‘ভাইপোকে মুখ্যমন্ত্রী করা ছাড়া মমতাজির আর কোনও এজেন্ডাই নেই’, তোপ অমিত শাহর

অমিত শাহ বলেন, প্রতিটি ক্ষেত্রে বাংলাকে পিছনের সারিতে নিয়ে গিয়েছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকার। বাংলার মানুষ তাঁকে কোনওদিনই ক্ষমা করবেন না।

'ভাইপোকে মুখ্যমন্ত্রী করা ছাড়া মমতাজির আর কোনও এজেন্ডাই নেই', তোপ অমিত শাহর
সায়নী জোয়ারদার

|

Jan 31, 2021 | 3:03 PM

হাওড়া: তৃণমূল সরকারকে বাংলা থেকে ‘উপড়ে’ ফেলার ডাক দিলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। একইসঙ্গে ‘তোষণ আর তোলাবাজির সরকার’কে হঠিয়ে এবার বাংলার মানুষ বিজেপিকেই স্বাগত জানাবে বলে আত্মবিশ্বাসী সুর শাহের গলায়। হাওড়ার ডুমুরজলায় এদিন বিজেপির যোগদান মেলায় ভার্চুয়ালি বক্তব্য রাখেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। প্রথম থেকেই তৃণমূল সরকার ও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ছিল তাঁর নিশানায়। শাহ বলেন, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের একমাত্র লক্ষ্য ভাইপোকে মুখ্যমন্ত্রী করা। এর বাইরে কোনও দলীয় নেতা কর্মীকে নিয়ে তাঁর মাথাব্যথা নেই।

রবিবার এই ডুমুরজলায় সশরীরে উপস্থিত থাকার কথা ছিল অমিত শাহর। এখান থেকেই বিজেপির পতাকা হাতে তুলে নেওয়ার কথা ছিল রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়, বৈশালী ডালমিয়াদের। কিন্তু দিল্লি বিস্ফোরণের জেরে সেই সূচিতে পরিবর্তন হয়। শনিবারই রাজধানী যান রাজীবরা। সেখানে শাহর বাসভবনে বিজেপিতে যোগদান পর্ব অনুষ্ঠিত হয়।

আরও পড়ুন: ‘আমরাও জানি কীভাবে ভোট করাতে হয়…’, বিজেপিতে যোগ দিয়েই সুর চড়ালেন রাজীব

এদিন ভার্চুয়ালি আরও একবার নতুন সদস্যদের দলে স্বাগত জানিয়ে অমিত শাহ বলেন, “এবার বাংলায় বিজেপি সরকার হবে। তৃণমূলকে উপড়ে ফেলে দেবে মানুষ। গত তিনমাস ধরে তৃণমূল ছেড়ে মানুষ বিজেপিতে আসছেন। শুভেন্দু অধিকারীর নেতৃত্বে বহু সাংসদ, বিধায়ক ইতিমধ্যেই বাম, তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে এসেছেন। রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়ের হাত ধরেও বহু বিধায়ক, তারকা, বিশিষ্ট মানুষ বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন।” তৃণমূল সরকারের প্রতি বীতশ্রদ্ধ হয়েই এই দলবদল, বলেন শাহ।

অমিত শাহর কথায়, বহু আশা নিয়ে মানুষ বাম রাজত্বের অবসান ঘটিয়ে মা-মাটি-মানুষের সরকার এনেছিল। গত ১০ বছরে সে আশায় জল ঢেলে দিয়েছেন ‘মমতাজি’। মা-মাটি-মানুষ স্লোগান বাংলা থেকে মুছে গিয়েছে। এখন তৃণমূলের স্লোগান মানে দুর্নীতির স্লোগান। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর পর্যবেক্ষণ, ‘তোলাবাজি, তুষ্টিকরণের’ জেরে এ রাজ্যে মুখ থুবড়ে পড়েছে শৃঙ্খলা।

বিজেপি সরকার বাংলায় এলেই আয়ুষ্মান ভারতের সুবিধা পাবেন রাজ্যের মানুষ, এদিন সে প্রতিশ্রুতিও শোনা গেল শাহের মুখে। তাঁর অভিযোগ, শুধুমাত্র নরেন্দ্র মোদির সরকারের প্রকল্প বলে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বাংলায় তা চালু হতে দেননি। একইভাবে তাঁর তোপ, কিষাণ সম্মান নিধি থেকেও বাংলার কৃষকদের জোর করে বঞ্চিত করেছেন মমতা।

শাহ বলেন, “ভাইপোকে মুখ্যমন্ত্রী বানানো ছাড়া মমতাজির আর কোনও এজেন্ডাই নেই। ভাইপো-কল্যাণ ছাড়া মমতার সরকার কিছুই বোঝে না। প্রতি ক্ষেত্রে বাংলাকে পিছনে নিয়ে গিয়েছেন মমতাজি। সে কারণেই বাংলার মানুষ এখন পরিবর্তন চাইছেন।” একইসঙ্গে শাহর ভবিষ্যৎবাণী, যেভাবে তৃণমূলে ভাঙন শুরু হয়েছে তাতে নির্বাচন অবধি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে দলে একাই থাকতে হবে।

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla