকা উঠে আসছে না। দক্ষিণ আফ্রিকা, ইংল্যান্ড এমনকি নিউজিল্যান্ডেও সেই প্রতিভার ঢল নেই। তার পিছনে একটা বড় কারণই হল স্বাভাবিক পরিবেশ হারিয়ে ফেলা। গ্রেগ যা নিয়ে বলছেনও, ‘উন্নত দেশগুলো খেলার স্বাভাবিক পরিবেশটাই হারিয়ে ফেলেছে। যে কারণে যুব উন্নয়ন তেমন ভাবে সাফল্য পাচ্ছে না। এইরকম পরিবেশে তারকা ক্রিকেটারদের দেখে খেলতে শেখে নতুন প্রজন্ম। তারপর পরিবারের সদস্য কিংবা বন্ধুদের সঙ্গে খেলে। কিন্তু ভারতের ক্ষেত্রে ব্যাপারটা অন্য। ওই দেশে এখনও এমন অনেক দেশ আছে, যেখানে মনের আনন্দে খেলে ছেলেরা। এ ভাবেই খেলা শিখতে শিখতে বড় হয় ওরা।’

সদ্য শেষ হওয়া অ্যাসেজ সিরিজে অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে চরম ভরাডুবি হয়েছে। তার কারণ খুঁজতে গিয়ে গ্রেগ বলছেন, ‘ইংল্যান্ডের ক্রিকেটে স্বাভাবিক পরিবেশটাই নেই। ওদের অধিকাংশ ক্রিকেটার উঠে এসেছে বিভিন্ন স্কুলের কোচিং ম্যানুয়াল থেকে। আর সেই কারণেই ওদের ব্যাটিংয়ে সেই স্বাদটা পাওয়া যাচ্ছে না।’

আরও পড়ুন: Cricket: পাকিস্তান সফর নিয়ে চিন্তায় অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেটাররা

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 BANGLA