Mount Everest: মাউন্ট এভারেস্ট পর্বতে ক্রমাগত বেড়ে চলেছে ব্যাকটেরিয়া, ছত্রাকের বসবাস

দিনের পর দিন ধরে মানুষের হাঁচি-কাশি থেকে বেরিয়ে আসছে অসংখ্য ব্যাকটেরিয়া। ওই প্রচণ্ড ঠান্ডায় যেখানে বেশিক্ষণ টিকে থাকাই দায়,সেখানে বহাল তবিয়তে বেড়ে চলেছে জীবাণুরা। মাউন্ট এভারেস্টের পরিস্থিতি যেন ভয়াবহ।

Mount Everest: মাউন্ট এভারেস্ট পর্বতে ক্রমাগত বেড়ে চলেছে ব্যাকটেরিয়া, ছত্রাকের বসবাস
| Edited By: | Updated on: Mar 19, 2023 | 7:23 PM

মাউন্ট এভারেস্ট নামটি শুনলেই প্রথমে যা মনে পড়ে তা হল,অপূর্ব সুন্দর বরফাচ্ছন্ন পর্বত আর তুষারে ঢাকা পৃথিবীর উচ্চতম শৃঙ্গ। ৮,৮৪৮.৮৬ মিটার উঁচু পর্বতে ক্রমাগত জমা হচ্ছে ব্যাকটেরিয়া ও ছত্রাক। দিনের পর দিন ধরে মানুষের হাঁচি-কাশি থেকে বেরিয়ে আসছে অসংখ্য ব্যাকটেরিয়া। তারা বাসা বাঁধছে মাউন্ট এভারেস্টের মাটিতে। তারা যে ধরনের ব্যাকটেরিয়া ও ছত্রাক খুঁজে পেয়েছেন,তার বেশিরভাগই পর্বতারোহীদের নাক-মুখ থেকে বেরিয়ে এসেছে। ওই প্রচণ্ড ঠান্ডায় যেখানে বেশিক্ষণ টিকে থাকাই দায়,সেখানে বহাল তবিয়তে বেড়ে চলেছে জীবাণুরা। এভারেস্টের দক্ষিণ বেস ক্যাম্পে হাঁচি-কাশি থেকে নির্গত ব্যাকটেরিয়া এবং ছত্রাক সবচেয়ে বেশি পরিমাণে পাওয়া গিয়েছে। অধিকাংশ পর্বতারোহী এই পথ দিয়েই এভারেস্টের চূড়ায় পৌঁছান। এই ব্যাকটেরিয়া এবং ছত্রাকগুলি বরফে শতাব্দীর পর শতাব্দী বেঁচে থাকতে পারে। যেখানে তাপমাত্রা হিমাঙ্কের নীচে,সেখানেও এই জীবাণুগুলি টিকে থাকতে পারে। এভারেস্টের ৭৯০০ ফুট উচ্চতায় সবচেয়ে বেশি সংখ্যক ব্যাকটেরিয়া-ছত্রাক দেখা গেছে। এই ব্যাকটেরিয়া-ছত্রাকের নাম স্ট্যাফাইলোকক্কাস এবং স্ট্রেপ্টোকক্কাস। কিন্তু এগুলি আমাদের ত্বক এবং মুখের ভিতরে বসবাসকারী ব্যাকটেরিয়া। এটি পর্বতের গোড়া থেকে ৮,০০০ ফুট উচ্চতাতেও অনেক সংখ্যায় পাওয়া গিয়েছে। যদি এই জীবাণুগুলির বিনাশ না ঘটানো যায়,তাহলে কয়েক বছরের মধ্য়েই মাউন্ট এভারেস্টে বরফের তুলনায় এদের পরিমাণ বেশি হয়ে যাবে। সবথেকে বেশি সমস্যায় পড়বেন পর্বতারোহীরা। জলবায়ুর পরিবর্তন চিন্তার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। এভাবে চলতে থাকলে অদূর ভবিষ্যতে আরও বড় কোনও প্রলয়ের সাক্ষী হতে হবে মানুষকে।

Follow Us:
স্ত্রী সোনালী চৌধুরীকে নিয়ে এ কী বললেন স্বামী রজত ঘোষ দস্তিদার!
স্ত্রী সোনালী চৌধুরীকে নিয়ে এ কী বললেন স্বামী রজত ঘোষ দস্তিদার!
আবার কিম-জং-উন আরেকটা যুদ্ধের ঘোষণা প্রায় করেই দিলেন
আবার কিম-জং-উন আরেকটা যুদ্ধের ঘোষণা প্রায় করেই দিলেন
বিশ্ব ফুটবলের 'পাওয়ার হাউস' জার্মানির থেকে কী কী গ্রহণ করতে পারে ভারত
বিশ্ব ফুটবলের 'পাওয়ার হাউস' জার্মানির থেকে কী কী গ্রহণ করতে পারে ভারত
মাথা হিজাবে মুড়ে ছবি দিয়ে দিতিপ্রিয়া, উঠল কটাক্ষের ঝড়
মাথা হিজাবে মুড়ে ছবি দিয়ে দিতিপ্রিয়া, উঠল কটাক্ষের ঝড়
ভালবাসা থাকলেই, ভালবাসায় ভরিয়ে দেবেন দেবচন্দ্রিমা, পাত্র খুঁজছেন?
ভালবাসা থাকলেই, ভালবাসায় ভরিয়ে দেবেন দেবচন্দ্রিমা, পাত্র খুঁজছেন?
১৯৫২ থেকে ২০২৪, গণতন্ত্রের নানা চড়াই-উতরাই, নির্বাচনের নানা অজানা গল্প
১৯৫২ থেকে ২০২৪, গণতন্ত্রের নানা চড়াই-উতরাই, নির্বাচনের নানা অজানা গল্প
বিরাটের হেয়ার স্টাইলিস্ট ফাঁস করলেন অজানা তথ্য, কত টাকা লাগল?
বিরাটের হেয়ার স্টাইলিস্ট ফাঁস করলেন অজানা তথ্য, কত টাকা লাগল?
এক অ্যাকাউন্টেই জমা থাকবে নতুন সব বিমা
এক অ্যাকাউন্টেই জমা থাকবে নতুন সব বিমা
ট্রোলের মুখে জবাব দিলেন 'বান্ধবী বদলানো' শোভন
ট্রোলের মুখে জবাব দিলেন 'বান্ধবী বদলানো' শোভন
শহরের নাইটক্লাবে লাস্যময়ী শ্রাবন্তী, চলল রাতভর নাচ
শহরের নাইটক্লাবে লাস্যময়ী শ্রাবন্তী, চলল রাতভর নাচ