TMC Clash: ভর দুপুরে চলল বোমা-গুলি, তৃণমূলের গোষ্ঠীসংঘর্ষে গুলিবিদ্ধ ৩

TMC Clash: মঙ্গলবার দুপুরে তৃণমুলের দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষকে কেন্দ্র করে উত্তপ্ত হয়ে ওঠে উত্তর দিনাজপুরের চোপড়া থানা এলাকার হপতিয়াগছ গ্রাম।

TMC Clash: ভর দুপুরে চলল বোমা-গুলি, তৃণমূলের গোষ্ঠীসংঘর্ষে গুলিবিদ্ধ ৩
ঘটনাস্থলে পড়ে রয়েছে বোমা

উত্তর দিনাজপুর : তৃণমূলের গোষ্ঠীসংঘর্ষে উত্তপ্ত উত্তর দিনাজপুরের চোপড়া। পরপর চলল বোমা, গুলি। মঙ্গলবার দুপুরে সংঘর্ষের জেরে গুলিবিদ্ধ হয়েছেন তৃণমুলের বুথ সভাপতি সহ তিন জন। চা বাগানের জমির দখলকে কেন্দ্র করে এই সংঘর্ষ বলে স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে। উত্তর দিনাজপুরের চোপড়া থানার হপতিয়াগছ গ্রাম পঞ্চায়েতের বাংলাদেশ সীমান্তবর্তী বড়বিল্লা গ্রামের ঘটনা।

শেষ পাওয়া খবর অনুযায়ী, তিনজনের গুলিবিদ্ধ হওয়ার খবর পাওয়া গিয়েছে ও একজন বোমার আঘাতে আহত হয়েছেন। তাঁদের হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। খবর পেয়েই ঘটনাস্থলে পৌঁছয় চোপড়া থানার পুলিশ।

স্থানীয়রা এ দিন আহত ব্যক্তিদের উদ্ধার করে চোপড়ার দলুয়া স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নিয়ে যান। তাঁদের অবস্থা আশঙ্কাজনক থাকায় তাঁদের উত্তরবঙ্গ মেডিকেল কলেজে স্থানান্তরিত করা হচ্ছে। ঘটনাকে কেন্দ্র করে ব্যাপক উত্তেজনা ছড়িয়েছে এলাকায়। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে চোপড়া থানার বিশাল পুলিশ বাহিনী।

এই ঘটনায় ওই এলাকার তৃণমুল কংগ্রেসের বুথ সভাপতি তাজিমুল হক গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, ২০ একর ৮০ শতক জমির মধ্যে ৯ একর ৬০ শতক চাবাগানের জমির দখলকে কেন্দ্র করেই বিবাদের সূত্রপাত। তাজিমুল ও আব্দুল মজিদ সম্পর্কে আত্মীয় হন। তাঁদের মধ্যেই এই সংঘর্ষ বলে জানা গিয়েছে। অভিযোগ, মজিদ মঙ্গলবার লোকজন নিয়ে বাগান দখল করতে যায়। তাজিমুলের লোক জন বাধা দিতে গেলে এই ঘটনা ঘটে। এরা দুই জনই তৃণমূল কংগ্রেসের কর্মী। তবে তৃণমূলের দাবি, এটা নেহাতই পারিবারিক বিবাদ। এর সঙ্গে তৃণমূলের কোনও সম্পর্ক নেই।

হাসিম আলি নামে তাজিমুল ঘনিষ্ঠ এক ব্যক্তি জানান, জমির কিছুটা অংশ আব্দুল মজিদের। মঙ্গলবার যখন তাজিমুলের লোকজন তাঁরই জায়গায় কাজ করতে যায়, তখন বাইরে দুষ্কৃতী নিয়ে এসে হামলা চালানো হয়েছে বলে অভিযোগ করেন ওই ব্যক্তি। তিনি আরও জানান, বাইরে থেকে অন্তত ৫০-৬০ জন দুষ্কৃতী নিয়ে এসে গুলি বোমা চালানো হয় এ দিন। তাঁদের পক্ষের ৬-৭ জনের গুলি ও বোমা লেগেছে বলেও দাবি করেন এই ব্যক্তি। হাসিম আলি জানান, আব্দুল মজিদ পঞ্চায়েতের উপ প্রধানের দাদা।

তবে এই ঘটনার সঙ্গে তৃণমূলের কোনও সম্পর্ক নেই বলেই দাবি করেছেন স্থানীয় তৃণমূল নেতা তাহের আহমেদ। তিনি বলেন, আব্দুল মজিদ ও তাজিমুল হক মধ্যে জমি সংক্রান্ত পারিবারিক সমস্যা রয়েছে। শুনেছি চারজনের গুলি লেগেছে ও একজনোর বোমা লেগেছে। তিনি জানান, আহতদের মধ্য়ে একজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। দুজনেই যে তৃণমূল নেতা সে কথা স্বীকার করেছেন তাহের আহমেদ। তবে এই ঘটনাকে গোষ্ঠী সংঘর্ষ বলতে রাজি নন তিনি।

আরও পড়ুন : Adhir Chowdhury: ‘পয়সা দিলেই আরটি-পিসিআর রিপোর্ট পাওয়া যায় কলকাতায়’, গঙ্গাসাগর মেলা নিয়ে ক্ষুব্ধ অধীর

Published On - 3:10 pm, Tue, 11 January 22

Related News

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla