বিজেপিকে ‘বেজিং জনতা পার্টি’ বলে আক্রমণ রাজ্যসভার কংগ্রেস সাংসদ মল্লিকার্জুন খাড়গের

Mallikarjun Kharge: ২৫ নভেম্বর উত্তর প্রদেশে নির্বাচনে আগেভাগেই নয়ডা জেওয়ারে আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের শিলান্যাস করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। ১৩০০ হেক্টর জমির উপর তৈরি এই বিশাল বিমানবন্দরটির কেবল প্রথম ধাপের কাজই শেষ হয়েছে এখনও অবধি।

বিজেপিকে 'বেজিং জনতা পার্টি' বলে আক্রমণ রাজ্যসভার কংগ্রেস সাংসদ মল্লিকার্জুন খাড়গের
ছবি: ফাইল চিত্র

নয়া দিল্লি: সম্প্রতি উত্তর প্রদেশের নয়ড়া পঞ্চম আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের শিলান্যাস করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী (PM Narendra Modi)। সেই নিয়ে ইতিমধ্যে প্রচারে নেমে পড়েছিল বিজেপি। বিভিন্ন বিজেপি নেতারা নিজেদের সোশ্যাল মিডিয়াতে বিমানবন্দরের যে ছবি তুলে ধরেছিলেন, তা আদতে ভুয়ো বলেই দাবি ছিল কংগ্রেস সহ বিরোধী দল গুলির। এই ইস্যুতেই শনিবার কংগ্রেস সাংসদ তথা রাজ্যসভা বিরোধী দলনেতা মল্লিকার্জুন খাড়গে (Mallikarjun Kharge) বিমানবন্দরের ভুয়ো ছবি ছড়িয়ে দেওয়ার জন্য বিজেপিকে তীব্র কটাক্ষ করলেন।

টুইটারে সাংসদ লেখেন, “অরুণাচল প্রদেশে বিজেপি সরকার চিনকে গ্রাম তৈরি করতে দিচ্ছে। আর উত্তর প্রদেশের বিজেপি সরকার চিনের বিমানবন্দরকে নিজেদের বলে দাবি করছে।” মনে করা হচ্ছে, যেসব বিজেপি নেতা, উত্তর প্রদেশের বিজেপির সরকারের কাজ তুলে ধরার জন্য চিনের রাজধানী বেজিংয়ের ডাক্সিং আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের ছবি সোশ্যাল মাধ্যমে শেয়ার করেছিল, এই টুইট সেইসব নেতাদের উদ্দেশেই করা হয়েছে।

টুইটারে মল্লিকার্জুন আরও লেখেন, “লাদাখে সরকার চিনের কাছে মাথা নত করে ভারতীয় ভুখণ্ড চিনে হাতে তুলে দিচ্ছে। ভারতীয় জনতা পার্টি থেকে বেজিং জনতা পার্টিতে পরিণত হয়েছে বিজেপি।” উত্তরাখণ্ড ও অরুণাচল প্রদেশে ভারতীয় ভূখণ্ডে চিনের অনুপ্রবেশ নিয়ে প্রথম থেকেই সরব হয়ে আসছিল কংগ্রেস। কংগ্রসের অভিযোগ ছিল ভারতীয় ভূখণ্ড চিন দখল করে নিলেও সরকারের কোনও মাথাব্যথা নেই।

উল্লেখ্য, ২৫ নভেম্বর উত্তর প্রদেশে নির্বাচনে আগেভাগেই নয়ডা জেওয়ারে আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের শিলান্যাস করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। ১৩০০ হেক্টর জমির উপর তৈরি এই বিশাল বিমানবন্দরটির কেবল প্রথম ধাপের কাজই শেষ হয়েছে এখনও অবধি। এই অংশটিই প্রতি বছর ১.২ কোটি যাত্রী পরিষেবা দিতে সক্ষম বলে জানানো হয়েছে। আগামী ২০২৪ সালের মধ্যে সম্পূর্ণ বিমানবন্দরই তৈরি হয়ে যাবে বলে জানানো হয়েছে। বিশ্বের চতুর্থ বৃহত্তম বিমানবন্দর হবে এটি। মূলত উত্তর প্রদেশের পূর্বাঞ্চলে গৌতম বুদ্ধ নগর, গাজিয়াবাদ, বুলন্দেশ্বর, আলিগড়ের মত ন্যাশানাল ক্যাপিটাল রিজিয়নের অন্তর্গত এলাকা গুলি আরও বেশি করে লাভবান হবে।

নয়ডাতে জেওয়ার আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের (Noida International Airport) শিলান্যাস করে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বলেন,”এই বিমান বন্দরের জন্য উত্তর প্রদেশের পূর্বাঞ্চলের কোটি কোটি নাগরিক তথা দিল্লি এনসিআরের বাসিন্দারও উপকৃত হবে। নতুন এই বিমানবন্দর তৈরি শুধু হলে পরিকাঠামোগত উন্নয়নই হয় না, এরফলে অনেক মানুষের জীবন বদলে যায়। গরীব, দিন মজুর হোক বা মধ্যবিত্ত পরিবহন ক্ষেত্রে উন্নতি হলে সেই লাভ সকলেই পাবেন। এই বিমানবন্দর তৈরিল হওয়ার ফলে সহজেই দিল্লি, হরিয়ানাতে অল্প সময়েই পৌঁছে যাওয়া যাবে। খুব দ্রুতই দিল্লি মুম্বই এক্সপ্রেসওয়ের তৈরি হয়ে যাবে, ফলে বিভিন্ন শহরে যাতায়াত আরও অনেক সহজ হয়ে যাবে। দেশে বিমান পরিষেবার ক্ষেত্রে যে বিপুল পরিকাঠামোগত উন্নয়ন হচ্ছে, তাতে নয়ডা বিমানবন্দরেরও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা থাকবে। এই বিমানবন্দর তৈরির ফলে কর্মসংস্থান বাড়বে।”

আরও পড়ুন Tripura: ত্রিপুরা হিংসার ভুয়ো খবর সংক্রান্ত ১০২ টি মামলা খতিয়ে দেখে রিপোর্ট তৈরির নির্দেশ

Related News

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla