Durga Bahini Training: দুর্গা বাহিনীর প্রশিক্ষণ শিবিরে বন্দুক? ভাইরাল ছবিতে বাড়ছে বিতর্ক

Training with fire arms: বন্দুক নিয়ে কীভাবে এই ধরনের প্রশিক্ষণ শিবির চলতে পারে? এই ধরনের প্রশিক্ষণ কতটা যুক্তিযুক্ত... সেই সব নিয়েই প্রশ্ন তুলছেন একাংশের মানুষ।

Durga Bahini Training: দুর্গা বাহিনীর প্রশিক্ষণ শিবিরে বন্দুক? ভাইরাল ছবিতে বাড়ছে বিতর্ক
দুর্গা বাহিনীর এই প্রশিক্ষণ ঘিরেই তৈরি হয়েছে বিতর্ক (ছবি - সোশ্যাল মিডিয়া)

কলকাতা ও অযোধ্যা : ফের দুর্গা বাহিনীর প্রশক্ষণ শিবিরে অস্ত্রের প্রশিক্ষণ দেওয়ার অভিযোগ। এই বছর দুর্গাবাহিনীর প্রশিক্ষণ শিবির আয়োজিত হয়েছে অযোধ্যায়। প্রশিক্ষণ শিবিরে লাঠি দিয়ে আত্মরক্ষা এবং অন্যান্য প্রশিক্ষণের পাশাপাশি বন্দুক চালানোর প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে বলেও অভিযোগ উঠছে। সোশ্যাল মিডিয়ায় এমন বেশ কিছু ছবি ভাইরাল হয়েছে। আর সেই সঙ্গে একগুচ্ছ প্রশ্নও উঠতে শুরু করেছে। বন্দুক নিয়ে কীভাবে এই ধরনের প্রশিক্ষণ শিবির চলতে পারে? এই ধরনের প্রশিক্ষণ কতটা যুক্তিযুক্ত… সেই সব নিয়েই প্রশ্ন তুলছেন একাংশের মানুষ।

দুর্গা বাহিনী হল বিশ্ব হিন্দু পরিষদের একটি শাখা। উত্তর প্রদেশে বিজেপির সরকার। কেন্দ্রের বিজেপি সরকার। আর এই পরিস্থিতিতে প্রশ্ন উঠছে যোগী আদিত্যনাথের প্রশাসনের বিরুদ্ধে। প্রশ্ন উঠছে কেন্দ্রের বিজেপি সরকারের বিরুদ্ধেও। তাহলে কি উত্তর প্রদেশ এবং কেন্দ্র দুই জায়গাতেই বিজেপির সরকার থাকার কারণেই এমন অবাধে অস্ত্র প্রশিক্ষণ দেওয়া যাচ্ছে ? প্রশ্ন তুলছেন নেটাগরিকদের একাংশ।

উল্লেখ্য, এর আগে ২০১৪ সালে বাংলাতেও এমন অভিজ্ঞতা হয়েছিল। পশ্চিমবঙ্গের সুন্দরবন এলাকায় বিশ্ব হিন্দু পরিষদের এক প্রশিক্ষণ শিবিরে এরকম ভাবেই বন্দুক চালানো শেখানো হয়েছিল বলে অভিযোগ। তখনও প্রশ্ন উঠেছিল, কীভাবে প্রশাসনের নাকের ডগায় অস্ত্র প্রশিক্ষণ চলছে। এবার ফের একবার অযোধ্যায় বিশ্ব হিন্দু পরিষদের দুর্গা বাহিনীর সর্বভারতীয় প্রশিক্ষণ শিবিরে বন্দুক চালানো শেখানোর অভিযোগ উঠেছে। যদিও এখনও পর্যন্ত এই বিষয়ে বিশ্ব হিন্দু পরিষদের তরফে কিছু জানানো হয়নি।

২০১৬ সালেও অভিযোগ উঠেছিল দুর্গা বাহিনীর প্রশিক্ষণ শিবিরে গুলি চালানোর প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে বলে। সেই সময় দুর্গা বাহিনীর প্রশিক্ষণ শিবির আয়োজিত হয়েছিল উত্তর প্রদেশের বারাণসীতে। সেখানে লাঠি এবং জুডো খেলার প্রশিক্ষণ দেওয়ার পাশাপাশি রাইফেল চালানো শেখানোর অভিযোগ উঠেছিল। প্রশ্ন উঠেছিল, আত্মরক্ষা এবং দেশ রক্ষার নামে বন্দুক চালানো শেখানো হচ্ছে সেখানে। বেশ কিছু সংবাদ মাধ্যমে এই সংক্রান্ত প্রতিবেদনও প্রকাশিত হয়েছিল সেই সময়। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর নির্বাচনী কেন্দ্র বারাণসীতে এই ঘটনা ঘটায় তা আলাদা রাজনৈতিক মাত্রাও পেয়েছিল।

তবে দুর্গা বাহিনীর তরফে অবশ্য জানানো হয়েছিল, ওগুলি রাইফেল ছিল না। এয়ার গান ব্যবহার করা হচ্ছিল প্রশিক্ষণের জন্য। এদিকে সেই সময়ের অভিযোগের ভিত্তিতে উত্তর প্রদেশ পুলিশ প্রশিক্ষণ শিবিরে গিয়ে তল্লাশিও করেছিল। তবে প্রশিক্ষণ শিবির থেকে আপত্তিকর কিছুই পাননি উত্তর প্রদেশ পুলিশের আধিকারিকরা।

আরও পড়ুন : Mamata invites Modi: বিশ্ব বাংলা বাণিজ্য সম্মেলনে মোদীকে আমন্ত্রণ, কোন পথে মমতার ‘হলুদ গোলাপে’র সমীকরণ

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla