মেয়াদের শেষকালে বেনজির সিদ্ধান্তে অনড় বিদায়ী প্রধান বিচারপতি এসএ বোবদে

প্রথা ভেঙে কলেজিয়াম বৈঠকের সিদ্ধান্তে অনড় এসএ বোবদে (SA Bobde)।

  • TV9 Bangla
  • Published On - 15:27 PM, 8 Apr 2021
মেয়াদের শেষকালে বেনজির সিদ্ধান্তে অনড় বিদায়ী প্রধান বিচারপতি এসএ বোবদে
ফাইল চিত্র

নয়া দিল্লি: সুপ্রিম কোর্টের পরবর্তী প্রধান বিচারপতি হচ্ছেন বিচারপতি এনভি রমন (NV Raman)। তাঁর নিয়োগে ইতিমধ্যেই সিলমোহর দিয়েছেন রাষ্ট্রপতি। বিদায়ী প্রধান বিচারপতি এস এ বোবদেই পরবর্তী প্রধান বিচারপতি হিসেবে এনভি রমনের নাম সুপারিশ করেছিলেন। তার আগেই সুপ্রিম কোর্টের অন্যান্য বিচারপতি ও হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতি নিয়োগ করার জন্য কলেজিয়াম বৈঠক ডাকার নোটিস জারি করেছিলেন বিচারপতি এসএ বোবদে। তবে প্রথামতো পরবর্তী প্রধান বিচারপতি স্থির হয়ে গেলে আর কলেজিয়াম বৈঠক করেন না সুপ্রিম কোর্টের বিদায়ী প্রধান বিচারপতিরা। কিন্তু সেই প্রথা ভেঙে কলেজিয়াম বৈঠকের সিদ্ধান্তে অনড় এসএ বোবদে।

তাঁর দাবি, পরবর্তী প্রধান বিচারপতিকে সুপারিশ করার আগেই এই বৈঠকের সিদ্ধান্ত হয়েছিল। তাই এ ক্ষেত্রে ভুল দেখছেন না বিচারপতি এস এ বোবদে। কিন্তু সুপ্রিম কোর্টের অন্য দুই বিচারপতি  তাঁর এই সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করেছেন। এমনটাই জানা গিয়েছে বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যম মারফত। কারণ বিগত বছরগুলিতে হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতি বা সুপ্রিম কোর্টের অন্যান্য বিচারপতি নিয়োগের ক্ষেত্রে সিদ্ধান্ত নেন পরবর্তী প্রধান বিচারপতি। এ বার সেই প্রথা ভাঙছে। বেনজির সিদ্ধান্তে অটুট বিদায়ী প্রধান বিচারপতি এসএ বোবদে। অন্যদিকে তাঁর এই কলেজিয়াম বৈঠকে বিচারপতি এনভি রমনের থাকা নিয়েও ধোঁয়াশা তৈরি হয়েছে। কারণ বৃহস্পতিবার সুপ্রিম কোর্টের কোর্ট নম্বর ২ বসেনি। এই কোর্ট নম্বর ২ পরিচালিত হয় বিচারপতি এনভি রমনের মাধ্যমে। তবে অন্য সূত্র মারফত এ-ও জানা গিয়েছে, কলেজিয়াম বৈঠকে উপস্থিত থাকতে পারেন বিচারপতি এনভি রমন।

এ বিষয়ে সুপ্রিম কোর্ট একটি বিবৃতি জারি করে জানিয়েছে, বিচারপতি এনভি রমন না থাকার জন্য বিচারপতি এনভি রমন ও বিচারপতি অনিরুদ্ধ বোসের নেতৃত্বাধীন কোর্ট নম্বর ২ বৃহস্পতিবার বন্ধ রয়েছে। কোনও শুনানি বা সওয়াল এ দিন হবে না। বৃহস্পতিবার বিকেল ৪টা থেকে এসএ বোবদের ডাকা এই কলেজিয়াম বৈঠক হওয়ার কথা। কিন্তু বিচারপতিরা এই বৈঠকের বিরোধিতা করে যে কারণ দেখাচ্ছেন, তা হল যেহেতু রাষ্ট্রপতি পরবর্তী বিচারপতির নিয়োগে সম্মতি দিয়েছেন, তাই এখন কোনও বিচারপতি নিয়োগে বিদায়ী প্রধান বিচারপতির সুপারিশ উপযুক্ত নয়। এই বিষয়ে প্রাক্তন প্রধান বিচারপতি আরএম লোধা এক সর্বভারতীয় সংবাদ মাধ্যমকে জানিয়েছেন, মেয়াদের একেবারে শেষে এসে বিদায়ী প্রধান বিচারপতি সুপারিশ করতে পারেন না। এ বিষয়ে অবসরপ্রাপ্ত বিচাকপতি অশোক গঙ্গোপাধ্যায় টিভি নাইন বাংলাকে জানিয়েছেন, বিচারপতি এস এ বোবদের মতো এই সিদ্ধান্ত এর আগে দেখা যায়নি। সাধারণত এমনটা হয় না। তাঁর মতে, রাষ্ট্রপতি যখন পরবর্তী বিচারপতির নিয়োগপত্রে সিলমোহর দিয়েছেন, তখন নিয়োগ সংক্রান্ত এই সিদ্ধান্ত নেওয়া উচিত পরবর্তী প্রধান বিচারপতির। উল্লেখ্য, বিদায়ী প্রধান বিচারপতি এসএ বোবদে ছাড়াও এই বছর সুপ্রিম কোর্ট থেকে অবসর নিচ্ছেন বিচারপতি অশোক ভূষণ, বিচারপতি রোহিন্তন নরিমান ও বিচারপতি নবীন সিনহা।

আগামী ২৩ এপ্রিল অবসর গ্রহণ করতে চলেছেন সুপ্রিম কোর্ট(Supreme Court)-এর বিদায়ী প্রধান বিচারপতি এসএ বোবদে। তাঁর অবসর গ্রহণের পর সেই পদে কে বসবেন, এই নিয়ে কেন্দ্রের তরফে তাঁকে প্রশ্ন করা হয়েছিল। এই বিষয়ে কেন্দ্রীয় আইনমন্ত্রী রবিশঙ্কর প্রসাদ (Ravi Shankar Prasad)-ও এস এ বোবদেকে চিঠি লিখেছিলেন। সেই চিঠির জবাব দিয়ে বিচারপতি এস এ  বোবদে বিচারপতি এনভি রমনের নাম প্রস্তাব করেছিলেন। নিয়ম অনুযায়ী, সুপ্রিম কোর্টের সবচেয়ে প্রবীণ বিচারপতিকেই প্রধান বিচারপতির পদে বসানো হয়। তাই বিচারপতি এসএ বোবদের পরে সবচেয়ে বর্ষীয়ান বিচারপতি হিসেবে এনভি রমনেরই প্রধান বিচারপতি হওয়ার কথা ছিল। সেই মতো রাষ্ট্রপতি তাঁকে নিয়োগ করায় পরবর্তী প্রধান বিচারপতি হতে চলেছেন বিচারপতি রমনই। ২০২২ সালের ২৬ অগস্ট অবধি তিনি এই পদে বহাল থাকবেন।

আরও পড়ুন: পরীক্ষা বাতিলের আর্জি দশম-দ্বাদশ শ্রেণির পড়ুয়াদের, কী সিদ্ধান্ত নিল সিবিএসই?