‘চামার, ক্রিমিনাল!’ বিধায়ককে আক্রমণ দলেরই নেতার, অডিয়ো ক্লিপ যাচ্ছে মমতার কাছে

বন্যা ত্রাণের কোটি কোটি টাকা আত্মসাৎ করেছেন বিধায়ক (MLA)। ভাইরাল ক্লিপে এমনটাই দাবি করেছেন দাপুটে তৃণমূল (TMC) নেতা।

'চামার, ক্রিমিনাল!' বিধায়ককে আক্রমণ দলেরই নেতার, অডিয়ো ক্লিপ যাচ্ছে মমতার কাছে
মালদার বিধায়ক (ফাইল ছবি)

মালদা: ‘একজন চামার, ক্রিমিনালকে ভোটে দাঁড় করিয়েছে তৃণমূল। এতদিন বন্যা ত্রাণের কোটি কোটি টাকা মেরে খেয়েছে।এবারে বাংলা আবাস যোজনার ২৫০ কোটি টাকা আত্মসাৎ করবে।’ তৃণমূল বিধায়কের বিরুদ্ধে এ ভাবেই আক্রমণ করতে শোনা গেল দলেরই এক নেতাকে। বিস্ফোরক সেই অডিয়ো ক্লিপ ঘিরে তোলপাড় জেলা তৃণমূল। ঘাসফুল শিবির সূত্রে খবর, অভিযোগ জানাতে অডিয়ো ক্লিপ পাঠানো হচ্ছে খোদ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছে।

অডিয়ো ক্লিপে শোনা যাচ্ছে, হরিশ্চন্দ্রপুরের বর্তমান তৃণমূল বিধায়ক তজমুল হোসেনের বিরুদ্ধে মুখ খুলেছেন তৃণমূলেরই এক নেতা আমিনুল হক। এই ক্লিপ ফাঁস হতেই লিখিত অভিযোগ জানানো হয়েছে দলীয় নেতৃত্বের কাছে। শুক্রবার সকাল থেকেই এই অভিযোগ নিয়ে বৈঠকে বসেছে মালদা জেলা তৃণমূল নেতৃত্ব। এই ঘটনায় চরম অস্বস্তিতে জেলা তৃণমূল।

অডিয়ো ক্লিপে শোনা যাচ্ছে, হরিশ্চন্দ্রপুরের তৃণমূলের প্রথম সারির দাপুটে নেতা আমিনুল জনৈক তৃণমূল কর্মীকে বলছেন, ‘এলাকায় যাঁকে তৃণমূল প্রার্থী করেছে সে চামার, একজন ক্রিমিনাল। বন্যাত্রানের কোটি কোটি টাকা সে আত্মসাৎ করেছে। বাংলা আবাস যোজনার যে ২০০-২৫০ কোটি টাকা আসবে তাও আত্মসাৎ করবে। তিনি আরও বলেন, এ কারণেই তিনি ভোটের লড়াইতে থাকতে চান না।আড়ালেই আছেন। শোনা যাচ্ছে আমিনুল হক সেই তৃণমূল কর্মীকে ভোটের কাজে নামতে নিরুৎসাহিতও করছেন। যদিও কথা শুনেই বোঝা যাচ্ছে ভোটের আগের কথোপকথন এটি। কিন্তু গত রাতেই এই কথপোকথন কিছু তৃণমূল নেতার হাতে আসতেই তা ভাইরাল। আর তা নিয়েই নতুন করে বিপাকে তৃণমূল। যদিও এই অডিয়ো ক্লিপের সত্যতা যাচাই করেনি TV9 বাংলা।

আরও পড়ুন: ‘শ্বশুরবাড়িতে জামাই ঠকানো হচ্ছে?’ PAC চেয়ারম্যান পদে মুকুলের নাম নিয়ে তৃণমূলকে খোঁচা তথাগতর

এ দিকে, এই অডিয়ো টেপ নিয়ে তীব্র কটাক্ষ করেছে বিজেপি। বিজেপির জেলা সাধারণ সম্পাদক কিষাণ কেডিয়া বলেন, ‘তৃণমূলে গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব আরও একবার প্রমাণ হল। তৃণমূল হল কাটমানির সরকার। যে দিন জন সাধারণ সেটা বুঝে যাবে, যে তৃণমূল শুধু গোষ্ঠীদ্বব্দ্ব আর কাটমানির সরকার, সে দিন সরকার গড়বে বিজেপি। অন্যদিকে আমিনুলের দাবি এ সব তাঁর বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র। এই অভিযোগের কোনও ভিত্তি নেই বলে দাবি করেছেন তিনি। তিনি বলেন, ‘এটা একটা হাস্যকর ব্যাপার। কে আমার বিপক্ষে কে বলে সেটা বড় কথা নয়। আমার বুথে যে ফল হয়েছে তাতেই বোঝা যাচ্ছে আমি দলের জন্য কেমন কাজ করেছি। আমাকে ছোট করার জন্য কেউ কেউ এ সব মিথ্যা প্রচার করছে।’ জেলা তৃণমূল নেতৃত্ব সাফ জানিয়েছে যে খানে এই অডিয়ো ক্লিপ দেওয়া উচিৎ, সেখানেই দেওয়া হয়েছে। জেলা তৃণমূলের সাধারণ সম্পাদক বুলবুল খান বলেন, ‘শুধু বিধায়ককেক নয়, আমি মনে করি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কেও অপমান করা হয়েছে। কারণ আমরা জানি গোটা পশ্চিমবঙ্গে প্রার্থী ছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla