Sukanta Majumder: ‘দিদি রাজনৈতিক সফরে ব্যস্ত আর বাংলায় খেলা হচ্ছে’, দুবরাজপুরের বোমাবাজির ঘটনায় কটাক্ষ সুকান্তের

Sukanta Majumder: সোশ্যাল মিডিয়া পোস্টে সুকান্ত মজুমদারের কটাক্ষ, 'এটাই বাংলায় চলা মমতা'র খেলা হবে মডেল। কোনও আইন শৃঙ্খলা নেই।'

Sukanta Majumder: 'দিদি রাজনৈতিক সফরে ব্যস্ত আর বাংলায় খেলা হচ্ছে', দুবরাজপুরের বোমাবাজির ঘটনায় কটাক্ষ সুকান্তের
দুবরাজপুরের ঘটনায় তৃণমূলকে কটাক্ষ সুকান্তের। ফাইল চিত্র।

কলকাতা: মঙ্গলবার তৃণমূলেরই (TMC) দুই গোষ্ঠীর সংঘর্ষে উত্তপ্ত পরিস্থিতি তৈরি হয় বীরভূমের দুবরাজপুরে। দুবারজপুর ব্লকের পদুমা পঞ্চায়েতের গাঁড়া গ্রামে দুই গোষ্ঠীর প্রবল বোমাবাজিতে ধোঁয়া আর বিকট শব্দে ভরে যায়। সেই ঘটনায় রাজ্যের শাসক দলকে কটাক্ষ করে টুইট করলেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি সুকান্ত মজুমদার (Sukanta Majumder)। সোশ্যাল মিডিয়া পোস্টে তাঁর কটাক্ষ, ‘এটাই বাংলায় চলা মমতা’র খেলা হবে মডেল। কোনও আইন শৃঙ্খলা নেই।’

সুকান্ত ঠিক কী লিখেছেন টুইটারে?

টুইটে বিজেপির রাজ্য সভাপতির কটাক্ষ, “দিদি যখন রাজনৈতিক সফরে ব্যস্ত তৃণমূলের গুন্ডারা তখন বাংলায় বোমা নিয়ে খেলছে। মানুষ তথা সারা বাংলা ভুক্তভোগী।” সেই পোস্টের শেষে পুজা মেহেতার পোস্ট করা একটি ভিডিয়ো রিটুইট করেছেন বালুরঘাটের সাংসদ।

প্রসঙ্গত, তৃণমূলের অঞ্চল সভাপতি মুকুল মণ্ডল ও কার্যকরি সভাপতি তরুন গড়াই-এর গোষ্ঠীর মধ্যেই দ্বন্দ্ব থেকেই দুবরাজপুরে এই বোমাবাজির ঘটনার সূত্রপাত। এদিন বোমাবাজিতে অন্তত ৬ জনের আহত হওয়ার খবর মিলেছে। যদিও তৃণমূল এই সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করেছে। তারা জানিয়েছে, এই গন্ডগোল আর বোমাবাজির ঘটনার সঙ্গে তাদের কোনও সম্পর্ক নেই। তারা উল্টে বিজেপির দিকে আঙুল তুলেছে।

এদিকে বিজেপি নেতা জয়প্রকাশ মজুমদার এই ঘটনার প্রেক্ষিতে বলেন, ‘যদি বিজেপির গোষ্ঠী সংঘর্ষ হয়, তাহলে মানতে হবে যে ওই এলাকায় বিজেপি খুব শক্তিশালী।’ তাঁর কথায়, “ওই এলাকায় অনুব্রত মণ্ডল ভোট ম্যানেজ করান। আর ভোট মিটলেই চলে বোমাবাজি।” তাঁর আরও কটাক্ষ, ‘সব লোক জানে কাটমানি, জমি নিয়ে তৃণমূলের দুই গোষ্ঠীর মধ্যেই বিবাদ চলছে। পুলিশ কোথায়, তৃণমূলকেই এর উত্তর দিতে হবে।’

আরও পড়ুন: Jakkir hossain: জাকিরের বক্তব্যে ফের অস্বস্তিতে ঘাসফুল শিবির! তৃণমূল পরিচালিত পৌরসভার দুর্নীতি নিয়ে চাঁচাছোলা ভাষায় আক্রমণ 

সেই ঘটনার রেশ ধরে এবার তৃণমূলকে তুলোধোনা করে টুইট রাজ্য বিজেপি সভাপতি সুকান্ত মজুমদারেরও। অভিযোগ করলেন রাজ্যে আইনের শাসন নেই। যদিও বীরভূম জেলা পুলিশ সুপার নগেন্দ্র ত্রিপাঠি বলেন, গোটা ঘটনায় ইতিমধ্যেই ৭ জন আটক করা হয়েছে। গ্রামে পুলিশ বাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে। গোটা ঘটনার তদন্ত চলছে বলেও জানিয়েছেন তিনি।

আরও পড়ুন: ‘বাড়ি বাড়ি ঘুরে হাততালি কারা দেয়’, সংবিধানকে অপমান করছেন দিলীপ-কুণালরা? প্রশ্ন বৃহন্নলাদের 

আরও পড়ুন: TMC Clash: তৃণমূলের দুই গোষ্ঠীর মধ্যে তুমুল সংঘর্ষ, ভর দুপুরে চলল বোমা-গুলি, আহত ৬ 

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla