Punjab Assembly Election 2022 : “আমার মন্ত্রিসভায় সিধুকে নেওয়ার অনুরোধ জানিয়ে চিঠি দিয়েছিলেন ইমরান”, বিস্ফোরক অমরিন্দর

TV9 Bangla Digital

TV9 Bangla Digital | Edited By: অঙ্কিতা পাল

Updated on: Jan 24, 2022 | 10:37 PM

Amrinder Singh : আজ সাংবাদিক বৈঠকে ক্যাপ্টেন অমরিন্দর সিং জানান পাকিস্তান থেকে তাঁর কাছে চিঠি এসেছিল। সেখানে সিধুকে তাঁর ক্যাবিনেটে নেওয়ার জন্য আর্জি জানিয়েছিলেন পাক প্রধানমন্ত্রী বলে দাবি ক্যাপ্টেনের।

Punjab Assembly Election 2022 : আমার মন্ত্রিসভায় সিধুকে নেওয়ার অনুরোধ জানিয়ে চিঠি দিয়েছিলেন ইমরান, বিস্ফোরক অমরিন্দর
ক্যাপ্টেন অমরিন্দর সিং (ছবি সৌজন্যে : টুইটার)

নয়া দিল্লি : আজ দিল্লিতে বিজেপির দপ্তরে গিয়েছিলেন পঞ্জাবের প্রাক্তন কংগ্রেস মুখ্যমন্ত্রী তথা পঞ্জাব লোক কংগ্রেসের প্রতিষ্ঠাতা অমরিন্দর সিং। সেখান থেকেই আজ পঞ্জাবের এনডিএ এর আসন বণ্টন নিয়ে ঘোষণা করেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জে পি নাড্ডা। এই সাংবাদিক সম্মেলন থেকেই সিধু (নভজ্যোৎ সিং সিধু) পাকিস্তান নিয়ে ফের সরব হয়েছেন। তিনি জানান পাকিস্তান থেকে তাঁর কাছে সিধুর বিষয়ে একটি চিঠি এসেছে।

পাকিস্তানের চিঠি প্রসঙ্গে তিনি সাংবাদিক সম্মেলনে বলেন, ” আমি দুই তিন সপ্তাহ আগে একটি চিঠি পেয়েছিলাম। এই চিঠিটি পাকিস্তান থেকে এসেছে। এই চিঠিতে লেখা হয়েছিল পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী আপনার কাছে একটি অনুরোধ রেখেছেন। তিনি আমার কাছে অনুরোধ করেছেন, যদি আপনি সিধুকে (পঞ্জাব কংগ্রেসের সভাপতি নভজ্যোৎ সিং সিধু) আপনার ক্যাবিনেটে নিতে পারেন তাহলে আমি কৃতজ্ঞ থাকব। কিন্তু যদি কাজ না করেন তাহলে বের করে দেবেন। সিধু আমার এক পুরনো বন্ধু। ” এর আগেও বহুবার সিধুর সঙ্গে পাক প্রধানমন্ত্রীর যোগ নিয়ে কটাক্ষ করেছেন পঞ্জাবের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী অমরিন্দর সিং। আজ দিল্লিতে বিজেপির সদর কার্যালয়ে ক্যাপ্টেন গিয়েছিলেন। সেখানেই আসন্ন পঞ্জাব বিধানসভা নির্বাচনে এনডিএ এর আসন বণ্টন নিয়ে সাংবাদিক বৈঠকে ঘোষণা করেন বিজেপি সর্বভারতীয় সভাপতি জে পি নাড্ডা। সেই সংবাদিক বৈঠক থেকেই এরূপ মন্তব্য করেন ক্যাপ্টেন অমরিন্দর সিং।

প্রসঙ্গত, ২০১৮ সালে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠানে নভজ্যোৎ সিং সিধু গিয়েছিলেন। সেখানে পাকিস্তানের সেনা প্রধান কামার জাভেদ বাজওয়ার সঙ্গে আলিঙ্গন করেন সিধু। সেই ছবি নিয়ে রাজনৈতিক মহলে শুরু হয়েছিল জোর তরজা। ২০২১ সালে ফের একবার ইমরান খানকে ‘বড় ভাই’ আখ্যা দিয়ে বিতর্কে জড়িয়েছিলেন সিধু। এরপর ক্যাপ্টেন অমরিন্দর সিং অনেক বার পাকিস্তানের সঙ্গে সিধুর যোগের প্রসঙ্গে সিধুকে খোঁচা দিয়েছেন। কংগ্রেস ছেড়ে বেরিয়ে আসার পর অমরিন্দর সিধুকে আক্রমণ করে তিনি মন্তব্য করেছিলেন, সিধু দেশের জাতীয় নিরাপত্তার জন্য বিপজ্জনক। কংগ্রেস ছাড়ার পর পরই তিনি নভজ্যোৎ সিংকে আক্রমণ করেছিলেন।

কংগ্রেস ছাড়ার সময় সনিয়াকে পাঠানো পদত্যাগ পত্রেও তিনি সিধুকে ‘পাকিস্তানের সঙ্গী’ বলে অভিহিত করেছিলেন। সেই চিঠিতে তিনি লিখেছিলেন, “আমার আপত্তি এবং পঞ্জাবের প্রায় অধিকাংশ সাংসদের পরামর্শের বিরুদ্ধে গিয়ে আপনি পাকিস্তানের একজন সঙ্গীকে পঞ্জাব কংগ্রেস কমিটির প্রেসিডেন্ট পদে নিয়োগ করেছেন। পাকিস্তানের সেনাপ্রধান এবং প্রধানমন্ত্রীকে সবার সামনে আলিঙ্গন করেছিলেন সিধু। ইমরান খান এবং জেনারেল বাজওয়া ভারতীয়দের হত্যা করার জন্য সীমান্তের ওপারে সন্ত্রাসীদের পাঠানোর জন্য দায়ী।” সিধু বনাম অমরিন্দর যুদ্ধটা এখনও প্রকট। তা এই সাংবাদিক বৈঠক থেকে আরও একবার প্রমাণিত হল।

আরও পড়ুন : Punjab Assembly Election 2022 : মানুষের ভালোবাসার সঙ্গে নোটিস ফ্রি! বিধিভঙ্গে কমিশনের প্রশ্নের মুখে ভগবন্ত

Latest News Updates

Follow us on

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla