শ্বশুরবাড়িতে গিয়ে ঝামেলা, গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা জামাইয়ের

দিন তিনেক আগে উৎপল স্ত্রীকে নিয়ে শ্বশুর বাড়ি খাদিমপুর বটতলায় যায়। কিন্তু মঙ্গলবার একা ফিরে আসেন বাড়িতে। তার পর বাড়ি থেকে বেরোননি।

শ্বশুরবাড়িতে গিয়ে ঝামেলা, গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা জামাইয়ের
প্রতীকী চিত্র।

বালুরঘাট: শ্বশুরবাড়িতে গিয়ে স্ত্রীর সঙ্গে বচসা বেধেছিল। রেগেমেগে বাড়ি ফিরে আসেন যুবক। তারপরই গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা। মঙ্গলবার দুপুরে এমনই ঘটনা ঘটেছে দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার বালুরঘাট ব্লকের চকভৃগু গ্রাম পঞ্চায়েতের রেললাইন হঠাৎপাড়া এলাকায়। মৃত ওই যুবকের নাম উৎপল সিং (২৫)।

জানা গিয়েছে, পেশায় দিনমজুর উৎপল সিং বছর পাঁচেক আগে বিয়ে করেন। তাঁর শ্বশুরবাড়ি বালুরঘাট খাদিমপুর এলাকায়। তাঁদের একটি সন্তান রয়েছে। প্রতিবেশীদের দাবি, বিয়ের পর থেকেই নানা কারণ-অকারণে স্বামী-স্ত্রীর ঝামেলা লেগেই থাকত। আর স্বামীর সঙ্গে ঝগড়া হলেই স্ত্রী বাপের বাড়ি চলে যেতেন। তবে আবার সব ঠিক হয়ে যেত বলে দাবি তাঁদের।

দিন তিনেক আগে উৎপল স্ত্রীকে নিয়ে শ্বশুর বাড়ি খাদিমপুর বটতলায় যায়। কিন্তু মঙ্গলবার একা ফিরে আসেন বাড়িতে। তার পর বাড়ি থেকে বেরোননি। এর মধ্যে তাঁর ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার করে প্রতিবেশীরা। খবর দেওয়া হয় পুলিশকে।

আরও পড়ুন: স্বামী খুনের ১০ বছর পর স্ত্রীর রহস্যমৃত্যু! চাঞ্চল্য কুলতলিতে

বালুরঘাট থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে দেহটি উদ্ধার করে তা ময়নাতদন্তের জন্য বালুরঘাট জেলা হাসপাতালে পাঠায়। প্রাথমিক ভাবে পুলিশের অনুমান, দাম্পত্য কলহের জেরেই গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেছেন ওই যুবক। স্ত্রী ও শ্বশুরবাড়ির লোকজনদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। মাত্র ২৫ বছরের ওই যুবকের মৃত্যুতে এলাকায় শোকের আবহ।

আরও পড়ুন: বউ খুঁজে দেওয়ার দাবিতে গাছের মগডালে মদ্যপ, পুলিশ পারেনি, নামাল মৌমাছি

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla