Agitation at Alipore Zoo: মহিলা কর্মীদের সঙ্গে ‘অশালীন’ আচরণের অভিযোগ, আলিপুর চিড়িয়াখানার হেড ক্লার্কের অপসারণের দাবিতে বিক্ষোভ

Alipore Zoo Contractual workers : আজ চিড়িয়াখানা চত্বরে বিক্ষোভ দেখান সেখানকার অস্থায়ী কর্মীরা। তাঁদের দাবি, চিড়িয়াখানার হেড ক্লার্ক গৌরাঙ্গ চট্টরাজকে ক্ষমা চাইতে হবে এবং তাকে অপসারণ করতে হবে।

Agitation at Alipore Zoo: মহিলা কর্মীদের সঙ্গে 'অশালীন' আচরণের অভিযোগ, আলিপুর চিড়িয়াখানার হেড ক্লার্কের অপসারণের দাবিতে বিক্ষোভ
আলিপুর চিড়িয়াখানায় বিক্ষোভ (নিজস্ব চিত্র)

কলকাতা : আলিপুর চিড়িয়াখানা চত্বরে বিক্ষোভ দেখালেন সেখানকার অস্থায়ী কর্মীরা। অভিযোগ, গতকাল চিড়িয়াখানার হেড ক্লার্ক গৌরাঙ্গ চট্টরাজ সেখানকার দুই মহিলা কর্মীর উদ্দেশে ‘অশালীন’ মন্তব্য করে। সেই সময় ওই হেড ক্লার্ক মদ্যপ অবস্থায় ছিলেন বলে অভিযোগ। এই খবর ছড়িয়ে পড়তেই ঘটনার প্রতিবাদে আজ চিড়িয়াখানা চত্বরে বিক্ষোভ দেখান সেখানকার অস্থায়ী কর্মীরা। তাঁদের দাবি, চিড়িয়াখানার হেড ক্লার্ক গৌরাঙ্গ চট্টরাজকে ক্ষমা চাইতে হবে এবং তাকে অপসারণ করতে হবে।

বিক্ষোভকারীদের বক্তব্য, বিজেপি নেতা রাকেশ সিংয়ের অনুগত বলে পরিচিত চিড়িয়াখানার হেড ক্লার্ক। রাকেশ সিং সম্প্রতি জামিনে মুক্তি পেয়েছেন। আর তারপরই গৌরাঙ্গ চট্টরাজের এ হেন কাণ্ড বেজায় চটে রয়েছেন আলিপুর চিড়িয়াখানার অস্থায়ী কর্মীরা। তাকে দ্রুত অপসারণের দাবি তুলেছেন তাঁরা।

বন সহায়ক সাম্য বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, “আমরা বিগত এক বছর আগে আলিপুর চিড়িয়াখানার কাজে যোগ দিয়েছিলাম। পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য় সরকারের বন দফতরের অধীনে অস্থায়ী কর্মী হিসেবে আমরা কাজে যোগ দিয়েছি। আমাদের নিয়োগের দিনও জটিলতা তৈরি করার চেষ্টা হয়েছিল। আমাদের চিড়িয়াখানায় ঢুকতে দেওয়া হয়নি। বিভিন্ন রকম কারণে আমাদের বাইরে বের করে দেওয়া হয়েছিল। বলেছিল, এখানো কোনও বন সহায়কের জায়গা নেই। এটা বন দফতরের অফিস নয়। রাকেশ সিং এবং তাঁর দলবলের লোকেরা এ ভাবেই আমাদের সঙ্গ আচরণ করেছিল গত বছর।”

তিনি আরও বলেন, “তারপর তিনি জেলে চলে যাওয়ার পর আমরা এখানে ঠিকঠাকভাবেই কাজ করছিলাম। সামনে মরশুম আসছে। ২৫ ডিসেম্বর থেকে ১ জানুয়ারি। এইসময় কাজের অনেক চাপ থাকে। আমরা চেয়েছিলাম, কীভাবে আমরা আমাদের কাজ করব, তার একটি সূচি তৈরি করে নিতে চেয়েছিলাম। সেই সময় এখানে দুই জন মহিলা কর্মী বসেছিলেন। সেই সময় বড়বাবু গৌরাঙ্গ চট্টরাজ মদ্যপ অবস্থায় অভব্য আচরণ করেন। কেন তাঁরা সেখানে বসেছিলেন, তা নিয়ে প্রশ্ন করেন। বলেন, আজ রাকেশ সিং ছাড়া পাচ্ছেন। ইউনিয়ন তোমাদের বুঝে নেবে।”

বিক্ষোভকারীদের বক্তব্য, “আলিপুর চিড়িয়াখানার বড়বাবু কীভাবে সেখানকার মহিলা কর্মীদের সঙ্গে এমন অভব্য আচরণ করতে পারেন? তাঁকে নিঃশর্তভাবে ক্ষমা চাইতে হবে। আমরা এখানে নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি। রাস্তায় যদি আমাদের উপর হামলা হয়, যদি আমাদের মারা হয়, তার দায় কে নেবে? এতদিন এখানে সব ঠিকঠাকই চলছিল। রাকেশ সিং গতকাল ছাড়া পাওয়ার পর এই ঘটনায় ইন্ধন জুগিয়েছে।”

আরও পড়ুন : Park Street Flyover: ৪ দিন বন্ধ থাকতে চলেছে শহরের এই গুরুত্বপূর্ণ ফ্লাইওভার! সপ্তাহান্তে যানজটের আশঙ্কা

আরও পড়ুন: BJP Rally in Siliguri: কেন কেবল কলকাতা? শিলিগুড়িতেও পুরনির্বাচন চেয়ে পথে পদ্ম

আরও পড়ুন: ভাইরাল অডিয়ো: কুণাল ঘোষের হাত থেকে উত্তরীয় পরা ‘দাদার অনুগামী’-কে দলে নিতে নিমরাজি তৃণমূল!

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla