Nusrat Jahan: সোশ্যাল পোস্টে বন্ধু বিচ্ছেদের পরোক্ষ ইঙ্গিত দিলেন নুসরত?

Nusrat Jahan: অভিনেতা যশ দাশগুপ্তের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক, ঈশানের মা হওয়া- এক লহমায় বদলে দিয়েছে নুসরতের জীবন। প্রেগন্যান্সি পিরিয়ডে ক্রমাগত ট্রোলের শিকার হয়েছেন। তা পাত্তা না দিয়ে নিজের কায়দায় সামলেছেন।

Nusrat Jahan: সোশ্যাল পোস্টে বন্ধু বিচ্ছেদের পরোক্ষ ইঙ্গিত দিলেন নুসরত?
নুসরত জাহান। ছবি: ইনস্টাগ্রাম থেকে গৃহীত।

যত দিন এগিয়ে যাচ্ছে জীবন সম্পর্কে ধারণা বদলে যাচ্ছে তাঁর। প্রতিনিয়ত তৈরি হচ্ছে নতুন জীবনবোধ। তিনি অর্থাৎ সাংসদ অভিনেত্রী নুসরত জাহান। সদ্য ইনস্টাগ্রাম স্টোরিতে শেয়ার করা বার্তা দেখে সেই জীবনবোধেরই হদিশ পেলেন দর্শকের বড় অংশ।

নুসরত ইনস্টাগ্রাম স্টোরিতে লিখেছেন, ‘জীবনের লক্ষ্য সম্পর্কে যখনই কেউ সিরিয়াস হয়, তখনই হয় বন্ধুবিচ্ছেদ। সে কারণেই বুগাটির দুটো সিট। আর বাসের সিট ৩০টি।’ এই বার্তা বিশেষ কারও উদ্দেশে কি না, তা স্পষ্ট করেননি। চলার পথ সম্প্রতি কোনও বন্ধু বিচ্ছেদ হয়েছে কি না, তাও খোলসা করেননি নুসরত।

অভিনেতা যশ দাশগুপ্তের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক, ঈশানের মা হওয়া- এক লহমায় বদলে দিয়েছে নুসরতের জীবন। প্রেগন্যান্সি পিরিয়ডে ক্রমাগত ট্রোলের শিকার হয়েছেন। তা পাত্তা না দিয়ে নিজের কায়দায় সামলেছেন। জীবনের এই সময়ে কাছের মানুষদেরও হয়তো অন্য রূপ দেখেছেন নুসরত। চেনা বন্ধুদেরও হয়তো বদলে যেতে দেখেছেন, সে কারণেই তাঁর এই উপলব্ধি কি না, তা স্পষ্ট করেননি।

মহানবমীতে তাক লাগিয়ে দিয়েছিলেন নুসরত। পরেছিলেন শাড়ি, সঙ্গে মানানসই গয়না। দুই ভুরুর মাঝে লাল টিপে তিনি ছিলেন নজরকাড়া। কিন্তু লাইমলাইট কেড়ে নিল দুই হাতে এক জোড়া শাঁখা ও পলা। যা জন্ম দিল অনেক প্রশ্নের। শুনতে হল কটাক্ষ। নুসরতের অবশ্য তাতেই থোড়াই কেয়ার।

Nusrat-Post

নুসরতের শেয়ার করা সেই পোস্ট।

কয়েকদিন আগেই জন্মদিন ছিল যশের। সোশ্যাল ওয়ালে ভালবাসার ইমোজি দিয়ে যশকে শুভেচ্ছা জানিয়েছিলেন নুসরত। পরে কেকের ছবি শেয়ার করেন নুসরত। সেই কেকে লেখা ছিল যশের নামের আদ্যক্ষর ওয়াই এবং ডি। এখানেই শেষ নয়, লেখা ছিল ‘হাজব্যান্ড’। তার নিচে লেখা ছিল ‘ড্যাড’। যশ বাবা হয়েছেন কিছু দিন আগে। ছেলে ঈশানের জন্মের শংসাপত্রে তাঁরই নাম। কিন্তু ‘স্বামী’? প্রশ্ন উঠেছে তবে কি চুপিসারেই বিয়ে করে নিয়েছেন নুসরত ও তিনি?

গত ২৬ অগস্ট, মাদার টেরেসার জন্মদিনের দিনই, পার্ক-স্ট্রিটের একটি হাসপাতালে সন্তানের জন্ম দেন নুসরত। সন্তানের নাম রাখেন ‘ঈশান’। যার ইংরেজি বানান ‘Yishaan’। নুসরতের ডেলিভারি পর্বে সারাক্ষণ অভিনেতা যশ তাঁর সঙ্গে হাসপাতালে ছিলেন। তাঁকে তিনিই গাড়ি চালিয়ে নিয়ে গিয়েছিলেন হাসপাতালে। সন্তান জন্মানোর পর যশ জানিয়েছিলেন, নুসরত ও সদ্যোজাত ভাল আছে। হাসপাতালে ছিলেন নুসরতের পরিবারের সদস্যরাও।

ঈশানের জন্মের শংসাপত্র দিন কয়েক আগেই প্রকাশ্যে আসে। সেখানেও বাবার নামের জায়গায় লেখা ছিল যশ দাশগুপ্তর নাম। নুসরত মা হওয়ার পর তাঁকে অভিনন্দন জানাতে পিছপা হননি ‘সহবাস সঙ্গী’ নিখিল জৈন। নুসরতের সঙ্গে তাঁর কোনও যোগাযোগ নেই। মা এবং সন্তানকে তিনি দেখতে যাবেন না বলেছেন ঠিকই, কিন্তু নুসরতের সন্তানের মঙ্গল কামনা করেছেন নিখিল। এর আগে নুসরতের মা হওয়ার খবর প্রকাশ্যে আসতেই নিখিল জৈন জানিয়েছিলেন সন্তানের বাবা তিনি নন। অন্য দিকে, নুসরত এক বিবৃতিতে জানিয়েছিলেন নিখিলের সঙ্গে তুরস্কতে যে ‘বিয়ে’ হয়েছিল তাঁর তা ভারতে ‘বৈধ’ নয় কারণ আইনত তাঁদের বিয়ে হয়নি। তাঁরা লিভ-ইন সম্পর্কে ছিলেন।

আরও পড়ুন, Raj Kundra case: ফের শার্লিনের এফআইআর, রাজ এবং শিল্পার বিরুদ্ধে মানসিক এবং যৌন নির্যাতনের অভিযোগ

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla