আয়ুর্বেদেই লুকিয়ে পেটের মেদ ঝরানোর ৯টি উপায়

যতই জিমে গিয়ে কসরত করুন, যতই কিটো ডায়েট করুন, দেশজ আয়ুর্বেদেই লুকিয়ে পেটের মেদ কমানোর রহস্য।

আয়ুর্বেদেই লুকিয়ে পেটের মেদ ঝরানোর ৯টি উপায়
প্রতীকী ছবি

ওজন কমানো সহজ কথা নয়। বিশেষ করে পেটের মেদ কমানো আরও কঠিন কাজ। আপনি যতই চেষ্টা করুন, বেলি ফ্যাট কমতেই চায় না। পেটে জমা মেদ অনায়াসে কমতে পারে অতি সহজ কিছু আয়ুর্বেদিক উপায়ে।

১. দুপুরবেলায় দিনের ৫০ শতাংশ ক্যালোরি যুক্ত খাবার খান। আয়ুর্বেদ বলে, এই সময় হজমশক্তি বেশি থাকে। রাতের খাবারে ক্যালোরি যুক্ত খাবার এড়িয়ে চলুন। সন্ধ্যা ৭টার আগে ডিনার করে নিন।

২. পেটের চর্বি ঝরাতে খাদ্য তালিকা থেকে বাদ দিন পরিশোধিত কার্বোহাইড্রেট (রিফাইনড কার্বোডাইড্রেট), যেমন চিনিযুক্ত পানীয়, মিষ্টি, পাউরুটি, বিস্কুট, তৈলাক্ত খাবার।

৩. সকালে খালি পেটে মেথি মিশ্রিত জল খান। সেক্ষেত্রে আগের দিন রাতে মেথি ভিজিয়ে রাখুন জলে। পরদিন সকালে মেথি ভেজানো জল পান করুন। না হলে জলে মেথি গুঁড়ো মিশিয়েও খেতে পারেন।

৪. আয়ুর্বেদ বলে, তেঁতুল খেলে পেটের মেদ কমতে পারে। জিভের স্বাদ বাড়ে। হজমশক্তি বাড়ে। ওজন কমে।

৫. শরীরে থেকে টক্সিন দূর করতে ডায়েটে যোগ করুন ত্রিফলা। হজম প্রক্রিয়া উন্নত করে। রাতে ডিনারের পর হালকা গরম জলে এক চা চামচ ত্রিফলা মিশিয়ে খান।

৬. মেদ গলাতে সাহায্য করে শুকনো আদা গুঁড়ো। গরম জলে মিশিয়ে খান। হজমশক্তি বাড়বে। বাড়তি মেদ কমবে। বাড়িতে শুকনো আদার গুড়ো না থাকলে তরকারিতে আদা যোগ করুন। চায়ের সঙ্গেও পান করতে পারেন।

৭. পেটে হাত দিয়ে নিয়মিত ৩০ মিনিট হাঁটুন। যোগা করতে পারেন। উপকার মিলবে।

৮. পিপাসা মেটাতে ঠান্ডা জল খাবেন না। হালকা গরম জল খান। এতেও হজমশক্তি বাড়ে।

৯. আয়ুর্বেদ বলে, খাবার ভাল করে চিবিয়ে খেলে ওজন বাড়ে না।

আরও পড়ুনকতখানি সুস্থ আছেন আপনি? বলবে আপনার নখ

আরও পড়ুনদিনে অতিরিক্ত চা খেলে কী কী ক্ষতি হতে পারে শরীরের?

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla