Bengali Serial-Bengali Audience: “দর্শকের ভাল লাগেনি বলে গল্প পাল্টেছি, এরকম কোনওদিনও করিনি”, সাফ জানালেন লীনা গঙ্গোপাধ্যায়

Koneenica Bandhyopadhyay-Leena Gangopadhyay: কনীনিকা যা বললেন, তাঁর একেবারে উল্টো সুরে বক্তব্য প্রকাশ করেছেন লীনা গঙ্গোপাধ্যায়। শুনেছে TV9 বাংলা।

Bengali Serial-Bengali Audience: দর্শকের ভাল লাগেনি বলে গল্প পাল্টেছি, এরকম কোনওদিনও করিনি, সাফ জানালেন লীনা গঙ্গোপাধ্যায়
কনীনিকা বন্দ্যোপাধ্যায় ও লীনা গঙ্গোপাধ্যায়।
TV9 Bangla Digital

| Edited By: Sneha Sengupta

Mar 12, 2022 | 6:43 AM

সম্প্রতি তাঁর ধারাবাহিকে পাল্টে যাওয়া গল্প নিয়ে সোচ্চার হয়েছেন অভিনেত্রী কনীনিকা বন্দ্যোপাধ্যায়। ‘আয় তবে সহচরী’ ধারাবাহিকে তিনি সহচরী সেনগুপ্তর চরিত্রে অভিনয় করছেন। এক মাঝবয়সী মহিলা। শ্বশুরবাড়ির বয়োজ্যেষ্ঠা সদস্যের ষড়যন্ত্রে তাঁর পড়াশোনার পাঠ চুকেবুকে যায় অনেক আগেই। লাঞ্ছিতা গৃহবধূ। যেমনটা দেখতে পাওয়া যায় আমাদের পাশে। অল্প লেখাপড়া জানা ‘একসময়কার মেধাবী’ সহচরী ফের লেখাপড়া শুরু করায় ব্রত হয়। শুরুর দিকে সেভাবেই ট্র্যাক এগোতে থাকে। কিন্তু দর্শক! তাঁরা নাকি লেখাপড়া নিয়ে সহচরীর লড়াই দেখতে আগ্রহীই নন। ফল পড়ে টিআরপিতে। আর কে না জানে, সবার উপর টিআরপি সত্য, তাহার উপর নাই। ফলে কাহিনি পাল্টে ফেলতে বাধ্য হয়েছেন গল্পের লেখিকা সাহানা দত্ত। তেমনটাই দাবি ‘আয় তবে সহচরী’র মুখ্য নায়িকা কনীনিকার। কনীনিকার পাশাপাশি লীনা গঙ্গোপাধ্যায়ের সঙ্গেও কথা বলেছে TV9 বাংলা।

অভিনেত্রী কনীনিকা বন্দ্যোপাধ্যায় যা বললেন:

মানুষ দেখেন না। যতদিন পড়াশোনার ট্র্যাক চলছিল, ৫.২, ৫.৪, ৫.৬ টিআরপি ছিল। যেই দেবিনার ট্র্যাক ঢুকেছে, ৯-এর উপর টিআরপি, ৮-এর উপর টিআরপি। কী করা যাবে। চ্যানেলকে তো ব্যবসা করতে হবে। মুনাফা না হলে চ্যানেল চলবে কীভাবে। শিক্ষিত সিরিয়াল মানুষ দেখেন না। সিরিয়ালটি খারাপভাবে তৈরি করা হচ্ছিল, তেমনটাও কিন্তু নয়। খুব সুন্দর করেই তৈরি হচ্ছিল। তারপর দেখলাম কনটেন্ট বদলে গেল। অদ্ভুত সব জিনিসপত্র শুরু হয়ে গেল। এতে আমাদের অভিনেতাদের কিচ্ছু করার নেই। সাহানাদির এটা প্রথম প্রযোজনা। নিশ্চয়ই চাইবেন না চার মাসের মাথায় সিরিয়াল বন্ধ হয়ে যাক। এত ভাল একজন লেখিকা। ছোটবেলা থেকে চিনি। ধারাবাহিক সম্প্রচারিত হওয়ার প্রথম দু’মাসে জাত চিনিয়ে দিয়েছিলেন সাহানাদি। এখনও কিছু শিক্ষিত দর্শক ব্যক্তিগতভাবে প্রথম দু’মাসের প্রশংসা করছেন। কিন্তু অধিকাংশ দর্শকই ঝগড়া দেখতে চান। আমি অভিনয় করতে পারি, আর সেটা আমি জানি। সাহানাদি কতখানি ভাল লেখেন, সেটা আর নতুন করে প্রমাণ করার দরকার নেই। স্টারের মতো চ্যানেল। তারপরেও কেন চলবে না!

বিষয়টি নিয়ে ‘আয় তবে সহচরী’র লেখিকা ও প্রযোজক সাহানা দত্তর সঙ্গে যোগাযোগ করার চেষ্টা করেছিল TV9 বাংলা। কিন্তু তিনি সাড়া দেননি।

TV9 বাংলা জানতে চেয়েছিল আরও এক জনপ্রিয় লেখিকা ও প্রযোজক লীনা গঙ্গোপাধ্যায়ের বক্তব্য। তাঁর কাছে জানতে চাওয়া হয়েছিল, দর্শকের পছন্দ হচ্ছে না বলে কি তিনি কখনও চিত্রনাট্যে বা তাঁর গল্পে বদল আনেন?

লেখিকা ও প্রযোজক লীনা গঙ্গোপাধ্যায় যা বললেন:

আমার ধারাবাহিকের গল্পগুলোর ক্ষেত্রে কিন্তু এরকমটা কোনওদিনও ঘটেনি। এমনটা হয়েছে, মূল অভিনেত্রী ভাল করেননি। সে জন্য ধারাবাহিকের অন্য অভিনেত্রীকে বেশি প্রাধান্য দিয়েছি। এছাড়া, দর্শকের চাহিদা প্রথমেই ওরকমভাবে বোঝা যায় না। ‘আয় তবে সহচরী’র মতো অভিজ্ঞতা সত্যিই আমার হয়নি। আমাকে চ্যানেলের কথা শুনেও চলতে হয়নি। দর্শকের কথা ভেবেও কাহিনি পাল্টাতে হয়নি। আমি আমার গল্পের উপর বিশ্বাস রেখেই কাজ করি। যদি মনে হয় কোনও অভিনেতা-অভিনেত্রী ভাল করছেন, তাঁর উপর নির্ভর করে অনেক সময়তেই আমি গল্প এগিয়ে নিয়ে গিয়েছি। সেই কারণে গল্পের সাবট্রেকও অনেক সময় হিট করেছে। সেটা আমি নিজে সিদ্ধান্ত নিয়ে করি। দর্শকের ভাল লাগে না বলে পাল্টেছি, এমনটা কিন্তু কখনও করিনি।

আরও পড়ুন: Janhvi Kapoor: ঠিক মতো ঘুমতে পারছেন না জাহ্নবী কাপুর, কয়েকটি শব্দ নাকি তাড়া করছে তাঁকে

আরও পড়ুন: Yami Gautam: ১০ বছরের অপেক্ষার অবসান, অভিনয় জগতে প্রথম বাজিমাতে আবেগঘন ইয়ামি

Latest News Updates

Follow us on

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla