ফাঁসিদেওয়ায় চিতাবাঘের কামড়ে আহত রেঞ্জার-সহ ৪ বাসিন্দা, মারা হল গুলি করে

শেষমেষ চিতাবাঘকে গুলি করে ও পিটিয়ে মারা হয়। আহত রেঞ্জারের হাতে কামড়ে দেয় চিতা। গুরুতর আহত রেঞ্জার সঞ্জয় দত্তকে শিলিগুড়িতে বেসরকারি নার্সিংহোমে আনা হয়েছে।

ফাঁসিদেওয়ায় চিতাবাঘের কামড়ে আহত রেঞ্জার-সহ ৪ বাসিন্দা, মারা হল গুলি করে
ফাঁসিদেওয়ায় চিতাবাঘের কামড়ে আহত রেঞ্জার-সহ ৪ বাসিন্দা, মারা হল গুলি করে

শিলিগুড়ি: ফের চিতাবাঘের (Leopard) হানা শিলিগুড়িতে। এদিন ফাঁসিদেওয়া ব্লকের রাঙাপানিতে হানা দেয় একটি চিতাবাঘ। চিতাবাঘকে ধরতে গিয়ে তার কামড়ে আহত রেঞ্জার-সহ স্থানীয় ৪ বাসিন্দা। শেষমেষ চিতাবাঘকে গুলি করে ও পিটিয়ে মারা হয়। আহত রেঞ্জারের হাতে কামড়ে দেয় চিতা। গুরুতর আহত রেঞ্জার সঞ্জয় দত্তকে শিলিগুড়িতে বেসরকারি নার্সিংহোমে আনা হয়েছে।

সূত্রের খবর, এদিন সন্ধে সাড়ে ৬টা নাগাদ গঙ্গারামপুর চা বাগান সংলগ্ন রাঙাপানি ক্যান্সার হাসপাতালের সামনে দেখা যায় চিতাবাঘিটিকে। ঘন জঙ্গলে ঘেরা এলাকায় এক ব্যক্তি আচমকা চিতাবাঘের সামনে চলে এলে তাঁর ওপর হানা দেয় সে। আহত অবস্থায় ওই ব্যক্তিকে ভর্তি করা হয় হাসপাতালে।

খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছে যায় বন দফতরের একটি দল। কিন্তু তাঁদের ওপরও হামলা চালায় চিতাবাঘটি। সূত্রের খবর, সঞ্জয় দত্ত নামের এক রেঞ্জার গুরুতর আহত। তাঁকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। এরপর বাধ্য হয়ে ওই চিতাবাঘটিকে গুলি করে মারেন বন দফতরের আধিকারিকরা। চিতাবাঘের কামড়ে আরও দুই ব্যক্তি সামান্য আঘাত পেয়েছেন বলে জানা গিয়েছে। চিতাবাঘের দেহটি ময়নাতদন্তের জন্য নিয়ে যাওয়া হয়েছে। আহত রেঞ্জার বিপদমুক্ত বলে জানা গিয়েছে।

আরও পড়ুন: ‘মাথা গরম করিস না, আমি আসছি’, জিতেন্দ্রকে মমতা