Canning: ‘বিছানায় চাপ চাপ রক্ত, হাত ফুলে বালিশের মতো হয়ে গিয়েছে’! নিছক সন্দেহের বশে নৃশংস মার

Canning: ক্যানিংয়ের বাণীবাদা-বেলেখালি গ্রাম। সেখানেই রাস্তায় ইট ছিল। বেশ কিছু ধরে সেই ইট কমতে শুরু করে।

Canning: 'বিছানায় চাপ চাপ রক্ত, হাত ফুলে বালিশের মতো হয়ে গিয়েছে'! নিছক সন্দেহের বশে নৃশংস মার
আক্রান্তের পরিবারের দাবি সমস্ত অভিযোগ ভিত্তিহীন। নিজস্ব চিত্র।

দক্ষিণ ২৪ পরগনা: নিছক সন্দেহের বশে হাতুড়ি দিয়ে মেরে এক ব্যক্তির হাত ভেঙে দেওয়ার অভিযোগ উঠল। অভিযোগ, ওই ব্যক্তি ইট চুরি করছিলেন বলে অভিযোগ তুলে পঞ্চাশোর্ধ্ব ওই ব্যক্তিকে মারধর করে জনা দশেক লোক। ক্যানিং থানা এলাকার ঘটনা। আক্রান্ত ওই ব্যক্তি থানায় অভিযোগ দায়ের করেন।

ক্যানিংয়ের বাণীবাদা-বেলেখালি গ্রাম। সেখানেই রাস্তায় ইট ছিল। বেশ কিছু ধরে সেই ইট কমতে শুরু করে। অভিযোগ ইটগুলি ওই ব্যক্তি নিয়মিত একটু একটু করে সরিয়ে নিচ্ছিলেন বলে এলাকার কয়েকজন অনুমান করেন। এরপরই শনিবার ওই ব্যক্তিকে ঘিরে ধরেন কয়েকজন। হাতুড়ি দিয়ে মেরে হাত ভেঙে দেন বলেও অভিযোগ।

পেশায় কৃষিকাজ করেন ওই ব্যক্তি। তাঁর পরিবারের দাবি, এরকম কোনও ঘটনাই ঘটেনি। অথচ নিছক সন্দেহের বশে ৫৪ বছরের এক প্রৌঢ়কে এভাবে সর্বসমক্ষে মারধর করা হয়েছে। শুধু হাত ভেঙে দেওয়াই নয়, অভিযুক্তদের মারে নাকেও গুরুতর চোট পান ওই ব্যক্তি বলে দাবি পরিবারের। এ বিষয়ে ক্যানিং থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন আক্রান্তের পরিবার।

আক্রান্তের এক আত্মীয় জানান, “আমার ভাসুর হন যাঁকে মারধর করা হয়েছে। এখানে পুলিশ আসে প্রথমে। এসে জিজ্ঞাসা করে এখান থেকে ইট কে চুরি করেছে। আমার ভাসুর বলেন উনি কিছু নেননি। এরপর পুলিশ চলে যায়। পুলিশ চলে যায়। পরে দু’ তিনটে বাইক আসে। তখন ভাসুর ঘুমোচ্ছিলেন। ২০-২৫ জন এসে খুব মারধর করেছে। হাতুড়ি, রড দিয়ে মেরেছে। নাক ফেটে রক্তারক্তি কাণ্ড। হাতে মেরে বালিশের মতো ফুলিয়ে দিয়েছে। মাথায়, বুকেও খুব মেরেছে। চাপ চাপ রক্ত বিছানায় ভর্তি হয়ে গিয়েছে। সরকার রাস্তা তৈরি করছে। তার জন্য ইট রাখা ছিল। সেই ইট নাকি চুরি নিয়ে আমার ভাসুর সব জানে ওরা বলছে। আমাদের বাড়ি কিছুটা দূরে। খবর পেয়ে এসে দেখি বীভৎস অবস্থা।”

আরও পড়ুন: Covid Bulletin: রাজ্যে কিছুটা কমল দৈনিক সংক্রমণ, বেড়েছে মৃত্যু!

আরও পড়ুন: Santanu Thakur: ‘আমি বম্ব ব্লাস্ট করব কোথায় সেটা সময় হলেই জানতে পারবেন’, দলের নেতার বিরুদ্ধে বিস্ফোরক শান্তনু ঠাকুর

আরও পড়ুন: Covid Restriction: মেলাতে আপত্তি নেই রাজ্যের, বাকি বিধিনিষেধ বাড়ল ৩১ জানুয়ারি পর্যন্ত

Related News

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla