Coron in Kolkata: দৈনিক সংক্রমণ নিম্নমুখী, অনেকটাই কমল কলকাতার কনটেনমেন্ট জো়নের সংখ্যা

Coron in Kolkata: কলকাতায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে চলেছে। এরই মধ্যে কমানো হল কনটেনমেন্ট জোন।

Coron in Kolkata: দৈনিক সংক্রমণ নিম্নমুখী, অনেকটাই কমল কলকাতার কনটেনমেন্ট জো়নের সংখ্যা
বাংলায় পজিটিভিটি রেট অনেক বেশি

কলকাতা : রাজ্যে করোনা সংক্রমণ কিছুটা কমেছে। কলকাতার করোনা চিত্রে সেই প্রভাব পড়েছে। কলকাতায় প্রতিদিনই করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বাড়তে থাকলেও সোমবার নতুন আক্রান্তের সংখ্যা কিছুটা স্বস্তি দিয়েছে। তবে গত কয়েকদিনে একাধিক করোনা আক্রান্তের মৃত্যু হয়েছে শহরে। এরই মধ্যে কমানো হল কনটেনমেন্ট জো়নের সংখ্যা। কলকাতার কনটেনমেন্ট জো়নের সংখ্যা ৫০ থেকে একধাক্কায় কমে হল ২৯।

নতুন করে সংক্রমণ বাড়তেই কলকাতায় ফেরানো হয় কনটেনমেন্ট জ়োন। শহরের ২৫ টি জায়গাকে প্রাথমিকভাবে মাইক্রো কনটেনমেন্ট জ়োন হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছিল কলকাতা পুর নিগমের তরফে। যার মধ্যে ছিল শহরের একাধিক বহুতল। পরে আক্রান্তের সংখ্যা বাড়তে থাকায় সেই কনটেনমেন্ট জ়োনের সংখ্য়াও বাড়তে থাকে। কিন্তু, এবার সেই সংখ্যা কমানো হল। মঙ্গলবার কনটেনমেন্ট জ়োনের যে তালিকা প্রকাশ্যে এসেছে, তাতে দেখা যাচ্ছে, ২৯ টি এলাকাকে চিহ্নিত করা হয়েছে।

ফুলবাগান এলাকায় ৬টি, মানিকতলা এলাকায় ১ টি, বালিগঞ্জে ১ টি, ভবানীপুরে ২ টি, টালিগঞ্জে ২ টি, বন্দর এলাকায় ৮টি, নিউ আলিপুরে ১ টি, গড়ফায় ১ টি, নেতাজী নগরে ১ টি, বেহালায় ১ টি ও সরশুনায় ৪ টি জায়গাকে কনটেনমেন্ট জ়োনের তালিকায় রাখা হয়েছে।

এ দিকে গত কয়েকদিনের পরিসংখ্যান দেখলে বোঝা যাবে, রাজ্যে করোনা আক্রান্তের সংখ্যার  কমার সঙ্গে সঙ্গে নিম্নমুখী হয়েছে কলকাতা সংক্রমণের গ্রাফ। শনিবারের পর রবিবার আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে গেলেও সোমবার ফের সেই সংখ্যাটা অনেকটাই কমেছে। শনিবার কলকাতায় দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যা ছিল ৭৩৩৭ জন, রবিবার আক্রান্তের সংখ্যা ছিল ৮৭১২ জন ও সোমবার সেই সংখ্যাটা কমে হয়েছে ৫৫৫৬ জন। এরপরই কমল কনটেনমেন্ট জ়োনের সংখ্যা।

কলকাতা পুরনিগমের তরফে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল, যে সব অঞ্চলে অন্তত ৫ জন করোনা আক্রান্তের খোঁজ পাওয়া গেলে সেই জায়গাকে মাইক্রো কনটেনমেন্ট জ়োন হিসেবে চিহ্নিত করা হবে। এরপরই কনটেনমেন্ট জ়োন তৈরির প্রক্রিয়া শুরু হয়।

এ দিকে সোমবারের বুলেটিন অনুযায়ী, রাজ্যে সামান্য কমেছে দৈনিক সংক্রমণ। ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে সংক্রমিত হন ১৯ হাজার ২৮৬ জন। তবে পজিটিভিটি রেটে জেট গতি অব্যাহত রয়েছে। সোমবার রাজ্যে পজিটিভিটি রেট ছিল ৩৭.৩২ শতাংশ। রবিবার নমুনা পরীক্ষাও শনিবারের তুলনায় অনেকটাই কম হয়েছে। সেই কারণে সংক্রমণ কম কি না, সেই প্রশ্নও রয়ে গিয়েছে।

রবিবার রেকর্ড সংখ্যক নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছিল। মোট ৭১ হাজার ৬৬৪টি নমুনার মধ্যে ২৪ হাজার ২৮৭টি পজিটিভ আসে। সোমবার ৫১ হাজার ৬৭৫টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এর মধ্যে পজিটিভ আসে ১৯ হাজার ২৮৬টি।

আরও পড়ুন : Asansole Municipal Election: ফের পুলিশি বাধা মিছিলে, রাস্তায় বসে পড়ে দিলীপ বললেন, ‘আমি আর কী করব?’

Published On - 6:12 pm, Tue, 11 January 22

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla