India vs New Zealand: ঘূর্নি থাকলে কানপুরে তিন স্পিনারে যাবে নিউজিল্যান্ড

কোচ গ্যারি স্টিড (Gary Stead) বলেছেন, 'কানপুরে (Kanpur) বিদেশি টিম কেন জিততে পারে না, তা বুঝতে পারলেই অনেক ব্যাপার সহজ হয়ে যাবে। এই চ্যালেঞ্জটাই আমাদের সামলাতে হবে। চার পেসার ও এক পার্ট স্পিনার নিয়ে নামা যাবে এখানে। এই ম্যাচে তিনটে স্পিনার নিয়েও খেলতে হতে পারে। তবে পিচ না দেখে আমরা কোনও কিছুই ঠিক করতে পারব না।'

India vs New Zealand: ঘূর্নি থাকলে কানপুরে তিন স্পিনারে যাবে নিউজিল্যান্ড
নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট দল। ছবি: টুইটার

কানপুর: যদি স্পিন সহায়ক পিচ হয়, তা হলে তিন স্পিনার নিয়ে ভারতের বিরুদ্ধে নামতে পারে নিউজিল্যান্ড (New Zealand)। দু’টেস্টের সিরিজ বিরাট কোহলি (Virat Kohli) ও কেন উইলিয়ামসনদের (Kane Williamson) কাছে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। ঘরের মাঠে সিরিজ জিতলে বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের টেবলে কিছুটা লাভবান হবে রাহুল দ্রাবিড়ের টিম। আর তাই কিউয়িদের বিরুদ্ধে স্পিনিং উইকেটই করা হবে, এমনই ধরে নিচ্ছে নিউজিল্যান্ড টিম ম্যানেজমেন্ট।

 

কোচ গ্যারি স্টিড (Gary Stead) বলেছেন, ‘কানপুরে (Kanpur) বিদেশি টিম কেন জিততে পারে না, তা বুঝতে পারলেই অনেক ব্যাপার সহজ হয়ে যাবে। এই চ্যালেঞ্জটাই আমাদের সামলাতে হবে। চার পেসার ও এক পার্ট স্পিনার নিয়ে নামা যাবে এখানে। এই ম্যাচে তিনটে স্পিনার নিয়েও খেলতে হতে পারে। তবে পিচ না দেখে আমরা কোনও কিছুই ঠিক করতে পারব না।’

 

মুম্বইজাত বাঁহাতি স্পিনার আজাজ প্যাটেল (Ajaz Patel) খেলছেনই। বাকি স্পিনার কারা হবেন, তা এখনও ঠিক করে উঠতে পারেনি টিম ম্যানেজমেন্ট। স্টিডের কথায়, ‘আমাদের যে খেলার ধরণ বদলাতে হবে, তা নিয়ে কোনও সন্দেহ নেই। সেই সঙ্গে টেস্ট ক্রিকেটের কিছু ব্যাপারের উপর আস্থাও রাখতে হবে। দীর্ঘ সময় ধরে এই ফর্ম্যাটে আমরা সাফল্য পেতে চাই।’

 

 

গত বছর ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে হোম সিরিজের সময় করোনার কারণে একই মাঠে বেশি ম্যাচ খেলতে হয়েছিল। যা মাথায় রেখে স্টিড বলছেন, ‘ইংল্যান্ডের সময় পরিস্থিতি অনেক বেশি চ্যালেঞ্জিং ছিল। যে কারণে ওরা একই মাঠে দুটো করে টেস্ট খেলেছিল। চেন্নাই কিংবা আমেদাবাদের সঙ্গে কানপুরকে কিন্তু মেলানো যাবে না। কানপুরে কালো মাটির পিচ হয়। মুম্বইয়ে আবার লাল মাটির পিচ। মানিয়ে নেওয়ার ব্যাপারটা যে কারণে মাথায় রাখতে হচ্ছে।’

 

ইংল্যান্ড সফরের পর আর কোনও টেস্ট ম্য়াচ খেলেনি ভারত। নিউজিল্যান্ডও দীর্ঘদিন টেস্ট খেলেনি। স্টিডের কথায়, ‘কোভিড দুনিয়ায় প্র্যাক্টিস ম্যাচ পাওয়াটা খুব কঠিন। তবে ভারতও আমাদের মতো টি-টোয়েন্টি দুনিয়া থেকে টেস্টে পা দিচ্ছে। ফলে প্র্যাক্টিস কম থাকাটা চাপে ফেলতে পারে দুটো টিমকেই।’

 

আরও পড়ুন: India vs New Zealand: টেস্ট সিরিজ শুরুর আগেই ধাক্কা ভারতীয় শিবিরে

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla