Shah Rukh Khan: কিং খানের এমন ৫ ছবি যা মুক্তি পেল না কখনও…

এমন কোনও বলিস্টার নেই যার ছবি ঘোষণা হয়েও কোনওদিন মুক্তি পায়নি। হয় মাঝপথে প্রযোজকের পিছু হটা বা অন্য কোনও কারণে 'হোল্ড' হয়ে গিয়েছে সেই সব প্রজেক্ট। কিং খানের ক্ষেত্রেও চিত্রটা এক। দেখে নেওয়া যাক, শাহরুখের এমন ৫ ছবি যা দিনের আলো দেখেনি কখনও।

1/6
বলিউড-- এখানে প্রায় রোজ নতুন ছবির ঘোষণা হয়। কিন্তু তার মধ্যে হাতেগোনা খানকতক ছবিই দেখতে পায় মুক্তির আলো। এমন কোনও বলিস্টার নেই যার ছবি ঘোষণা হয়েও কোনওদিন মুক্তি পায়নি। হয় মাঝপথে প্রযোজকের পিছু হটা বা অন্য কোনও কারণে 'হোল্ড' হয়ে গিয়েছে সেই সব প্রজেক্ট। কিং খানের ক্ষেত্রেও চিত্রটা এক। দেখে নেওয়া যাক, শাহরুখের এমন ৫ ছবি যা দিনের আলো দেখেনি কখনও।
বলিউড-- এখানে প্রায় রোজ নতুন ছবির ঘোষণা হয়। কিন্তু তার মধ্যে হাতেগোনা খানকতক ছবিই দেখতে পায় মুক্তির আলো। এমন কোনও বলিস্টার নেই যার ছবি ঘোষণা হয়েও কোনওদিন মুক্তি পায়নি। হয় মাঝপথে প্রযোজকের পিছু হটা বা অন্য কোনও কারণে 'হোল্ড' হয়ে গিয়েছে সেই সব প্রজেক্ট। কিং খানের ক্ষেত্রেও চিত্রটা এক। দেখে নেওয়া যাক, শাহরুখের এমন ৫ ছবি যা দিনের আলো দেখেনি কখনও।
2/6
ছবির নাম 'কিসি সে দল লাগা কার তো দেখো'। ১৯৯৬ সালে ওই ছবির ঘোষণা হয়ে গিয়েছিল। কিন্তু মুক্তি পেল না কোনওদিন। পরিচালক হিসেবে থাকার কথা ছিল কল্পতরুর। সহঅভিনেত্রী ছিলেন মধু ও আয়েশা ঝুলকা। ঠিক হয়ে গিয়েছিল মিউজিক কম্পোজারের নামও। দায়িত্ব পড়েছিল রাজেশ রোশনের উপর।
ছবির নাম 'কিসি সে দল লাগা কার তো দেখো'। ১৯৯৬ সালে ওই ছবির ঘোষণা হয়ে গিয়েছিল। কিন্তু মুক্তি পেল না কোনওদিন। পরিচালক হিসেবে থাকার কথা ছিল কল্পতরুর। সহঅভিনেত্রী ছিলেন মধু ও আয়েশা ঝুলকা। ঠিক হয়ে গিয়েছিল মিউজিক কম্পোজারের নামও। দায়িত্ব পড়েছিল রাজেশ রোশনের উপর।
3/6
কুছ কুছ হোতা হ্যায়-এর সাফল্যের পর ওই ছবির অ্যানিমেটেড ভার্সন বানানোর কথা বলেছিলেন করণ। নামও ঠিক হিয়ে গিয়েছিল। 'কুচি কুচি হোতা হ্যায়'... কিন্তু অজানা কারণে ওই ছবির প্ল্যান বাতিল হয়ে যায়।
কুছ কুছ হোতা হ্যায়-এর সাফল্যের পর ওই ছবির অ্যানিমেটেড ভার্সন বানানোর কথা বলেছিলেন করণ। নামও ঠিক হিয়ে গিয়েছিল। 'কুচি কুচি হোতা হ্যায়'... কিন্তু অজানা কারণে ওই ছবির প্ল্যান বাতিল হয়ে যায়।
4/6
ছবির নাম আহাম্মক। মুক্তি পাওয়ার কথা ছিল ১৯৯১ সালে। ছবি বড় পর্দায় মুক্তি পায়নি। তবে বহু বছর পর  মুম্বই চলচ্চিত্র উৎসবে ওই ছবি দেখানো হয়েছিল।
ছবির নাম আহাম্মক। মুক্তি পাওয়ার কথা ছিল ১৯৯১ সালে। ছবি বড় পর্দায় মুক্তি পায়নি। তবে বহু বছর পর মুম্বই চলচ্চিত্র উৎসবে ওই ছবি দেখানো হয়েছিল।
5/6
ছবির নাম ছিল শিখর। পরিচালনা করার কথা ছিল সুভাষ ঘাইয়ের। শাহরুখের বিপরীতে থাকার কথা ছিল মাধুরীর। কিন্তু ত্রিমূর্তির অসফলতার পর সেই প্ল্যান ভেস্তে যায়। পরে যদিও অনুরূপ একটি ছবি সুভাষ ঘাই বানিয়েছিলেন। কিন্তু সেই ছবিতে শাহরুখকে কাস্ট করেননি তিনি। অক্ষয় খান্না ও ঐশ্বর্যাকে নিয়েছিলেন সেই ছবিতে। ছবির নাম শিখরের বদলে রেখেছিলেন তাল।
ছবির নাম ছিল শিখর। পরিচালনা করার কথা ছিল সুভাষ ঘাইয়ের। শাহরুখের বিপরীতে থাকার কথা ছিল মাধুরীর। কিন্তু ত্রিমূর্তির অসফলতার পর সেই প্ল্যান ভেস্তে যায়। পরে যদিও অনুরূপ একটি ছবি সুভাষ ঘাই বানিয়েছিলেন। কিন্তু সেই ছবিতে শাহরুখকে কাস্ট করেননি তিনি। অক্ষয় খান্না ও ঐশ্বর্যাকে নিয়েছিলেন সেই ছবিতে। ছবির নাম শিখরের বদলে রেখেছিলেন তাল।
6/6
শাহরুখের আরও এক বিগ প্রজেক্ট যা দিনের আলো দেখেনি কখনও তা হল রস্ক। ২০০১ সালে ওই ছবির ঘোষণা হয়েছিল। থাকার কথা ছিল জুহি চাওলা ও ঐশ্বর্যা রাই বচ্চনের। কিন্তু ওই ছবিও আর মুক্তি পেল না কোনওদিন। কেন? তা অবশ্য কেউ জানেন না।
শাহরুখের আরও এক বিগ প্রজেক্ট যা দিনের আলো দেখেনি কখনও তা হল রস্ক। ২০০১ সালে ওই ছবির ঘোষণা হয়েছিল। থাকার কথা ছিল জুহি চাওলা ও ঐশ্বর্যা রাই বচ্চনের। কিন্তু ওই ছবিও আর মুক্তি পেল না কোনওদিন। কেন? তা অবশ্য কেউ জানেন না।

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla