‘বহু বাচ্চার মধ্যে করোনার উপসর্গ, অথচ কোভিড টেস্ট হয়নি’, পুরুলিয়া হাসপাতাল ঘুরে বিস্ফোরক শুভেন্দু

Mystery Fever: শুভেন্দুর তোপ, গত ১০ বছরে এখানকার স্বাস্থ্য বিভাগে পরিকাঠামোর কোনও উন্নতি হয়নি।

'বহু বাচ্চার মধ্যে করোনার উপসর্গ, অথচ কোভিড টেস্ট হয়নি', পুরুলিয়া হাসপাতাল ঘুরে বিস্ফোরক শুভেন্দু
পুরুলিয়া মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে শুভেন্দু অধিকারী।

পুরুলিয়া: দলীয় কর্মসূচি নিয়ে বৃহস্পতিবার পুরুলিয়া জেলা সফরে গিয়েছিলেন শুভেন্দু অধিকারী (BJP Leader Suvendu Adhikari)। সফর শেষে ফেরার পথে পুরুলিয়া মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে যান তিনি। অজানা জ্বরে (Mystery Fever) আক্রান্ত হয়ে কতজন শিশু ভর্তি রয়েছে, সেই খোঁজ নিতেই সেখানে পৌঁছে যান রাজ্যের বিরোধী দলনেতা। রাতেই নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুক অ্যাকাউন্ট থেকে শুভেন্দু লেখেন, ডেপুটি সুপারের সঙ্গে তাঁর কথা হয়েছে। ‘এমন বহু শিশু হাসপাতালে ভর্তি যাদের করোনার উপসর্গ থাকা সত্ত্বেও কোভিড পরীক্ষা করানো হয়নি’।

শুভেন্দু ফেসবুকে লেখেন, ‘পুরুলিয়া জেলা সফর শেষে ফেরার পথে পুরুলিয়া মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে অজানা জ্বর ও ফ্লুতে আক্রান্ত কতজন শিশু ভর্তি রয়েছে, খোঁজ নিতে হাসপাতালে উপস্থিত হই। ডেপুটি সুপার মহোদয়ের অফিসে গিয়ে ওনার সঙ্গে দেখা করে কথা বলে যা বুঝলাম ২৩৬ জন শিশু ভর্তি হয়েছে, কোভিড উপসর্গ থাকা সত্ত্বেও কোভিড টেস্ট করা হয়নি। এখানকার পরিকাঠামো অত‍্যন্ত নিম্ন মানের, অপর্যাপ্ত পরিকাঠামোই উদ্বেগের কারণ।’

একই সঙ্গে শুভেন্দুর তোপ, ‘আসলে গত ১০ বছরে এখানকার স্বাস্থ্য বিভাগে পরিকাঠামোর কোনও উন্নতি হয়নি। ২৩৬ জন শিশু ভর্তি হয়েছে। অথচ শয‍্যা মাত্র ৮০টি। ডেপুটি সুপার মহোদয়কে অনুরোধ করেছি গুরুতর অসুস্থ শিশুদের সু-চিকিৎসার জন্য কলকাতার কোনও সরকারি হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হোক। আর তা সম্ভব না হলে বিকল্প স্বাস্থ্য পরিষেবার জন্য শিশুদের অভিভাবকের সম্মতি থাকলে আমাদের পুরুলিয়ার সাংসদ ও বিধায়কদের সঙ্গে যোগাযোগ করার অনুরোধ করলাম এবং আশ্বস্ত করেছি আমরা সবরকম ভাবে সাহায্যের জন্য পাশে আছি।’

এর আগে বৃহস্পতিবারই শুভেন্দু অধিকারী কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী মনসুখ মাণ্ডব্যকে (Mansukh Mandaviya) চিঠি লেখেন। সেখানে শুভেন্দু অভিযোগ করেন, এতদিন ধরে বাচ্চাদের মধ্যে এই জ্বরের প্রকোপ শুরু হয়েছে। অথচ কী কারণে সেই জ্বর তা এখনও রাজ্য সরকার জেনেই উঠতে পারল না। আসলে রাজ্য সরকার এই জ্বরকে গুরুত্বই দিচ্ছে না বলে অভিযোগ শুভেন্দুর। বরং ভবানীপুর উপনির্বাচন নিয়ে তারা বেশি মেতে রয়েছে।

চিঠিতে শুভেন্দু জানিয়েছেন, একদিকে তৃতীয় ঢেউ নিয়ে আশঙ্কা রয়েছে। অন্যদিকে, উত্তরবঙ্গে অজানা জ্বর ও ফ্লু নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি ৭৫০ জন শিশু। তার মধ্যে ৬ জন শিশু মারা গিয়েছে। শুধুমাত্র মালদা জেলাতেই ২০০ জন শিশু হাসপাতালে ভর্তি বলে উল্লেখ করেছেন তিনি। শুভেন্দুর অভিযোগ, ‘পশ্চিমবঙ্গ সরকারের কোনও গুরুত্ব নেই এ বিষয়ে। তারা ভবানীপুর উপনির্বাচন নিয়ে ব্যস্ত।’ শুভেন্দু মনে করছেন, এই জ্বরের বিষয়টি সামনে এলে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ভাবমূর্তি নষ্ট হবে, কারণ তিনি স্বাস্থ্যমন্ত্রীও বটে। আর তার প্রভাব পড়বে ভবানীপুর উপ নির্বাচনে। সেই কারণেই এই বিষয়টাকে ধামাচাপা দেওয়া হচ্ছে। তাই অবিলম্বে কেন্দ্রের স্বাস্থ্য মন্ত্রকের হস্তক্ষেপ দাবি করেছেন শুভেন্দু। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রীর কাছে তাঁর আর্জি, যাতে রাজ্যে স্বাস্থ্য প্রতিনিধি দল পাঠানো হয়।

আরও পড়ুন: কাবুলে কারা অপহরণ করল বাঁশরী লালকে? কড়া নজর রাখছে কেন্দ্র

 

Read Full Article

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla