জানা গেল আসল কারণ, মিন্টোপার্কে ব্যবসায়ীকে গুলি চালনায় গ্রেফতার মূল অভিযুক্ত

Kolkata Shootout: মঙ্গলবার রাতে ভবানীপুর থানা এলাকা থেকে গ্রেফতার করে লালবাজারের গুনদাদমন শাখা। ঘটনার পর থেকে পলাতক ছিল বিশাল সর্দার।

জানা গেল আসল কারণ, মিন্টোপার্কে ব্যবসায়ীকে গুলি চালনায় গ্রেফতার মূল অভিযুক্ত
মিন্টো পার্ক গুলি চালনায় গ্রেফতার মূল অভিযুক্ত (নিজস্ব চিত্র)


কলকাতা: মিন্টোপার্কে (Kolkata Shootout) হাওড়ার ব্যবসায়ীকে গুলি করার ঘটনায় এবার পুলিশের জালে মূল অভিযুক্ত। ধৃতের নাম বিশাল সর্দার। মঙ্গলবার রাতে ভবানীপুর থানা এলাকা থেকে গ্রেফতার করে লালবাজারের গুনদাদমন শাখা। ঘটনার পর থেকে পলাতক ছিল বছর বাইশের বিশাল সর্দার।

জানা গিয়েছে, গণেশ পুজোর বিসর্জনকে কেন্দ্র করেই ঝামেলার সূত্রপাত। বাইক ও গাড়ির রেষারেষি চলছিল। সেখানে রনিত গুপ্ত নামে এক যুবকের সঙ্গে মূলত হাওড়ার ব্যবসায়ী পঙ্কজের ঝামেলার সূ্ত্রপাত। রনিত গুপ্তকে চড় মারার অভিযোগ ওঠে। এরপর রনিত তাঁর পাড়ার ছেলেদের খবর দেন। পাড়ার ছেলেরা পঙ্কজের গাড়ি লক্ষ্য করে আসতে থাকে। গড়ফা সদনের কাছে তাঁর গাড়ি দাঁড় করানো হয়। ফের শুরু হয় বচসা। আর তারপরই পঙ্কজকে লক্ষ্য করে বিশাল গুলি চালায় বলে অভিযোগ। ওই এলাকায় সিসিটিভি ফুটেজ খতিয়ে দেখেছেন তদন্তকারীরা।


রবিবার রাতে মিন্টো পার্কের (Minto Park) কাছে গোর্কি সদনের সামনে হাওড়ার ব্যবসায়ী পঙ্কজ সিং (Pankaj Singh)-কে লক্ষ্য করে গুলি চালায় দুষ্কৃতীরা। একেবারে বলিউডি কায়দায় প্রথমে ঘিরে ফেলা হয় ব্যবসায়ীর গাড়ি। বেশ কিছুক্ষণ ধরে চলে বচসাও। এরই মধ্যে সুযোগ বুঝে পঙ্কজকে লক্ষ্য করে গুলি চালায় দুষ্কৃতীরা। তবে কাঁধে গুলি লাগায় প্রাণে বেঁচে গিয়েছেন ওই ব্যবসায়ী। গুলিবিদ্ধ অবস্থায় তাঁকে সিএমআরআই হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। পরিকল্পনামাফিক গুলি চালানো হয়েছে বলে দাবি আত্মীয় ও বন্ধুদের। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

বছর ৩৮-এর পঙ্কজ সিং হাওড়ার একজন বড় ব্যবসায়ী বলে জানা গিয়েছে। হাওড়া থেকে কয়েকজন বন্ধুকে নিয়ে কোনও এক বন্ধু বাড়িতে এসেছিলেন তিনি। গাড়িতে বাড়ি ফেরার সময়ই এই ঘটনা ঘটে। গোর্কি সদনের সামনে এজেসি বোস রোড ফ্লাই ওভারের নিচে সিগন্যালের কাছে এসে দাঁড়ায় ওই ব্যবসায়ীর গাড়ি। আচমকাই সেই গাড়ি ঘিরে ফেলে চার থেকে পাঁচটি বাইক। প্রত্যেকটি বাইকে তিনজন করে ছিল বলে জানিয়েছেন প্রত্যক্ষদর্শীরা। গাড়ি থামতেই বাইক থেকে নেমে আসে দুষ্কৃতীরা। সব মিলিয়ে অন্তত ১০-১৫ জন ছিল বলে দাবি করেছেন ব্যবসায়ীর বন্ধুরা। জানা গিয়েছে, এই ব্যবসায়ীর প্রোমোটিং সংক্রান্ত ব্যবসা সহ একাধিক ব্যবসা রয়েছে।

কী কারণে গুলি করা হয়েছে হাওড়ার ব্যবসায়ী পঙ্কজ সিংকে, তার কারণ নিয়ে ধন্দে থাকে পরিবার। মিন্টো পার্ক  (Minto Park) শুটআউটে (Shootout) আক্রান্ত ব্যবসায়ীর পরিবারের সদস্যদের তরফেও তেমন কোনও ‘ক্লু’ পাওয়া যায় না।

ওই ব্যবসায়ীর মা শ্রীলক্ষী সিং বলেন, “আমি রাতে ঘটনার কথা কিছুই জানতাম না। সকালে আমার ছোট ছেলে আমাকে ফোন করে জানায় গুলি লাগার কথা। আমি যতদূর জানি পঙ্কজের কোনও ব্যবসায়িক শত্রুতা ছিল না। আমরা কিছুতেই বুঝতে পারছি না কারা এই ঘটনা ঘটাল!”

গুলিবিদ্ধ ব্যবসায়ী পঙ্কজের আবাসনেই থাকেন উত্তর হাওড়ার বিধায়ক গৌতম চৌধুরী। তিনি এই ঘটনার কার্যত হতবাক। তিনি বলেন, “আমি দীর্ঘদিন ধরে পঙ্কজ ও তার পরিবারকে চিনি। একই আবাসনের বাসিন্দা আমরা। তাই ছোটবেলা থেকেই ওর পরিবারের সঙ্গে সখ্যতা। এলাকায় নির্বিবাদী ছেলে বলেই পরিচিত। পরিবারও অত্যন্ত ভদ্র। ওদের ৩০ বছরেরও বেশি কাপড়ের ব্যবসা। কোনওদিন এমন ঘটনা ঘটেনি।”

আরও পড়ুন: তিন শিশুর মৃত্যুর পরও জানা গেল না কোন জ্বর! আক্রান্ত পাঁচ শতাধিক

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla