পূর্ব মেদিনীপুর থেকে ১০০ ছেলে পাঠালে গোটা আগরতলা ঠান্ডা হয়ে যাবে: সায়নী ঘোষ

Sayooni Ghosh: "জেলা সফরে এসে মনে হচ্ছে পূর্ব মেদিনীপুর থেকে ১০০ জন ছেলে পাঠিয়ে দিলে গোটা আগরতলা ঠান্ডা হয়ে যাবে। ১০০টা ছেলে মেদিনীপুর থেকে পাঠিয়ে দিলে ত্রিপুরার বিজেপিকে কীভাবে সাফ করতে হয়, এখানকার ছেলেরা শিখিয়ে দেবে।''

পূর্ব মেদিনীপুর থেকে ১০০ ছেলে পাঠালে গোটা আগরতলা ঠান্ডা হয়ে যাবে: সায়নী ঘোষ
পূর্ব মেদিননীপুরে সায়নী ঘোষ

পূর্ব মেদিনীপুর: সোমবার শুভেন্দু  (Suvendu Adhiakri)-র গড় কাঁথিতে দাঁড়িয়ে তাঁকে তীব্র নিশ না করেছিলেন যুব তৃণমূলের রাজ্য সভাপতি সায়নী ঘোষ (Sayooni Ghsoh)। আবার নিজের দলের ‘গদ্দার’দের খুঁজে চা বওয়ানোর কাজ করার নিদান দিয়েছিলেন নেত্রী। এবার সুতাহাটায় কর্মীদের জনসমাগম দেখে খুশি তিনি। সেখান থেকে তাঁর হুঁশিয়ারি, ‘পূর্ব মেদিনীপুর থেকে ১০০ ছেলে পাঠালে গোটা আগরতলা ঠান্ডা হয়ে যাবে।’

মঙ্গলবার তমলুক সাংগঠনিক জেলার যুব তৃণমূল কংগ্রেসের ডাকে হলদিয়ার সুতাহাটায় সাংগঠনিক সভায় যোগ দিয়ে শুভেন্দুকে আক্রমণের পাশাপাশি সায়নী মুখ খোলেন ত্রিপুরা (Tripura) প্রসঙ্গে। বিপ্লব দেবের রাজ্যে বারবার তৃণমূলের উপর আক্রমণের অভিযোগ উঠেছে। সায়নী নিজেও ত্রিপুরায় গিয়ে অভিযোগ করেছিলেন তাঁদের হোটেলে ঘর দেওয়া নিয়েও অশান্তি হয়েছিল। মঙ্গলবার সুতাহাটায় দাঁড়িয়ে তাঁর মন্তব্য, “ত্রিপুরায় তৃণমূলের যুব শক্তিকে দমন করার জন্য ওখানকার মুখ্যমন্ত্রী লাঠি দিয়ে মারছে, ছেলে পাঠিয়ে গাড়ি ভাঙচুর করে আগুন লাগিয়ে দিচ্ছে।”

এর পরই সায়নীর মন্তব্য, “জেলা সফরে এসে মনে হচ্ছে পূর্ব মেদিনীপুর থেকে ১০০ জন ছেলে পাঠিয়ে দিলে গোটা আগরতলা ঠান্ডা হয়ে যাবে। ১০০টা ছেলে মেদিনীপুর থেকে পাঠিয়ে দিলে ত্রিপুরার বিজেপিকে কীভাবে সাফ করতে হয়, এখানকার ছেলেরা শিখিয়ে দেবে।”

এদিন আবারও শুভেন্দু অধিকারীকে নিশানা করেছেন সায়নী ঘোষ। বলেন, ভবানীপুরে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় অবশ্যই জিতবেন। এবং জিতে মুখ্যমন্ত্রী হয়ে বিধানসভায় শুভেন্দুবাবুর নাকের ডগা দিয়ে হেঁটে যাবেন।

এদিকে সায়নীর এই মন্তব্য প্রসঙ্গে পাল্টা বিঁধেছে বিজেপি। তাদের কথায়, মেদিনীপুরে এসে দিবা স্বপ্ন দেখছেন সায়নী। উল্লেখ্য, সোমবার কাঁথি (Contai)-তে দাঁড়িয়ে দলীয় নেতাকর্মীদের উদ্দেশে সায়ানী ঘোষের (Sayaani Ghosh) পরামর্শ ছিল “দলের মধ্যে গদ্দারদের চিহ্নিতকরণ করুন। প্রচীরে উঠে বসা লোকগুলোকে ঘাড় ধাক্কা দিয়ে বের করে দিন।”

কাঁথি শহর দীর্ঘদিন ধরে অধিকারী খাস তালুক হিসেবে পরিচিত। সেই শহরেই ধস নামাতে পারে কাঁথি সাংগঠনিক জেলার যুব তৃণমূল কংগ্রেস। একে উদ্দেশ্য করেই ‘কাঁথি চলো’ ডাক দিয়েছেন তৃণমূল নেতৃত্ব। সোমবার কাঁথির ডরমেটরি মাঠে তৃণমূলের কাঁথি সাংগঠনিক জেলা যুব তৃণমূল কংগ্রেসের প্রথম কর্মী সন্মেলন সভায় উপস্থিত ছিলেন রাজ্য যুব তৃণমূল সভাপতি সায়নী ঘোষ। সেখান থেকেই তৃণমূলের যুব নেত্রী তাঁর রাজ্য সফর শুরু করেছেন। নাম না করে শুভেন্দু অধিকারীর উদ্দেশে তোপ দাগেন একুশের ভোটে তৃণমূলের তারকা প্রার্থী। বলেন, “এই মাটি বিপ্লবের মাটি। আর এই মাটিতে মমতা ব্যানার্জী দুধ কলা দিয়ে কালসাপ পুষেছিলেন। এই মাটিতে লড়াইটা ছিল ঘর শত্রু বিভীষণের বিরুদ্ধে।” তিনি যোগ করেন, “১১টার মধ্যে ৯টা গোল দিয়েছেন। দারুণ খেলেছেন। আমরা নাকি ভোট ব্যাঙ্কের রাজনীতি করি! আমরা মানুষের ভোটে জিতে আসি। আর ওরা এমএলএ, এমপি কিনে নেয়।”

আরও পড়ুন: ২ বছরে মৃত্যু ২, আহত ৬০! একা ‘ভোলা’র তাণ্ডবে দরজায় খিল দিয়েছে মোস্তাফাপুরবাসী 

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla