Taha Siddiqui: ‘ভোটের পর এলাকায় দেখাই যায়নি স্নেহাশিসকে’, বিস্ফোরক পীরজাদা ত্বহা সিদ্দিকি

Taha Siddiqui: সদ্য মন্ত্রী হয়েছেন জাঙ্গিপাড়ার বিধায়ক স্নেহাশিস চক্রবর্তী। তিনি ফুরফুরার কোনও উন্নয়ন করেননি বলেই দাবি ত্বহার।

Taha Siddiqui: 'ভোটের পর এলাকায় দেখাই যায়নি স্নেহাশিসকে', বিস্ফোরক পীরজাদা ত্বহা সিদ্দিকি
নয়া মন্ত্রীকে নিয়ে প্রশ্ন তুললেন পীরজাদা
TV9 Bangla Digital

| Edited By: tannistha bhandari

Aug 04, 2022 | 3:23 PM

হুগলি: সদ্য মন্ত্রিত্ব পেয়েছেন জাঙ্গিপাড়ার তিনবারের বিধায়ক স্নেহাশিস চক্রবর্তী। স্বচ্ছ ভাবমূর্তি আর তরুণ মুখ, এই দুই কারণেই তাঁকে মন্ত্রী করা হয়েছে বলে মত রাজনৈতিক মহলের। স্নেহাশিস শপথ গ্রহণ করার ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই মুখ খুললেন ফুরফুরা শরিফের পীরজাদা ত্বহা সিদ্দিকি। তাঁর দাবি, ফুরফুরা শরিফের কোনও উন্নয়ন তো দূরের কথা, ভোটের পর থেকে এলাকায় দেখাই যায়নি বিধায়ককে। মন্ত্রী হওয়ার পর স্নেহাশিস কি আদৌ কোনও সময় দিতে পারবেন? সেই প্রশ্নই তুলেছেন পীরজাদা। তবে ত্বহার দাবি, যতটুকু উন্নয়ন হয়েছে, তা হয়েছে সাংসদ কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্য়ায়ের জন্যই।

স্নেহাশিস মন্ত্রী হওয়ার পর ত্বহা সিদ্দিকি বলেন, ‘দল ভেবেছেন তাই মন্ত্রী করেছেন। জাঙ্গিপাড়া বিধানসভার মানুষ হিসেবে আমি খুশি। কিন্তু ওঁর কাজে আমরা খুশি নয়।’ তিনি উল্লেখ করেন, বিধানসভা নির্বাচনের আগে তাঁকে এলাকায় দেখা গেলেও ভোটের পর থেকে আর দেখা পাওয়া যায়নি স্নেহাশিসের। পীরজাদার দাবি, তিনি একবার স্নেহাশিসকে এ বিষয়ে প্রশ্নও করেছিলেন। উত্তরে স্নেহাশিস জানিয়েছিলেন, অনেক কাজ, তাই সময় পান না। ত্বহা সিদ্দিকির প্রশ্ন, মন্ত্রী হলে কী ভাবে সময় পাবেন?

স্নেহাশিসের হাত ধরে ফুরফুরার যে কোনও উন্নয়ন হয়নি, সেই অভিযোগ স্পষ্ট জানিয়েছেন ত্বহা সিদ্দিকি। তাঁর দাবি, সাংসদ কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায় এলাকায় অনেক উন্নয়নমূলক কাজ করেছেন। এ ছাড়া ফুরফুরার উন্নয়নে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিমের সদিচ্ছা রয়েছে বলে উল্লেখ করেন ত্বহা।

তবে ত্বহার দাবি, জঙ্গিপুরের বিধায়ক জাকির হোসেনকে মন্ত্রী করা উচিত ছিল। নতুন মন্ত্রীদের মধ্যে কেন কেবলমাত্র একজন সংখ্যালঘু বিধায়কের জায়গা দেওয়া হয়েছে? সেই প্রশ্ন তুলে ত্বহা বলেন, ‘একজন মাত্র সংখ্যালঘু, তাও আবার প্রতিমন্ত্রী। কতটুকু কাজ করতে পারবেন, জানা নেই।’ এ ক্ষেত্রে সংখ্যালঘুদের বঞ্চিত করা হয়েছে বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

ত্বহার অভিযোগ প্রসঙ্গে, সদ্য মন্ত্রিত্ব পাওয়া স্নেহাশিসকে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, ‘জাঙ্গিপাড়ার আমুল পরিবর্তন ঘটিয়ে দিয়েছি। উনি পীরসাহেব বলে কোনও নেগেটিভ কথা বলছি না। সীমা ছাড়ালে নেগেটিভ কথা ঠিক বলে দেব।’ পীরজাদা হলেও বিভিন্ন সময়ে রাজনৈতিক মন্তব্য করতে শোনা গিয়েছে ত্বহাকে। কখনও নবান্নে গিয়ে মমতার সঙ্গে দেখা করেছেন তিনি, আবার কখনও ফুরফুরায় গিয়েছেন রাজ্যের নেতা-মন্ত্রীরা। তাই তাঁর বক্তব্য তাৎপর্যপূর্ণ বলেই মনে করছে রাজনৈতিক মহল।

উল্লেখ্য, প্রথমবার মন্ত্রী হয়েই স্নেহাশিস জানিয়েছেন, নেত্রীর দেওয়া দায়িত্ব মাথা পেতে নেবেন। এতদিন ফিরহাদ হাকিমের হাতে থাকা পরিবহন দফতর দেওয়া হয়েছে স্নেহাশিসকে।

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla