Municipal Election: দু’এক দিনের মধ্যেই জারি হতে পারে পৌরভোটের বিজ্ঞপ্তি

Notification of Municipal Election: নিয়ম অনুযায়ী সর্বদল বৈঠকের ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে ভোটের একটা বিজ্ঞপ্তি প্রকাশের সম্ভাবনা থাকে। সেই মতো সোমবার সর্বদল হলে, বুধবারের মধ্যে বিজ্ঞপ্তি জারির একটা সম্ভাবনা রয়েছে।

Municipal Election: দু'এক দিনের মধ্যেই জারি হতে পারে পৌরভোটের বিজ্ঞপ্তি
পুরভোট নিয়ে সর্বদল বৈঠক (প্রতীকী ছবি)

কলকাতা : আর দুই-এক দিনের মধ্যেই পৌরভোটের বিজ্ঞপ্তি ঘোষণা হতে পারে। আজ সর্বদল বৈঠক শেষে এমনটাই জানা গিয়েছে। পৌরভোট নিয়ে আইনি লড়াই চললেও নির্বাচনী প্রস্তুতি সেরে রাখতে চাইছে রাজ্য নির্বাচন কমিশন। সেই লক্ষ্যেই সোমবার সর্বদল বৈঠকের ডাক দেওয়া হয়েছিল।

নিয়ম অনুযায়ী সর্বদল বৈঠকের ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে ভোটের একটা বিজ্ঞপ্তি প্রকাশের সম্ভাবনা থাকে। সেই মতো সোমবার সর্বদল হলে, বুধবারের মধ্যে বিজ্ঞপ্তি জারির একটা সম্ভাবনা রয়েছে।

বৈঠকে বিরোধী দলগুলি একসঙ্গে সব পৌরভোটগুলি করানোর পক্ষে জোরালো সওয়াল তুলেছেন। একই সঙ্গে প্রশ্ন উঠেছে হাওড়ার পৌরভোট নিয়েও। সংরক্ষণ ছাড়াই কীভাবে সেখানে ভোট? প্রশ্ন তুলছেন বিরোধীরা। বিজেপি নেতা অর্জুন সিং দফায় দফায় পৌরভোট কেন, তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন। একইসঙ্গে সব কটি পৌরসভায় ভোট করানোর দাবি তুলেছেন রাজু বন্দ্যোপাধ্যায়। পাশাপাশি কেন্দ্রীয় বাহিনী ছাড়া কীভাবে ভোট করানো হচ্ছে, তা নিয়েও সংশয় প্রকাশ করেন বিজেপি নেতা। এদিকে হাওড়ায় যদি নতুন করে সংরক্ষণ করা না হয়, তাহলে ফের আদালতে যাওয়ার কথাও বলেছেন তিনি।

এদিকে রাজ্য নির্বাচন কমিশনের তরফে বৈঠকে জানিয়েছেন, সকাল দশটা থেকে সন্ধ্যা সাতটা পর্যন্ত ভোটের প্রচার করা যাবে। তবে এই প্রচারের সময়সীমা আরও কিছুটা বাড়ানোর জন্য কমিশনের কাছে আবেদন করেছে কোনও রাজনৈতিক দল। নিয়ম মতো সাইলেন্স পিরিয়ড থাকবে ৭২ ঘণ্টা। ভোটগ্রহণ পর্ব চলবে সকাল সাতটা থেকে বিকেল পাঁচটা পর্যন্ত।

পৌরভোট সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে আগামিকাল রাজ্যপালের সঙ্গে কথা হতে পারে রাজ্য নির্বাচন কমিশনারের। অর্থাৎ সর্বদল বৈঠকের বিস্তারিত আপডেট নিয়েই মঙ্গলবার রাজভবনে যাবেন রাজ্য নির্বাচন কমিশনার সৌরভ দাস। কথা বলবেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়ের সঙ্গে। নিঃসন্দেহে এই বৈঠক অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ। প্রসঙ্গত, পুরভোট নিয়ে যে আইনি লড়াই চলছে, বুধবার আবার সেই মামলার শুনানি রয়েছে।

রাজ্য নির্বাচন কমিশন একটি স্বয়ংশাসিত সংস্থা। এর সঙ্গে রাজ্য সরকারের কোনও সম্পর্ক নেই। রাজ্য নির্বাচন কমিশনের যিনি প্রধান হন, তিনি যাবতীয় রিপোর্ট করেন রাজ্যপালকে। সেই হিসাবে রাজ্য নির্বাচন কমিশনারের প্রতিটি পদক্ষেপ রাজ্যপালকে জানিয়ে করতে হয়। বলা যেতে পারে, চাইলেই রাজ্যপাল কমিশনের সমস্ত বিষয়ে হস্তক্ষেপ করতে পারেন।

আজ এই নিয়ে একটি টুইটও করেছেন রাজ্যপাল। টুইটারে জগদীপ ধনখড় লেখেন, ‘পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য নির্বাচন কমিশনার সৌরভ দাস ২৩ নভেম্বর দুপুর ৩টেয় কলকাতা রাজভবনে আসন্ন পুরভোট নিয়ে জানাবেন।’ সংবিধানের কোন ধারায় এই ডেকে পাঠানো টুইটে সে কথাও উল্লেখ করে দিয়েছেন রাজ্যপাল।

আরও পড়ুন : Nagerbazar Road Accident: ঝুপ করে শব্দ, নাগেরবাজার উড়ালপুল থেকে ছিটকে নিচে পড়লেন মহিলা!

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla