পুলওয়ামা হামলার দুই বছর পার, প্রধান চক্রী মাসুদের নামে নোটিস জারি ইন্টারপোলের

দুইবছর আগে আজকের দিনেই জম্মু-কাশ্মীরের পুলওয়ামায় সিআরপিএফ জওয়ানদের কনভয়ে হামলা চালায় জইশ-ই-মহম্মদ জঙ্গিরা। ঘটনায় প্রাণ হারান ৪০ জন সিআরপিএফ জওয়ান।

পুলওয়ামা হামলার দুই বছর পার, প্রধান চক্রী মাসুদের নামে নোটিস জারি ইন্টারপোলের
পুলওয়ামা হামলার দিন। ফাইল চিত্র।

নয়া দিল্লি: দেখতে দেখতে দুই বছর পার হয়ে গেল পুলওয়ামা হামলার (Pulwama attack)। ২০১৯ সালের ১৪ ফেব্রুয়ারিই জম্মু-কাশ্মীরের পুলওয়ামায় সিআরপিএফ (CRPF) জওয়ানদের কনভয়ে হামলা চালায় জইশ-ই-মহম্মদ (Jaish-e-Mohammad)। ঘটনায় প্রাণ হারান ৪০ জন জওয়ান। হামলার চক্রী জইশ-ই-মহম্মদ জঙ্গি গোষ্ঠীর প্রধান মৌলানা মাসুদের নামে রেড নোটিস জারি করল ইন্টারপোল (Interpol)। একইসঙ্গে তাঁর আত্মীয়দের নামেও নোটিস জারি করা হয়েছে। আজহার ও রউফ নামে দুই সন্ত্রাসবাদীর নামেও নতুন করে নোটিস জারি করল আন্তর্জাতিক গোয়েন্দা সংস্থা।

২০১৬ সালে পাঠানকোটে ভারতীয় বায়ুসেনার ঘাটিতে হামলা চালানোর পরই ইন্টারপোলের কাছে জইশ প্রধান মৌলানা মাসুদ আজহার ও তাঁর তিন সঙ্গীর বিরুদ্ধে রেড কর্নার নোটিস জারি করার আবেদন জানায় জাতীয় তদন্তকারী সংস্থা। সেইসময় রেড কর্নার নোটিস (Red Corner Notice) জারি না হলেও পুলওয়ামা কাণ্ডে অবশেষে মৌলানা মাসুদের নামে রেড অ্যালার্ট জারি করল ইন্টারপোল।

২০১৯ সালের ১৪ ফেব্রুয়ারি জম্মু-কাশ্মীরে প্রায় ২৫০০ সিআরপিএফের জওয়ানদের নিয়ে ৭৮টি কনভয় বাস যাচ্ছিল। পুলওয়ামার কাছে আচমকাই জইশ-ই-মহম্মদের বিস্ফোরক বোঝাই একটি গাড়ি দ্রুতগতিতে এগিয়ে আসে। ওই গাড়িতেই উপস্থিত একজন আত্মঘাতী জঙ্গি বিস্ফোরণ ঘটালে প্রাণ হারান ৪০ জন জওয়ান। ঘটনার পরদিনই জইশ-ই-মহম্মদ জঙ্গি সংগঠনের তরফে হামলার দায় স্বীকার করে নেয়। বদলা নিতে ২৬ ফেব্রুয়ারি ভারতীয় বায়ুসেনা (Indian Airforce) পাকিস্তানের বালাকোটে (Balakot) এয়ারস্ট্রাইক চালায়।

আরও পড়ুন: সুড়ঙ্গের ভিতরে উদ্ধার দুটি ছিন্নভিন্ন দেহ, আগাম বিপদের আশঙ্কায় জঙ্গলে ঠাঁই নিয়েছেন গ্রামবাসীরা

ঘটনার দুই বছর কাটতেই আজ জানা যায়, হামলার প্রধান চক্রী জইশ-ই-মহম্মদ জঙ্গি গোষ্ঠীর প্রধান মৌলানা মাসুদের নামে রেড নোটিস জারি করল ইন্টারপোল। তাঁর আত্মীয়ের বিরুদ্ধেও নোটিস জারি করা হয়েছে। একইসঙ্গে আজহার এবং আব্দুল রউফ নামক দুই সন্ত্রাসবাদীর নামে নতুন করেও নোটিস দিয়েছে আন্তর্জাতিক গোয়েন্দা সংস্থা। ২০০১ সালে সংসদে হামলা এবং ২০১৬ সালের পাঠানকোটে নাশকতায় পিছনে এই দুই জঙ্গির ভূমিকা নিয়ে আগেও নোটিস জারি করা হয়েছিল। পাঠানকোট নাশকতার অন্যতম অভিযুক্ত আজহারের ভাই আব্দুল রউফের নামে ইন্টারপোল ১৯৯৯ সালে ভারতীয় একটি বিমান হাইজ্যাকের ঘটনাতেও রেড কর্নার নোটিস জারি করেছিল। দীর্ঘদিন ধরে খোঁজ না মেলায় পুলওয়ামা ঘটনায় ফের নতুন করে নোটিস জারি করল আন্তর্জাতিক গোয়েন্দা সংস্থা।

এদিকে, পুলওয়ামা কাণ্ডের দুই বছর পূরণ হওয়ায় প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং (Rajnath Singh), উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ (Yogi Adityanath) ও কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী (Rahul Gandhi) শ্রদ্ধাজ্ঞাপন করেছেন। প্রতিরক্ষামন্ত্রী টুইট করে লেখেন, “২০১৯ সালে পুলওয়ামায় যে বীর সিআরপিএফ জওয়ানরা আত্মবলিদান দিয়েছেন, তাঁদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাই। ভারত কখনওই দেশের প্রতি তাঁদের কর্তব্য ও বলিদানের কথা ভুলবে না। আমরা সবসময় তাঁদের পরিবারের পাশে রয়েছি।” একইভাবে রাহুল গান্ধীও শহিদ জওয়ানদের প্রতি শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করেন ও তাঁদের পরিবারের প্রতিও শ্রদ্ধা জানান।

আরও পড়ুন: ভয়ঙ্কর সকাল! শিশুর গোঙানি, রক্তে ভাসছে রাস্তা, ছড়িয়ে ছিটিয়ে পড়ে রয়েছে ১৩ মৃতদেহ