তৃতীয় ঢেউয়ের আগেই শিশুদের টিকাকরণের তোড়জোড়, কোভ্যাক্সিনেই আস্থা কেন্দ্রের

বিদেশে ১২ উর্ধ্বদের শরীরে ফাইজা়রের ভ্যাকসিন প্রয়োগের অনুমোদন মিললেও ভারতে এই টিকা আমদানি নিয়ে যথেষ্ট অনিশ্চয়তা রয়েছে।

তৃতীয় ঢেউয়ের আগেই শিশুদের টিকাকরণের তোড়জোড়, কোভ্যাক্সিনেই আস্থা কেন্দ্রের
প্রতীকী চিত্র

নয়া দিল্লি: আগামী ডিসেম্বরের মধ্যেই দেশের সমস্ত নাগরিককে করোনা টিকা দেওয়ার লক্ষ্যমাত্রা নিয়ে এগোচ্ছে কেন্দ্র। এরই মধ্যে আশঙ্কা রয়েছে সংক্রমণের তৃতীয় ঢেউ আছড়ে পড়ারও। সেই কারণেই শিশুদের টিকাকরণের উপরও জোর দিচ্ছে কেন্দ্র। তবে প্রধান সমস্যা হয়ে দাঁড়িয়েছে টিকাই। কারণ ভারতে এখনও শিশুদের জন্য কোনও টিকা নেই।

১৩০ কোটি জনগণের মধ্যে একটি বড় অংশই ১২ থেকে ১৮ বছরের বয়সসীমার। তাদের টিকাকরণ কর্মসূচি এখনও শুরু হয়নি ভারতে। বিদেশে ১২ উর্ধ্বদের শরীরে ফাইজা়রের ভ্যাকসিন প্রয়োগের অনুমোদন মিললেও ভারতে এই টিকা আমদানি নিয়ে যথেষ্ট অনিশ্চয়তা রয়েছে। অন্যদিকে, ভারত বায়োটেক সংস্থার তরফে জানানো হয়েছে, তারা শিশুদের করোনা টিকা তৈরিতে আগ্রহী। ইতিমধ্যেই পরীক্ষামূলক ট্রায়ালের অনুমতিও মিলেছে।

১৩০ কোটি জনগণের মধ্যে ১০৪ কোটিই ১৮ বছরের কম বয়সী হওয়ায় বর্তমানে কেন্দ্রের প্রয়োজন ২০৮ কোটি ভ্যাকসিন। এত সংখ্যক ভ্যাকসিন জোগাড়ের বিষয়ে এক সরকারি সূত্র জানায়, কেন্দ্রের সঙ্গে ফাইজ়ার সংস্থার কথাবার্তা এখনও চলছে। আপাতত ৫ কোটি ভ্যাকসিন পাওয়ার কথা হয়েছে। তবে এই বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত এখনও নেওয়া হয়নি।

তবে ভারত বায়োটেকের করোনা টিকা যদি ২ থেকে ১৮ বছর বয়সীদের উপরও কার্যকর হয়, তবে শিশুদের টিকা সঙ্কট মেটানো অনেকটাই সম্ভব হবে বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। ইতিমধ্যেই কেন্দ্রের তরফে শিশুদের করোনা ও ব্ল্যাক ফাঙ্গাস চিকিৎসার জন্য নয়া গাইডলাইন প্রকাশ করা হয়েছে।

আরও পড়ুন: এ বার রাজধানীর নির্দিষ্ট হাসপাতালেও মিলবে স্পুটনিক-ভি, খরচ কত পড়বে জানেন? 

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla