Trinamool Congress: সুপ্রিম নির্দেশে ‘স্বস্তিতে’ তৃণমূল সরকার? ভোটের মধ্যেই খেলা ঘোরাতে নতুন ছক ঘাসফুল শিবিরের?

Trinamool Congress: কলকাতা হাইকোর্টে নির্দেশে একযোগে ২৬ হাজার চাকরি বাতিলের পর তা নিয়ে বঙ্গ রাজনীতির আঙিনায় বিস্তর শোরগোল শুরু হয়ে গিয়েছিল। তবে বারবার চাকরিহারাদের পাশে থাকার বার্তা দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সুর চড়িয়েছেন বিজেপির বিরুদ্ধে।

Trinamool Congress: সুপ্রিম নির্দেশে ‘স্বস্তিতে’ তৃণমূল সরকার? ভোটের মধ্যেই খেলা ঘোরাতে নতুন ছক ঘাসফুল শিবিরের?
মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়Image Credit source: Facebook
Follow Us:
| Updated on: May 07, 2024 | 8:21 PM

কলকাতা: রাজ্যে হয়ে গেল তৃতীয় দফার ভোট। কিন্তু, তৃতীয় দফার ভোটের দিনে সকলের নজর ছিল সুপ্রিম কোর্টের দিকে। প্রায় ২৬ হাজার চাকরি বাতিলই থাকছে নাকি অন্য কোনও রায় দেবে দেশের শীর্ষ আদালত? বাড়ছিল চাপানউতোর। খবরটা এল সন্ধ্যার দিকে। জানা গেল, এখনই কোনও চাকরি বাতিল হচ্ছে না। পরবর্তী শুনানি ১৬ জুলাই। আইনজীবী বিকাশ ভট্টাচার্য জানিয়েছেন, পরের শুনানি না হওয়া পর্যন্ত কারও চাকরি যাচ্ছে না। সিবিআই তদন্ত চলবে। তাতে কোনও স্থগিতাদেশ নেই। 

কলকাতা হাইকোর্টে নির্দেশে একযোগে ২৫ হাজার ৭৫৩ জনের চাকরি বাতিল হওয়ার পর তা নিয়ে বঙ্গ রাজনীতির আঙিনায় বিস্তর শোরগোল শুরু হয়ে গিয়েছিল। তবে বারবার চাকরিহারাদের পাশে থাকার বার্তা দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সুর চড়িয়েছেন বিজেপির বিরুদ্ধে। এখন ভোটের মধ্যে সুপ্রিম ‘স্থগিতাদেশে’ তাহলে কী কিছুটা হলেও স্বস্তিতে রাজ্য সরকার? ভোটের ময়দানে এই স্বস্তির বার্তাকে হাতিয়ার করেই এবার কী নতুন স্ট্র্যাটেজি তৈরি করতে চলেছে ঘাসফুল শিবির? 

আইনজীবী ফিরদৌস শামিম বলছেন, “রাজ্যের স্বস্তি, অস্বস্তির বিষয় নয়। দুর্নীতি হয়েছে বলে সিবিআই তদন্ত চালিয়ে যেতে বলেছে সুপ্রিম কোর্ট। ফলে দুর্নীতি যে হয়েছে তা স্পষ্ট।” কিন্তু এর ফলে কারা লাভের গুড় ঘরে তুলেছেন, কোন কোন নিয়োগ দুর্নীতির কারণে হয়েছে, তার জন্য পরবর্তী শুনানির অপেক্ষা করতে হবে।  

এদিকে সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশের পরেই উচ্ছ্বসিত হয়ে টুইট করতে দেখা গিয়েছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে। এক্স মাধ্যমে তিনি লেখেন, ‘সুপ্রিম কোর্টে ন্যায় প্রাপ্তির পর আমি বাস্তবিকই খুব খুশী এবং মানসিকভাবে তৃপ্ত। সমগ্র শিক্ষক সমাজকে জানাই আমার অভিনন্দন এবং মাননীয় সুপ্রিম কোর্টকে জানাই আমার আন্তরিক শ্রদ্ধা।’

বিজেপির বিরুদ্ধে আক্রমণের সুর আরও চড়িয়েছেন তৃণমূলের সেকেন্ড ইন কমান্ড অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনিও এক্স হ্যান্ডেলে লেখেন, ‘সত্যের জয় হয়েছে! আমরা সকল প্রতিকূলতাকে উপেক্ষা করে শেষ নিঃশ্বাস পর্যন্ত জনগণের সঙ্গে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে দাঁড়াব। জয় বাংলা।’  

এদিকে কলকাতা হাইকোর্টের নির্দেশে যাঁদের চাকরি গিয়েছিল তাঁদের একটা বড় অংশ প্রতিবাদে নেমেছেন রাজপথে। সুপ্রিম কোর্টের রায়ে কিছুটা হলেও স্বস্তিতে তাঁরা। ধরনা তলা থেকেই তাঁরা বলছেন, এই রায়ে কিছুটা হলেও স্বস্তি পেলাম। ১৬ জুলাই পর্যন্ত যেহেতু ডেট দিয়েছে। তাই অপেক্ষা করতে হবে। সুপ্রিম কোর্ট যেভাবে ক্যাটাগরি মেনে নাম চাইছে তা দিয়ে দিক।