প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীর কনভয়ে হামলা! গাড়ি থেকে নেমে দলীয় কর্মীদের বোঝালেন মানিক সরকার

Tripura: ধনপুর মানিক সরকারের নিজস্ব বিধানসভা কেন্দ্র। সেখানে সোমবার তিনি সকালে যাচ্ছিলেন।

প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীর কনভয়ে হামলা! গাড়ি থেকে নেমে দলীয় কর্মীদের বোঝালেন মানিক সরকার
ফাইল চিত্র।

আগরতলা: ত্রিপুরার প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী মানিক সরকারের কনভয়ে হামলার অভিযোগ উঠল। সোমবার এই অভিযোগ ওঠে। মানিক সরকারের নিজের কেন্দ্র ধনপুরে যাওয়ার সময় এই কনভয়-হামলার ঘটনা ঘটে। পুরো ঘটনায় অভিযোগের আঙুল তোলা হয়েছে বিজেপির দিকে। এই ঘটনার পাল্টা প্রতিরোধে নামে সিপিএমও। পরে গাড়ি থেকে নেমে দলীয় কর্মীদের সামাল দিতে হয় বর্ষীয়ান এই বাম নেতাকে। যদিও বিজেপি সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করেছে। বরং তাদের দাবি, ক্ষমতায় থেকে মানিক সরকার কিছুই করেননি। তাই ভোটের বাক্সে মানুষ তাঁকে প্রত্যাখ্যান করেছেন। তবে সেই ক্ষোভ মানুষের থেকেই গিয়েছে। ক্ষমতায় না থাকলেও প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীকে দেখে তাই ধনপুরের মানুষ প্রতিবাদ করেছেন।

ধনপুর মানিক সরকারের নিজস্ব বিধানসভা কেন্দ্র। সেখানে সোমবার তিনি সকালে যাচ্ছিলেন। অভিযোগ, সেই সময় বিজেপি কিছু লোকজন জোগাড় করে মানিক সরকারের কনভয়ের পথ আটকায়। কনভয় ঘিরে ধরে বিক্ষোভ দেখানোরও চেষ্টা করে বলে অভিযোগ। পরিস্থিতি এতটাই উত্তপ্ত হয়ে ওঠে যে, সিপিএমের কর্মী-সমর্থকরাও পাল্টা লাঠি নিয়ে রাস্তায় নেমে প্রতিরোধ গড়ে তোলার ডাক দেন।

সিপিএমের দাবি, যেহেতু মানিক সরকারের মতো নেতার কনভয়ে হামলা হয়েছিল, দলীয় কর্মী সমর্থকরা স্বাভাবিক ভাবেই ক্ষুব্ধ হয়। যদিও বিজেপির পাল্টা দাবি, মানিক সরকার ওই এলাকায় ঢুকে মানুষের জন্য কোনও কাজ করছেন না। সে কারণেই স্থানীয় মানুষ এই বিক্ষোভ দেখিয়েছেন। এর সঙ্গে বিজেপির কোনও যোগ নেই।

যদিও গত কয়েকদিন ধরে ত্রিপুরায় বার বার বিরোধীরা অভিযোগ তুলেছে, তাদের উপর হামলা হচ্ছে। এদিন খোদ প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীর কনভয়ে যে ঘটনা ঘটল তার পর খুব স্বাভাবিক ভাবেই পরিস্থিতি আরও উত্তপ্ত হয়ে রয়েছে ধনপুরে। পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনলেও দিনভরই সেখানে নজরদারি চলবে বলে জানা গিয়েছে।

গত কয়েকদিনে ত্রিপুরার রাজনীতি বার বার শিরোনামে উঠে এসেছে। প্রতিবেশী রাজ্যে তৃণমূলের মাটি তৈরির চেষ্টা ঘিরে নতুন রাজনৈতিক সমীকরণ সে রাজ্যে। কিছুদিন আগেই তৃণমূলের প্রশংসা শোনা গিয়েছিল মানিক সরকারের মুখে। মানিক সরকার প্রকাশ্যে বলেছিলেন, “বিজেপি যাঁদের উপর তালিবানি কায়দায় হামলা চালাবে বলেছে, তাঁরাই নির্ভয়ে রাস্তায় নেমে লড়ছে। তাঁদের কুর্নিশ জানাচ্ছি।”

মানিকবাবু মুখ্যমন্ত্রী থাকার সময়ও তৃণমূল ত্রিপুরায় সংগঠন বৃদ্ধির চেষ্টা করেছিল। কিন্তু সে সময় সংগঠনের দায়িত্বে থাকা মুকুল রায় বিজেপিতে যোগ দেওয়ায় উত্তর-পূর্বের এই রাজ্যে সংগঠনের রাশ আগলা হয়ে যায়। সেই সময়ের কথা মনে করে মানিক সরকার আগেই বলছেন, “হয়তো আগেরবার ওরা ভাল ফল করতে পারেনি। কিন্তু তা বলে কখনও বাধাপ্রাপ্ত হয়নি।” আরও পড়ুন: ফের বিশ্ববিদ্যালয় খোলার নির্দেশিকা JNU’র, ‘পক্ষপাতের’ প্রতিবাদে ময়দানে ছাত্র সংসদ

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla