Recharge Plan Validity: দেশের সব টেলিকম সংস্থার রিচার্জ প্ল্যানের মেয়াদ ৩০ দিনের পরিবর্তে ২৮ দিন কেন হয়?

28 Days Validity Explained: ভাল ভাবে খুঁটিয়ে লক্ষ্য করে দেখবেন, বছরে ১২টা মাস রয়েছে, এদিকে আপনাকে রিচার্জ করতে হচ্ছে ১৩ বার। এর পিছনে রয়েছে বিরাট ক্যালকুলেশন।

Recharge Plan Validity: দেশের সব টেলিকম সংস্থার রিচার্জ প্ল্যানের মেয়াদ ৩০ দিনের পরিবর্তে ২৮ দিন কেন হয়?
প্রতীকী ছবি
TV9 Bangla Digital

| Edited By: Sayantan Mukherjee

Dec 25, 2021 | 6:00 PM

মোবাইলে একটা জম্পেশ রিচার্জ প্ল্যান না থাকলে কী রকম সমস্যা হতে পারে বলুন তো আমাদের? চলাফেরা সবই হবে সঠিক নিয়মে, তবে আপনার ফোনটা অচল হয়ে যাবে! গুগল খুলবে না, কাউকে ফোন করতে পারবেন না – মানে সব মিলিয়ে আপনার ‘নেটজীবনযাপন’ পঙ্গু হয়ে যেতে পারে। তাই তো আপনি রিচার্জ করেন প্রতি মাসে। কিন্তু কখনও কি ভেবে দেখেছেন, জনপ্রিয় টেলিকম সংস্থাগুলি রিচার্জ প্ল্যানের মেয়াদ এক মাসের জায়গায় ২৮ দিন কেন করা হয়?

ভাল ভাবে খুঁটিয়ে লক্ষ্য করে দেখবেন যে, বছরে ১২টা মাস রয়েছে, এদিকে আপনাকে রিচার্জ করতে হচ্ছে ১৩ বার। এর পিছনে রয়েছে বিরাট ক্যালকুলেশন। রিচার্জ প্ল্যানের ভ্যালিডিটি ৩০ দিনের জায়গায় ২৮ দিন করার একটাই সহজ প্ল্যান টেলিকম জায়ান্টদের – বিপুল অর্থ রোজগার। তবে তার হিসেবটা বড়ই কঠিন। কী রকম হিসেব, তাই এক বার দেখে নেওয়া যাক।

১২ মাস X ২৮ দিন ভ্যালিডিটি, যা আসলে ৩৩৬ দিন। এক বছর বা ৩৬৫ দিনের তুলনায় যা ২৯ দিন কম। আর সেই ৩৩৬ দিনে স্বাভাবিক ভাবেই গ্রাহকদের কুলিয়ে ওঠে না। ফলে দরকার হয় আর এক বার রিচার্জ করিয়ে নেওয়ার। তা নিয়ে সব মিলিয়ে প্রতি মাসের রিচার্জ প্ল্যান অনুযায়ী (Month On Month Basis) বছরে ১৩ বার রিচার্জ করে ফেলেন গ্রাহকরা। আর এই ভাবেই হিসেবটা দাঁড়াচ্ছে ২৮ দিন X ১৩ মাস = ৩৬৪ দিন। টেলিকম সংস্থাগুলির কোয়ার্টারলি রিচার্জ প্ল্যানের ক্ষেত্রেও কাজ করে এই একই হিসেব। তিন মাসের রিচার্জ প্ল্যান কখনই ৯০ দিন অফার করে না জিও, এয়ারটেল বা ভোডাফোন আইডিয়া। সেই জায়গায় তা ৮৪ দিন (২৮X৩) করা হয়।

একটা বিষয় জানলে অবাক হবেন যে, এই ভাবে ১৩তম বারে আপনি রিচার্জ করালে রিলায়েন্স জিও, এয়ারটেল, ভোডাফোন আইডিয়ার মতো সংস্থাগুলি কোটি কোটি টাকা রোজগার করে। নির্দিষ্ট করে বলতে গেলে ১৩তম রিচার্জে এয়ারটেলের রোজগার ৫৪১৫ কোটি টাকা (১৫৩ টাকা রিচার্জ প্ল্যান X ৩৫.৪৪ কোটি ইউজার)। প্রসঙ্গত, সেপ্টেম্বরে এয়ারটেলের ইউজারবেস ছিল ৩৫.৪৪ কোটি। এই একই ভাবে আবার ১৩তম রিচার্জে রিলায়েন্স জিও ও ভোডাফোন আইডিয়ার রোজগার যথাক্রমে ৬১৬৮ কোটি টাকা এবং ২৯৩৪ কোটি টাকা।

রিলায়েন্স জিও, এয়ারটেল এবং ভোডাফোন আইডিয়ার ঝুলিতে রয়েছে ২৮ দিনের একাধিক প্রিপেড রিচার্জ প্ল্যান। জিও তার গ্রাহকদের ২৮ দিনের যে প্ল্যানগুলি অফার করে তাদের খরচ যথাক্রমে ২৯৯ টাকা, ২৩৯ টাকা, ২০৯ টাকা, ৪১৯ টাকা এবং ৬০১ টাকা। এয়ারটেলের ঝুলিতে ২৮ দিনের যে রিচার্জ প্যাকগুলি রয়েছে তাদের খরচ যথাক্রমে ২৯৯ টাকা, ২৬৫ টাকা, ৩৫৯ টাকা, ১৭৯ টাকা, ৫৯৯ টাকা ও ৪৪৯ টাকা। আবার ভোডাফোন আইডিয়া-র ২৮ দিনের প্ল্যানগুলির জন্য ২৯৯ টাকা, ৫০১ টাকা, ১৭৯ টাকা, ২৬৯ টাকা, ৪৭৫ টাকা, ৩৫৯ টাকা এবং ৪০৯ টাকা খরচ করতে হয়।

সম্প্রতি প্রায় সব রিচার্জ প্ল্যানের খরচ বাড়িয়েছে রিলায়েন্স জিও, এয়ারটেল এবং ভোডাফোন আইডিয়ার মতো দেশের বেসরকারি টেলিকম সংস্থাগুলি। প্রতিটি টেলকোই নিজেদের রিচার্জ প্যাকের দাম ২০-২৫ শতাংশ পর্যন্ত বৃদ্ধি করেছে, বার্ষিক ভিত্তিতে যা প্রায় ৫০০ টাকা। ডিসেম্বরের শুরু থেকেই এই নতুন খরচ লাগু হয়ে গিয়েছে।

আরও পড়ুন: হাইপ তুলে শেষে ১ টাকার রিচার্জ প্ল্যান বন্ধই করে দিল রিলায়েন্স জিও

আরও পড়ুন: বিমান চলাচলে সমস্যার সৃষ্টি করতে পারে 5G? ভয় নাকি অহেতুক ভাবনা?

আরও পড়ুন: এবার eSIM সাপোর্টেড স্মার্টওয়াচ নিয়ে এল ভিভো, দাম ও ফিচার্স জেনে নিন

Latest News Updates

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla