কোভ্যাকসিন নেবেন কারা, সংশয় কাটাতে নির্দেশিকা জারি ভারত বায়োটেকের

ঈপ্সা চ্যাটার্জী

ঈপ্সা চ্যাটার্জী |

Updated on: Jan 19, 2021 | 3:39 PM

কোভ্যাকসিনের প্রস্তুতকারক সংস্থার তরফে জানানো হয়েছে, তাদের তৈরি কোভ্যাকসিন নিলে শ্বাসকষ্ট, গলা বা মুখ ফুলে যাওয়া, হৃদস্পন্দন বেড়ে যাওয়া, গোটা গায়ে র‌্যাশ বেরিয়ে যাওয়া কিংবা মাথা ঘোরা ও দুর্বলতা দেখা দিতে পারে।

কোভ্যাকসিন নেবেন কারা, সংশয় কাটাতে নির্দেশিকা জারি ভারত বায়োটেকের
ফাইল চিত্র।

নয়া দিল্লি: দেশজুড়ে শুরু হয়েছে গণটিকাকরণ কর্মসূচি। দুদিন কাটতেই প্রায় কয়েকশো মানুষের মধ্যে পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া (Side Effect) দেখা গিয়েছে, টিকা নেওয়ার পর মৃত্যু হয়েছে দুজনের। প্রশ্ন উঠেছে ভারত বায়োটেক (Bharat Biotech)-র তৈরি কোভ্যাকসিন (Covaxin)-র কার্যকারিতা নিয়েও। এই কারণেই ভারত বায়োটেকের তরফে একটি নির্দেশিকা জারি করে জানানো হল, কারা নিতে পারবেন তাদের তৈরি ভ্যাকসিন।

সরকারের তরফে আগেই জানানো হয়েছিল, যাদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কম, তাঁরা এই ভ্যাকসিন নিতে পারেন, তবে এক্ষেত্রে ভ্যাকসিনের কার্যকারিতা বাকিদের তুলনায় কম হবে। ভারত বায়োটেকের তরফে প্রকাশিত নির্দেশিকায় কারা ভ্যাকসিন নিতে পারবেন, সে বিষয়ে বিস্তারিত জানানো হল-

১. সংস্থার তরফে বলা হয়েছে, যে সকল ব্যক্তির কোনও প্রকার অ্যালার্জি রয়েছে, তাঁদের এই ভ্যাকসিন নেওয়া উচিত নয়।

২. যাঁরা গর্ভবতী বা শিশুকে স্তন্যপান করান, তারাও এই ভ্যাকসিন নিতে পারবেন না।

৩. যাদের জ্বর রয়েছে, তাঁদের এই ভ্যাকসিন নেওয়া উচিত নয়।

৪. যাঁরা রক্ত পাতলা করার ওষুধ খান, তাঁদের ক্ষেত্রেও এই ভ্যাকসিন না নেওয়াই শ্রেয়।

৫. যদি কোনও ব্যক্তি অন্য কোনও করোনা টিকা অর্থাৎ আপাতত সিরাম ইন্সটিটিউটের করোনা টিকা যদি নিয়ে থাকেন, তবে পরবর্তী ক্ষেত্রে ভারত বায়োটেকের এই ভ্যাকসিন নিতে পারবেন না।

৬. যাদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কম, তাঁদের ক্ষেত্রেও এই ভ্যাকসিন খুব একটা কার্যকর হবে না।

৭. এছাড়াও যদি চিকিৎসক অন্য কোনও রোগের কারণে ভ্যাকসিন নিতে নিষেধ করেন, তবে সেক্ষেত্রে চিকিৎসকের পরামর্শ মেনেই চলা উচিত।

tika

ভারত বায়োটেকের নির্দেশিকায় কী কী বলা হয়েছে, দেখে নিন এক ঝলকে।

আরও পড়ুন: ভয়ঙ্কর পরিণতি! রাস্তার ধারে ঘুমিয়েছিলেন, ১৫ শ্রমিককে পিষে মেরে দিল ট্রাক

কেন্দ্র আগেই জানিয়েছিল, যেকোনও ভ্যাকসিনেরই সামান্য কিছু পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া থাকে।  করোনা টিকার ক্ষেত্রেও তা ব্যতিক্রম হবে না। কোভ্যাকসিনের প্রস্তুতকারক সংস্থার তরফে জানানো হয়েছে, তাদের তৈরি কোভ্যাকসিন নিলে যে পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াগুলি দেখা যেতে পারে, সেগুলি হল-

১.শ্বাসকষ্ট

২.গলা বা মুখ ফুলে যাওয়া

৩.হৃদস্পন্দন বেড়ে যাওয়া

৪.গোটা গায়ে র‌্যাশ বেরিয়ে যাওয়া

৫.মাথা ঘোরা ও দুর্বলতা দেখা দিতে পারে।

পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া এড়াতে টিকাগ্রহণকারীদের আগে থেকেই যাবতীয় শারীরিক অসুস্থতার কথা জানাতে বলা হয়েছে। সংস্থার তরফে বলা হয়েছে, “ভ্যাকসিন নেওয়ার পর সাধারণ পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া হিসাবে গা ব্যাথা, মাথা ব্যাথা, জ্বর, দুর্বলতা, বমি, র‌্যাশ বের হতে পারে। এই কারণেই গ্রহীতাদের ভ্যাকসিন নেওয়ার পর  টিকাকরণ কেন্দ্রে ৩০ মিনিট অপেক্ষা করতে বলা হয়েছে।”

নির্দেশিকায় বলা হয়েছে, “যদি কোনও ব্যক্তির ক্ষেত্রে গুরুতর কোনও পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া দেখা যায়, তবে সরকারী বা সরকার নির্ধারিত হাসপাতালে তাঁদের চিকিৎসা করানো হবে। এছাড়াও গুরুতর অসুস্থ রোগীদের ক্ষতিপূরণও দেওয়া হবে।”

নির্দেশিকার শেষফভাগে বলা হয়েছে, “কোভ্যাকসিনের তৃতীয় দফার ট্রায়াল এখনও চলছে এবং এই টিকার ক্লিনিক্যাল কার্যকারিতা এখনও প্রমাণিত হয়নি। সুতরাং ভ্যাকসিন নিলেও যে করোনা বিধি মানতে হবে, এই বিষয়টি মাথায় রাখতে হবে।”

আরও পড়ুন: প্রজাতন্ত্র দিবসের অনুষ্ঠানে চলল কাঁচি, ১৫ বছরের নীচে প্রবেশ নিষেধ

Latest News Updates

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla