সোদপুরে ব্যবসায়ীর বাড়ি থেকে দুর্গন্ধ, দরজা ভেঙে ঘরে ঢুকতেই হতভম্ব প্রতিবেশীরা

পুলিশের (Khardah Police) অনুমান, দেনার দায়েই এই ঘটনা। তবে সবদিক খোলা রেখেই তদন্ত করছে পুলিশ।

সোদপুরে ব্যবসায়ীর বাড়ি থেকে দুর্গন্ধ, দরজা ভেঙে ঘরে ঢুকতেই হতভম্ব প্রতিবেশীরা
নিজস্ব চিত্র।
সায়নী জোয়ারদার

|

Jun 04, 2021 | 2:13 PM

উত্তর ২৪ পরগনা: দু’ তিনদিন ধরে পরিবারের কারও দেখা পাচ্ছিলেন না প্রতিবেশীরা। হঠাৎই শুক্রবার সকালে সোদপুর (Sodepur) বসাক বাগানের ওই বাড়ি থেকে বিকট দুর্গন্ধ বের হতে থাকে। খবর দেওয়া হয় খড়দহ থানায়। পুলিশ গিয়ে দরজা ভাঙতেই গা গুলিয়ে ওঠে গন্ধে। দেখেন গৃহকর্তার ঝুলন্ত দেহ। পাশেই পড়ে স্ত্রী ও ছেলের নিথর দেহও। স্থানীয়দের অনুমান, দেনার দায়ে আত্মঘাতী হয়েছেন পরিবারের তিনজনই।

বসাক বাগানের সমীরকুমার গুহ। পোশাক ব্যবসায়ী ছিলেন তিনি। পরিবার বলতে স্ত্রী ঝুমা গুহ ও বছর তেইশের ছেলে বাবাই। গত বছর লকডাউনের সময় থেকেই ব্যবসায় মন্দা শুরু হয়। স্থানীয় সূত্রে খবর, এর পর থেকেই সমীরবাবু মানসিক ভাবে হতাশ হয়ে পড়েন। বাজারে প্রচুর ধার দেনাও করেন। গত কয়েক দিন যাবৎ বেশ চুপচাপ থাকছিলেন তিনি। বাড়ির বাইরেও খুব একটা বের হচ্ছিলেন না।

এরইমধ্যে শুক্রবার সকালে গুহ বাড়ি থেকে বিকট গন্ধ আসতে থাকে। তাতেই সন্দেহ হয় পাড়া প্রতিবেশীর। তারা সোজা খড়দহ থানায় বিষয়টি জানান। এরপরই পুলিশ এসে দরজা ভেঙে ঘরে ঢুকে দেখে তিনজনই মৃত। মৃতদেহের পাশ থেকে একটি সুইসাইড নোট উদ্ধার হয়েছে বলে পুলিশ সূত্রে খবর।

আরও পড়ুন: তৃণমূলে আরও গুরুত্বপূর্ণ পদে কি অভিষেকের অভিষেক, ৫ জুনের মেগা বৈঠকের আগে জোরাল জল্পনা

সেখানে লেখা রয়েছে, ‘প্রিয় পার্থ ঘোষ তোকে দায়িত্ব গিয়ে গেলাম ঘরের যে আসবাব পত্র রয়েছে তা বিক্রি করে বকেয়া টাকাগুলো মিটিয়ে দিস।’ বেশ কয়েকজন টাকা প্রাপকের নামও লেখা রয়েছে সেখানে। এর থেকেই পুলিশের অনুমান, দেনার দায়েই এই ঘটনা। তবে সবদিক খোলা রেখেই তদন্ত করছে পুলিশ। মৃতদেহগুলি সাগর দত্ত পুলিশ মর্গে ময়না তদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে। তবে এ ধরনের ঘটনা যে ঘটতে পারে, তা এখনও ভেবে উঠতে পারছেন না এলাকার লোকজন।

Latest News Updates

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla