BJP Rally in Siliguri: কেন কেবল কলকাতা? শিলিগুড়িতেও পুরনির্বাচন চেয়ে পথে পদ্ম

BJP Rally in Siliguri: কেন কেবল কলকাতা? শিলিগুড়িতেও পুরনির্বাচন চেয়ে পথে পদ্ম
বিজেপির মিছিল, নিজস্ব চিত্র

Municipal Elections 2021: উল্লেখ্য, কলকাতার পুরভোট নিয়ে বিজ্ঞপ্তি জারির পরই হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয় গেরুয়া শিবির। বিজেপির আইনজীবীদের তরফে দাবি করা হয়, রাজ্য নির্বাচন কমিশন দাবি করেছিল যে এমন কোনও কাজ করা হবে না, যা হাইকোর্টের সম্মানহানি করে।

TV9 Bangla Digital

| Edited By: tista roychowdhury

Nov 30, 2021 | 2:08 PM

দার্জিলিঙ: রাজ্য সরকার চায় ১৯ ডিসেম্বর কলকাতা ও হাওড়ায় একসঙ্গে পুরভোট করাতে। কিন্তু বৃহস্পতিবার নির্বাচন কমিশন ভোটের নির্ঘণ্টসংক্রান্ত যে বিজ্ঞপ্তি জারি করেছে সেখানে কেবলমাত্র কলকাতার কথাই উল্লেখ রয়েছে। হাওড়ায় কবে ভোট সে সংক্রান্ত কোনও তথ্যই কমিশনের তরফে জানানো হয়নি। একইসঙ্গে, কলকাতা ছাড়া অন্য রাজ্যের অন্যত্র কবে পুরভোট তা এখনও বিরাট প্রশ্নচিহ্ন। এ বার শিলিগুড়িতে পুরভোট চেয়ে পথে নামল পদ্ম শিবির (BJP)।

মঙ্গলবার দুপুর সাড়ে বারোটা নাগাদ প্রায় ২০০ জনের বেশি বিজেপি কর্মীকে সঙ্গে নিয়ে হিলকার্ট রোড থেকে মিছিলটি শুরু হয়। মিছিলে উপস্থিত ছিলেন  বিজেপি বিধায়ক শঙ্কর ঘোষ এবং আনন্দ বর্মণ। শিলিগুড়ি পুরসভা পর্যন্ত সেই মিছিলে অংশগ্রহণকারী এক বিজেপি সমর্থকের কথায়, “আমরা অবিলম্বে শিলিগুড়িতে পুরনির্বাচন চাই। একবছরের বেশি সময় ধরে  কোনও প্রশাসক বোর্ড দিয়ে পুরসভা চলতে পারে না। সাধারণ মানুষ পুরসভার সুবিধা পরিষেবাগুলি পাচ্ছেন না। আমরা অবিলম্বে নির্বাচন চাই।”

উল্লেখ্য, কলকাতার পুরভোট নিয়ে বিজ্ঞপ্তি জারির পরই হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয় গেরুয়া শিবির। বিজেপির আইনজীবীদের তরফে দাবি করা হয়, রাজ্য নির্বাচন কমিশন দাবি করেছিল যে এমন কোনও কাজ করা হবে না, যা হাইকোর্টের সম্মানহানি করে। অথচ হাইকোর্টে পুর সংক্রান্ত মামলা বিবেচনাধীন থাকার সময়ই কলকাতার পুরভোটের বিজ্ঞপ্তি জারি করে দিয়েছে কমিশন। কীভাবে তা করা যায়? সেই আর্জির ভিত্তিতে হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতি জানান,  এই বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষণের সঠিক সময় আসেনি।

প্রসঙ্গত, শিলিগুড়িতে পুরনির্বাচন চেয়ে গতকালই সরব হয়েছিলেন বাম নেতা অশোক ভট্টাচার্য। এমনকী কলকাতায় ভোট হলে শিলিগুড়িতে কেন নয়, তা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন অশোকবাবু। আগামী ৭ ডিসেম্বর নির্বাচনের দাবিতে এদিন মহামিছিলের ডাক দেয় বামেরা। শিলিগুড়িতে সোমবারই এই ঘোষণা করেন সিপিএম নেতা অশোক ভাট্টাচার্য (Asok Bhattacharya)। তিনি বলেন, “পৌরবোর্ড থাকা সাংবিধানিক ভাবেই বাধ্যতামূলক। এক বছরের বেশি কোনও ভাবেই প্রশাসক রেখে বোর্ড চালানো যায় না। ১১৪ পৌরসভায় ভোট বকেয়া। আগের বার একই দিনে কলকাতা ও শিলিগুড়িতে নির্বাচন হয়েছিল। মেয়াদ উত্তীর্ণ হওয়ার দেড় বছর পরও এখন কলকাতায় ভোট হলে শিলিগুড়িতে ভোট ঘোষণা হল না কেন?”

ইতিমধ্যেই, পুরভোট নিয়ে আদালতের দ্বারস্থ হচ্ছে সিপিএম। তাদের অভিযোগ, কমিশনের নির্দেশকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে কো-অর্ডিনেটরদের বেআইনি ভাবে রেখে পুরভোট করতে চাইছে সরকার। এই অভিযোগেই আদালতে যাওয়ার পরিকল্পনা নিয়েছে সিপিএম।

সিপিএমের বক্তব্য, যাঁরা কো-অর্ডিনেটর রয়েছেন, তাঁদের কো-অর্ডিনেটর রেখেই ভোটে যাচ্ছে শাসকদল। এর মধ্যে অনেকেই আবার আসন্ন পুরভোটে লড়াই করছেন। অর্থাৎ একজন কো-অর্ডিনেটর তিনি সমস্ত ক্ষমতা ভোগ করছেন, একই সঙ্গে তিনি ভোটের লড়াইও লড়ছেন। এতে সেই কো-অর্ডিনেটর নিজের ব্যক্তিগত প্রভাব ভোটের বাক্সে খাটাতে পারেন বলেও অভিযোগ সিপিএমের। এতে ভোটারদেরও প্রভাবিত করার চেষ্টা করা হতে পারে, যা সম্পূর্ণভাবে বেআইনি দাবি সিপিএমের।

আরও পড়ুন: ভাইরাল অডিয়ো: কুণাল ঘোষের হাত থেকে উত্তরীয় পরা ‘দাদার অনুগামী’-কে দলে নিতে নিমরাজি তৃণমূল!

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 BANGLA