নির্বাচনের ফল বেরতেই রাজ্য জুড়ে ধুন্ধুমার, অশান্তি রুখতে একাধিক জেলায় জারি ১৪৪ ধারা

গতকালই ত্রিপুরা উপজাতি অধ্যুষিত জেলা পরিষদ নির্বাচনের ফল প্রকাশ হয়। এই নির্বাচনে বিজেপি-আইপিএফটি জোটকে হারিয়ে জয়ী হয় নতুন দল তিপরা। তবে ফল প্রকাশের কিছুক্ষণের মধ্যেই একাধিক জেলায় হিংসার আবহ তৈরি হয়।

নির্বাচনের ফল বেরতেই রাজ্য জুড়ে ধুন্ধুমার, অশান্তি রুখতে একাধিক জেলায় জারি ১৪৪ ধারা
একাধিক দলীয় কার্যালয়, দোকানপাটে ভাঙচুর চালানো হয়েছে।

আগরতলা: নির্বাচনের ফল প্রকাশের কয়েক ঘণ্টা কাটতে না কাটতেই রাজ্যজুড়ে ছড়িয়ে পড়ল অশান্তি। পরিস্থিতি এতটাই ভয়াবহ হয়ে ওঠে যে রাজ্য প্রশাসনের তরফে একাধিক এলাকায় প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়।

গত ৬ এপ্রিল ত্রিপুরা উপজাতি অধ্যুষিত জেলা পরিষদ নির্বাচন (Tripura Autonomous District Council poll) হয়। গতকাল তার ফল প্রকাশ হয়। দেখা যায়, ত্রিপুরা রাজ পরিবারের উত্তরসূরী প্রদ্যোত দেববর্মনের দল তিপরা ২৮টি আসনের মধ্যে ১৮টি আসনে জয়লাভ করেছে। বিজেপি-আইপিএফটি জোট পেয়েছে নয়টি আসন। একটি আসনে জয়লাভ করেছে নির্দল প্রার্থী। একটিও আসনে জয়লাভ করতে পারেনি গতবারের শাসক দল বাম। খাতা শূন্য কংগ্রেসেও।

এ দিকে, ফল প্রকাশের পরই মোহনপুর, খোয়াই, গোমতি ও জিরানিয়ায় উত্তেজনা ছড়ায়। দফায় দফায় বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ বাধে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশ নামলে বিভিন্ন জায়গায় আক্রমণের মুখে পড়ে। এরপরই জোশাসককে কড়া পদক্ষেপের আবেদন জানায় পুলিশ।

ত্রিপুরা পশ্চিমের জেলাশাসক শৈলেশ কুমার যাদব মোহনপুর ও জিরজিনায় দ্রুত পরিস্থিতি স্বাবাবিক করার নির্দেশ দেন। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে না এলে সাধারণ মানুষের সুরক্ষা ও শান্তি বজার রাখার লক্ষ্যে যাতায়াতে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হবে। শনিবার বিকেল থেকে রবিবার অবধি এই দুই অঞ্চলে ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে। একইভাবে খোয়াই ও গোমতী জেলা প্রশাসনও অবাধ যাতায়াতে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে। খোয়াইয়ের একাধিক ব্লকে শনিবার থেকে ১৩ এপ্রিল অবধি প্রতিদিন পাঁচঘণ্টার জন্য এই নিষেধাজ্ঞা লাগু করা হয়েছে। গোমতীতে ১২ এপ্রিল অবধি ১৪৪ ধারা ধারা জারি রয়েছে।

এই নির্দেশিকা অনুযায়ী, কোনও এলাকায় পাঁচজনের বেশি জমায়েত করা যাবে না। অন্যদিকে, সদ্য পরাজিত বিজেপি দলীয় কর্মী এবং দলের সম্পত্তির সুরক্ষায় পুলিশ বাহিনী মোতায়েনের আবেদন জানিয়েছে। তাঁদের অভিযোগ, ফল প্রকাশের পরই দুষ্কৃতীরা দলীয়কর্মীদের উপর চড়াও হয়। একাধিক দলীটয় কার্যালয়, দোকান ও সরকারি সম্পত্তি নষ্ট করা হয়েছে।

আরও পড়ুন: ‘আম খান, আমজনতাকে ছেড়ে দিন’, নতুন ভঙ্গিতে নমোকে আক্রমণ রাহুলের

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla