ভরা জলসায় খুব কাছ থেকে তৃণমূল নেতাকে পরপর গুলি! শিউরে উঠলেন গ্রামবাসীরা

ভোট আবহে (West Bengal Assembly Election 2021) গুলিবিদ্ধ তৃণমূল (TMC) নেতা।

  • TV9 Bangla
  • Published On - 12:02 PM, 5 Apr 2021
ভরা জলসায় খুব কাছ থেকে তৃণমূল নেতাকে পরপর গুলি! শিউরে উঠলেন গ্রামবাসীরা
আতঙ্কিত গ্রামবাসীরা

বসিরহাট: ভোট আবহে (West Bengal Assembly Election 2021) গুলিবিদ্ধ তৃণমূল (TMC) নেতা। ভরা জলসায় তাঁকে লক্ষ্য করে খুব কাছ থেকে একাধিকবার গুলি। আশঙ্কাজনক অবস্থায় ওই নেতা এসএসকেএম হাসপাতালে ভর্তি। উত্তপ্ত বসিরহাটের মিনাখাঁর (Minakhan) ধুতুরদহ গ্রাম। ঘটনার তিন আইএসএফ কর্মীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ধৃতদের নাম আলামিন মোল্লা, আকবর তরফদার, আনারুল মোল্লা। গুলিবিদ্ধ তৃণমূল নেতার স্ত্রী মিনারা বিবি ১১ জনের বিরুদ্ধে মিনাখাঁ থানায় অভিযোগ করেছেন।

উত্তরা বাগরা গ্রামে রবিবার রাতে একটি মেলায় গানের জলসা চলছিল। বছর তিরিশের বারিক মোল্লা স্থানীয় ধুতুরদহ অঞ্চলের তৃণমূল নেতা। গানের জলসায় গিয়েছিলেন তিনি। অভিযোগ, কয়েক জন দুষ্কৃতী খুব কাছ থেকে তাঁকে লক্ষ্য করে কয়েক রাউন্ড গুলি চালায়।

জলসার মধ্যেই গুলিচালনার ঘটনায় স্তম্ভিত হয়ে যান সকলে। আতঙ্কে হুড়োহুড়ি পড়ে যায়। রক্তাক্ত অবস্থায় মাটিতে লুটিয়ে পড়েন বারিক। স্থানীয়রাই তাঁকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করান। প্রথমে তাকে মিনাখাঁ গ্রামীণ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। অবস্থার অবনতি হওয়ায় তাঁকে এসএসকেএম হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়েছে।

চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, ওই তৃণমূল নেতার অবস্থা আশঙ্কাজনক। এই ঘটনায় এলাকায় উত্তেজনা রয়েছে। গানের জলসায় এত লোকের মাঝেও কীভাবে এই ধরনের ঘটনা ঘটে গেল, কেউ আগে থেকে কিছুই আঁচ করতে পারলেন না কেন, কারা গুলি চালাল- তা তদন্ত করে দেখছে পুলিশ।

আরও পড়ুন: বিস্ফোরণের জন্য মজুত হচ্ছিল গ্যাস সিলিন্ডার! রাস্তাতেই পর্দা ফাঁস

এই ঘটনার পিছনে একাধিক কারণ থাকতে পারে বলে মনে করছে পুলিশ। পুরনো কিংবা ব্যবসায়িক শত্রুতার জেরে হামলা হয়ে থাকতে পারে। পারিবারিক বিবাদ রয়েছে কিনা, তাও খতিয়ে দেখা হচ্ছে। তদন্ত নেমেছে মিনাখাঁ থানার পুলিশ। আক্রান্তের পরিবারের দাবি, পরিকল্পনা করে বারিককে খুন করার চেষ্টা করা হয়েছে।

এ ঘটনায় অবশ্য রাজনৈতিক রঙ খুঁজেছেন মিনাখাঁর তৃণমূলের চেয়ারম্যান মৃত্যুঞ্জয় মণ্ডল। তাঁর অভিযোগ, সিপিএম আশ্রিত দুষ্কৃতীরা এই কাজ করেছে। যদিও মিনাখাঁ বিধানসভার সংযুক্ত মোর্চা প্রার্থী প্রদ্যুৎ রায় বলেন, “আমার হাসি পাচ্ছে কথাটা শুনে। এলাকার দখল নিয়ে তৃণমূলের দুই নেতার লড়াই। এখানে সংযুক্ত মোর্চার কর্মীরা কোথা থেকে এলেন! এটা একটা হাসির বিষয় ছাড়া আর কিছু নয়।”