Mamata Banerjee: প্রধানমন্ত্রীর দফতরে গিয়ে ত্রিপুরা হিংসার নালিশ! পৌরভোটের আগের সন্ধেয় মমতার ‘সায়নী-তাস’

Mamata meets Modi: কিছুটা নালিশের সুরেই প্রধানমন্ত্রীর কাছে নিজের অভিযোগ তুলে ধরেন মমতা।

Mamata Banerjee: প্রধানমন্ত্রীর দফতরে গিয়ে ত্রিপুরা হিংসার নালিশ! পৌরভোটের আগের সন্ধেয় মমতার 'সায়নী-তাস'
নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে সাক্ষাৎ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের

নয়া দিল্লি : আগামিকাল ত্রিপুরায় পৌরভোট। আর তার আগে ফের একবার ত্রিপুরায় রাজনৈতিক হিংসার অভিযোগ উসকে দিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্য়ায়। আজ সন্ধ্যায় প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক শেষে বেরিয়ে মমতা জানালেন, ত্রিপুরার সাম্প্রতিক রাজনৈতিক পরিস্থিতি নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কিছুটা নালিশের সুরেই প্রধানমন্ত্রীর কাছে নিজের অভিযোগ তুলে ধরেন মমতা।

আগামিকাল ত্রিপুরার পৌরভোট রয়েছে। আর এই পৌরভোট ত্রিপুরার কাছে কার্যত লিটমাস টেস্ট। ২০২৩ সালের ত্রিপুরা নির্বাচনের আগে নিজেদের পায়ের তলার মাটি কতটা শক্ত হয়েছে, তার পরীক্ষা এই পৌরভোট। আর এই পৌর নির্বাচনকে কেন্দ্র করেই কার্যত ধুন্ধুমার পরিস্থিতি ত্রিপুরায়। সম্প্রতি যুব তৃণমূলের সভানেত্রী সায়নী ঘোষকে গ্রেফতার করা হয়েছিল। আজ প্রধানমন্ত্রী সঙ্গে বৈঠকে সেই প্রসঙ্গেও নরেন্দ্র মোদীর দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন। মমতা জানিয়েছেন, “সায়নীর মতো এমন জনপ্রিয় শিল্পীকে গ্রেফতার করা হচ্ছে। এই নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করেছি।”

উল্লেখ্য, সায়নী ঘোষের গ্রেফতারির প্রতিবাদে সম্প্রতি কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহর দফতরের সামনেও ধরনায় বসেছিলেন তৃণমূল সাংসদরা। দীর্ঘক্ষণ ধরে নর্থ ব্লকে ধরনা চালানোর পর অবশেষে আজ বিকেলে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহর (Amit Shah) সঙ্গে সাক্ষাতের সময় পান তৃণমূল সাংসদরা। সেই বৈঠক শেষে বেরিয়ে  তৃণমূল সাংসদরা জানিয়েছিলেন, কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীও তাঁদের আশ্বাস দিয়েছেন, ত্রিপুরায় আর হিংসা হবে না।

অমিত শাহ বৈঠকে তৃণমূল সাংসদদের জানিয়েছিলেন, তিনি অপর পক্ষ অর্থাৎ, ত্রিপুরা প্রশাসনের বক্তব্যও শুনবেন এই বিষয়ে। দুই পক্ষের বক্তব্য শোনার পর অমিত শাহ এই বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেবেন বলে আশ্বাস দিয়েছেন সাংসদদের।

তৃণমূলের যুব নেত্রী সায়নী রবিবার গ্রেফতার করে ত্রিপুরা পুলিশ। পুলিশের বক্তব্য, বিজেপির কর্মী ও সমর্থকদের গাড়ি দিয়ে ধাক্কা দেওয়ার অভিযোগ রয়েছে সায়নীর বিরুদ্ধে। তাঁর বিরুদ্ধে অনিচ্ছাকৃত খুনের চেষ্টার অভিযোগ তোলা হয়েছে। তৃণমূলের বক্তব্য ছিল, সায়নীকে মিথ্যা মামলায় ফাঁসানো হচ্ছে। অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের সভা বানচাল করার জন্য এই ধরনের মিথ্যা অভিযোগ করা হচ্ছে বলে অভিযোগ। এমনকী, পুলিশ বিজেপির নির্দেশ মতো কাজ করছে বলেও অভিযোগ তোলা হচ্ছিল। যদিও সায়নীকে আদালতে পেশ করা হলে তাঁকে জামিন দেন বিচারক।

বিষয়টি গড়িয়েছে সুপ্রিম কোর্ট পর্যন্তও। ত্রিপুরা পুলিশকে কার্যত সতর্ক করে দিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট। ভোটগ্রহণ পর্ব থেকে শুরু করে ফল ঘোষণা, গোটা প্রক্রিয়া যাতে নির্বিঘ্নে সম্পূর্ণ হয়, তা নিশ্চিত করতে নিরাপত্তা ব্যবস্থা আরও বাড়ানোর জন্য বলা হয়েছে ত্রিপুরা পুলিশকে।

আরও পড়ুন : Mamata meets Modi: প্রধানমন্ত্রীর দরবারে বিএসএফের এক্তিয়ার বাড়ানোর সিদ্ধান্ত প্রত্যাহারের আর্জি মমতার

আরও পড়ুন : Rahul on corona death: করোনায় মৃতদের ৪ লক্ষ টাকা ক্ষতিপূরণ দেওয়ার দাবিতে সরব রাহুল গান্ধী

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla