অ্যাপেলের আইফোন এসই ৩, দেখুন এই ফোনের সম্ভাব্য ফিচার

আইফোন এসই- র ক্ষেত্রে ৬৪, ১২৮ এবং ২৫৬ জিবি, মোট তিনটি স্টোরেজ ভ্যারিয়েন্টের ফোন ছিল। এসই ৩ মডেলেও তেমনটাই থাকবে বলে আশা করা হচ্ছে।

অ্যাপেলের আইফোন এসই ৩, দেখুন এই ফোনের সম্ভাব্য ফিচার
ভারতে লঞ্চ হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে অ্যাপেলের আইফোন এসই ৩ মডেলের।

গত বছর অর্থাৎ ২০২০ সালে আইফোন এসই লঞ্চ করেছিল অ্যাপেল। ডিজাইন থেকে শুরু করে ফোনের হার্ডওয়্যার সর্বোপরি ফোনের দাম, নজর কেড়েছিল সবই। শোনা যাচ্ছে, আপাতত এই ফোনের ‘সাকসেসর মডেল’ নিয়ে কাজ শুরু করেছে অ্যাপেল। নতুন ফোনের নাম আইফোন এসই ৩। সূত্রের খবর, ২০২৩ সালের আগে এই ফোন লঞ্চের সম্ভাবনা নেই। অ্যাপেল কর্তৃপক্ষের তরফে যদিও এখনও এই নতুন ফোনের প্রসঙ্গে কোনও তথ্যই জানানো হয়নি।

আইফোন এসই ৩- এর সম্ভাব্য ফিচার

১। এই ফোনে ৫.৫ ইঞ্চির ডিসপ্লে থাকতে পারে। আবার অনেক সূত্রে শোনা যাচ্ছে, আরও বড় ৬.১ ইঞ্চির ডিসপ্লে থাকতে পারে অ্যাপেলের এই নতুন ফোনে।

২। আইফোন এসই ৩ মডেলে থাকতে পারে স্কোয়ার-এজ ডিজাইন, যা অনেকটা আইফোন ১২ সিরিজের বিভিন্ন মডেলের মতো। সামনের ডিসপ্লেতে থাকতে পারে একটা সিঙ্গল ফ্রন্ট ক্যামেরা। আর ফোনের পিছনের অংশে থাকতে পারে ফ্ল্যাশ ক্যামেরা। ফোনের পিছনে একটি ওষুধের ক্যাপসুলকে আড়াআড়ি ভাবে রাখলে যেমন দেখতে লাগে, তেমন অংশের মধ্যে ক্যামেরা সেট করা থাকবে। আর ফোনের সামনের অংশে মাঝবরাবর পাঞ্চ-হোল কাটআউটে সেলফি ক্যামেরা থাকবে।

৩। টাচ আইডি ফিচার থাকতে পারে এই ফোনে। সেই সঙ্গে ইউজারের অথেনটিফিকেশনের জন্য ইন-ডিসপ্লে ফিঙ্গারপ্রিন্ট স্ক্যানারও থাকতে পারে।

৪। অ্যাপেলের আইফোন এসই ৩ মডেলে থাকতে পারে এলসিডি ডিসপ্লে। সেই সঙ্গে এ১৪ বায়োনিক চিপসেট থাকতে পারে এই ফোনে। ষড়ভুজাকার হয় এই শক্তিশালী চিপসেট।

৫। আইফোন এসই- র ক্ষেত্রে ৬৪, ১২৮ এবং ২৫৬ জিবি, মোট তিনটি স্টোরেজ ভ্যারিয়েন্টের ফোন ছিল। এসই ৩ মডেলেও তেমনটাই থাকবে বলে আশা করা হচ্ছে।

৬। Qi ওয়্যারলেস চার্জিং সাপোর্ট থাকতে পারে আইফোন এসই ৩ ডিভাইসে। ৫জি পরিষেবার পাশাপাশি ওয়াইফাই ৬ সাপোর্টও থাকার সম্ভাবনা রয়েছে।

আরও পড়ুন- রিয়েলমি জিটি ৫জি: ভারতে খুব তাড়াতাড়ি লঞ্চ হতে পারে এই স্মার্টফোন, দেখে নিন সম্ভাব্য ফিচার

ভারতে লঞ্চ হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে অ্যাপেলের আইফোন এসই ৩ মডেলের। দাম হতে পারে ৪৫ হাজারের কাছাকাছি।